রাজশাহীতে করোনা উপসর্গে আরও ২ জনের মৃত্যু
jugantor
রাজশাহীতে করোনা উপসর্গে আরও ২ জনের মৃত্যু

  রাজশাহী ব্যুরো  

২২ জানুয়ারি ২০২২, ১৩:১১:৩৯  |  অনলাইন সংস্করণ

করোনা

প্রাণঘাতি করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে আরও দুজন মারা গেছেন।

শুক্রবার সকাল ৯টা থেকে শনিবার সকাল ৯টার মধ্যে হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যাকেন্দ্রে (আইসিইউ) তারা মারা যান।

রামেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় রামেক হাসপাতালে করোনা সংক্রমণে কোনো রোগী মারা যাননি। তবে করোনা উপসর্গ নিয়ে গেছেন দুজন। তাদের মধ্যে একজন পুরুষ। তার বয়স ৬১ বছরের ওপরে। অন্যজন নারী। তার বয়স ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে। তারা দুজনই রাজশাহী জেলার বাসিন্দা। করোনা সংক্রমণের উপসর্গ নিয়ে তারা হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি ছিলেন।

এদিকে ১০৪ শয্যার রামেক করোনা ইউনিটে শনিবার সকাল ৯টা পর্যন্ত রোগী ভর্তি ছিলেন ৪৩ জন। এক দিন আগেও এই সংখ্যা ছিল ৫৮। বর্তমানে রাজশাহীর ২৫, চাঁপাইনবাবগঞ্জের ছয়, নওগাঁর তিন, নাটোরের দুই, পাবনার তিন, কুষ্টিয়ার এক এবং জয়পুরহাটের তিন রোগী হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।

হাসপাতালে করোনা নিয়ে ভর্তি রয়েছেন ৩০ জন। একদিন আগেও এই সংখ্যা ছিল ৩৯। হাসপাতালে করোনা উপসর্গ নিয়ে ভর্তি রয়েছেন সাতজন। এ ছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন একজন। এই এক দিনে সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন ১৬ জন।

এদিকে গত শুক্রবার রামেক হাসপাতাল ল্যাবে করোনার নমুনা পরীক্ষা হয়নি। তবে রামেক ল্যাবে একই দিনে ১৫৯ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৪৬ জনের করোনা ধরা পড়েছে।

তাদের মধ্যে ২৯ জন রাজশাহীর, ১৫ জন চাঁপাইনবাবগঞ্জের এবং দুজন নাটোরের বাসিন্দা। পরীক্ষার অনুপাতে এই তিন জেলায় করোনা শনাক্তের হার যথাক্রমে ২৮ দশমিক ৭১ ও ৪০ দশমিক ৫৪ এবং ৯ দশমিক ৫২ শতাংশ।

রাজশাহীতে করোনা উপসর্গে আরও ২ জনের মৃত্যু

 রাজশাহী ব্যুরো 
২২ জানুয়ারি ২০২২, ০১:১১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
করোনা
ফাইল ছবি

প্রাণঘাতি করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে আরও দুজন মারা গেছেন।

শুক্রবার সকাল ৯টা থেকে শনিবার সকাল ৯টার মধ্যে হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যাকেন্দ্রে (আইসিইউ) তারা মারা যান।

রামেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় রামেক হাসপাতালে করোনা সংক্রমণে কোনো রোগী মারা যাননি। তবে করোনা উপসর্গ নিয়ে গেছেন দুজন। তাদের মধ্যে একজন পুরুষ। তার বয়স ৬১ বছরের ওপরে। অন্যজন নারী। তার বয়স ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে। তারা দুজনই রাজশাহী জেলার বাসিন্দা। করোনা সংক্রমণের উপসর্গ নিয়ে তারা হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি ছিলেন।

এদিকে ১০৪ শয্যার রামেক করোনা ইউনিটে শনিবার সকাল ৯টা পর্যন্ত রোগী ভর্তি ছিলেন ৪৩ জন। এক দিন আগেও এই সংখ্যা ছিল ৫৮। বর্তমানে রাজশাহীর ২৫, চাঁপাইনবাবগঞ্জের ছয়, নওগাঁর তিন, নাটোরের দুই, পাবনার তিন, কুষ্টিয়ার এক এবং জয়পুরহাটের তিন রোগী হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।  

হাসপাতালে করোনা নিয়ে ভর্তি রয়েছেন ৩০ জন। একদিন আগেও এই সংখ্যা ছিল ৩৯। হাসপাতালে করোনা উপসর্গ নিয়ে ভর্তি রয়েছেন সাতজন। এ ছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন একজন। এই এক দিনে সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন ১৬ জন।

এদিকে গত শুক্রবার রামেক হাসপাতাল ল্যাবে করোনার নমুনা পরীক্ষা হয়নি। তবে রামেক ল্যাবে একই দিনে ১৫৯ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৪৬ জনের করোনা ধরা পড়েছে।

তাদের মধ্যে ২৯ জন রাজশাহীর, ১৫ জন চাঁপাইনবাবগঞ্জের এবং দুজন নাটোরের বাসিন্দা। পরীক্ষার অনুপাতে এই তিন জেলায় করোনা শনাক্তের হার যথাক্রমে ২৮ দশমিক ৭১ ও ৪০ দশমিক ৫৪ এবং ৯ দশমিক ৫২ শতাংশ।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস