নার্সিং ইনস্টিটিউটের ৯২ শিক্ষার্থী করোনায় আক্রান্ত
jugantor
নার্সিং ইনস্টিটিউটের ৯২ শিক্ষার্থী করোনায় আক্রান্ত

  নোয়াখালী প্রতিনিধি  

২২ জানুয়ারি ২০২২, ০১:৪১:০২  |  অনলাইন সংস্করণ

নোয়াখালী নার্সিং ইনস্টিটিউটের ৯২ শিক্ষার্থী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এরপরই শ্রেণিকক্ষে ক্লাস বন্ধ করা হয়েছে। তবে অনলাইনে ক্লাস নেওয়া হচ্ছে।

নোয়াখালীর সিভিল সার্জন ডা. মাসুম ইফতেখার জানিয়েছেন, সোমবার একজন করোনায় আক্রান্ত হন। পরে অন্য শিক্ষার্থীদের করোনা টেস্ট করালে আরও ৯১ জনের রিপোর্ট পজিটিভ আসে।

নোয়াখালী নার্সিং ইনস্টিটিউটের ইনচার্জ খালেদা খানম জানান, ৩ জানুয়ারি সাতদিনের ছুটি নিয়ে শিক্ষার্থীরা বাড়িতে যায়। ছুটি শেষে বাড়ি থেকে শিক্ষার্থীরা প্রতিষ্ঠানে ফিরলে সোমবার আমি তাদের ক্লাসে যাই। দেখি কয়েকজন ছাত্রী কাশি দিচ্ছে। কারও জ্বর বা গলাব্যথা আছে কিনা জানতে চাইলে একজন প্রচণ্ড গলাব্যথা ও জ্বরও আছে, আরেকজন জ্বরের কথা জানায়। বাকিরা জানায়, কাশি ছাড়া তেমন কোনো সমস্যা নেই।

তিনি বলেন, আমি তাৎক্ষণিক দুজনকে করোনা টেস্ট করানোর জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে পাঠাই। এদের একজনের করোনা পজিটিভ আসে। পরের দিন আরও ৫৫ শিক্ষার্থী নমুনা দিলে ১১ জনের করোনা পজিটিভ আসে। বুধবার নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটের কর্মকর্তারা কলেজে এসে বাকি শিক্ষার্থীদের নমুনা নিয়ে যায়। বৃহস্পতিবার হাসপাতাল থেকে জানানো হয়, আরও ৮০ জন শিক্ষার্থীর করোনা পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে।

খালেদা খানম আরও জানান, আক্রান্তদের ১০ জন বাড়ি ফিরে গেছে। বাকিরা কলেজের হোস্টেলে অবস্থান করছে। তাদের কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে।

নার্সিং ইনস্টিটিউটের ৯২ শিক্ষার্থী করোনায় আক্রান্ত

 নোয়াখালী প্রতিনিধি 
২২ জানুয়ারি ২০২২, ০১:৪১ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নোয়াখালী নার্সিং ইনস্টিটিউটের ৯২ শিক্ষার্থী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এরপরই শ্রেণিকক্ষে ক্লাস বন্ধ করা হয়েছে। তবে অনলাইনে ক্লাস নেওয়া হচ্ছে।

নোয়াখালীর সিভিল সার্জন ডা. মাসুম ইফতেখার জানিয়েছেন, সোমবার একজন করোনায় আক্রান্ত হন। পরে অন্য শিক্ষার্থীদের করোনা টেস্ট করালে আরও ৯১ জনের রিপোর্ট পজিটিভ আসে।

নোয়াখালী নার্সিং ইনস্টিটিউটের ইনচার্জ খালেদা খানম জানান, ৩ জানুয়ারি সাতদিনের ছুটি নিয়ে শিক্ষার্থীরা বাড়িতে যায়। ছুটি শেষে বাড়ি থেকে শিক্ষার্থীরা প্রতিষ্ঠানে ফিরলে সোমবার আমি তাদের ক্লাসে যাই। দেখি কয়েকজন ছাত্রী কাশি দিচ্ছে। কারও জ্বর বা গলাব্যথা আছে কিনা জানতে চাইলে একজন প্রচণ্ড গলাব্যথা ও জ্বরও আছে, আরেকজন জ্বরের কথা জানায়। বাকিরা জানায়, কাশি ছাড়া তেমন কোনো সমস্যা নেই।

তিনি বলেন, আমি তাৎক্ষণিক দুজনকে করোনা টেস্ট করানোর জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে পাঠাই। এদের একজনের করোনা পজিটিভ আসে। পরের দিন আরও ৫৫ শিক্ষার্থী নমুনা দিলে ১১ জনের করোনা পজিটিভ আসে। বুধবার নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটের কর্মকর্তারা কলেজে এসে বাকি শিক্ষার্থীদের নমুনা নিয়ে যায়। বৃহস্পতিবার হাসপাতাল থেকে জানানো হয়, আরও ৮০ জন শিক্ষার্থীর করোনা পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে।

খালেদা খানম আরও জানান, আক্রান্তদের ১০ জন বাড়ি ফিরে গেছে। বাকিরা কলেজের হোস্টেলে অবস্থান করছে। তাদের কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন