শিশুদের জন্য আরও ১৫ লাখ টিকা দিল যুক্তরাষ্ট্র
jugantor
শিশুদের জন্য আরও ১৫ লাখ টিকা দিল যুক্তরাষ্ট্র

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

০৮ আগস্ট ২০২২, ২২:২৭:৫৭  |  অনলাইন সংস্করণ

করোনাভাইরাস মোকাবিলায় বাংলাদেশের ৫ থে‌কে ১১ বছর বয়সী শিশুদের জন্য আরও ১৫ লাখ ডোজ ফাইজারের টিকা অনুদান দিয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র।

সোমবার ঢাকায় মার্কিন দূতাবাস এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানায়।

এতে বলা হয়, বাংলাদেশে ৫ থে‌কে ১১ বছর বয়সী শিশুদেরকে টিকা দিতে এবং দেশের ৭০ শতাংশেরও বেশি নাগরিককে সম্পূর্ণ টিকার আওতায় আনতে চায়। এই অগ্রগতি ত্বরান্বিত করতে যুক্তরাষ্ট্র ফাইজারের তৈরি আরও ১৫ লাখ ডোজ কোভিড-১৯ টিকা অনুদান দিয়েছে। এ সপ্তাহের চালানটি ছোট শিশুদের জন্য অনুদান দেওয়া টিকার দ্বিতীয় চালান। এর মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্রের মোট টিকা অনুদানের পরিমাণ দাঁড়াল ৭৫ মিলিয়ন (৭ কোটি ৫০ লাখ) ডোজের বেশি।

দূতাবাস জানায়, বাংলাদেশে আন্তর্জাতিক পর্যায় থেকে পাওয়া কোভিড-১৯ টিকা অনুদানের দুই-তৃতীয়াংশেরও বেশি এসেছে যুক্তরাষ্ট্র ও আমেরিকার জনগণের পক্ষ থেকে।

জাতীয় কোভিড-১৯ টিকা কার্যক্রমের প্রতিটি ক্ষেত্রে সহায়তা প্রদানের লক্ষ্যে যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশের সঙ্গে নিবিড়ভাবে কাজ করে যাচ্ছে। এগুলোর মধ্যে রয়েছে ৫১ হাজা‌রের বেশি স্বাস্থ্যসেবা প্রদানকারী ও অন্যান্য কর্মীদের জন্য নিরাপদ টিকা প্রদান প্রশিক্ষণ। বাংলাদেশের ৬৪টি জেলায় কোভিড-১৯’র টিকা কার্যক্রম গ্রহণে সহায়তা করা।

যুক্তরাষ্ট্র ১৮টি ফ্রিজার ভ্যান, ৭৫০টি ফ্রিজার ইউনিট ও ৮ হাজারটি টিকা বহন বাক্স অনুদান দেয়া। পাশাপাশি ৪ কোটি ৭০ লাখ টিকা সরাসরি প্রদানের লক্ষ্যে প্রত্যন্ত অঞ্চলগুলোতে ৫ কোটি ৭০ লক্ষ ডোজ টিকা পরিবহনে সহায়তা করেছে।

বাংলাদেশে কোভিড-১৯ বিষয়ে উন্নয়ন ও মানবিক সহায়তা হিসেবে যুক্তরাষ্ট্র ১৪ কোটি ডলারেরও বেশি অনুদান দিয়েছে। একইভা‌বে বিশ্বব্যাপী কোভ্যাক্স কার্যক্রমের আওতায় কোভিড-১৯’র টিকার অতি-শীতলীকৃত মজুদ, পরিবহন ও নিরাপদ ব্যবহার-বিধি অনুসরণে সহায়তার জন্য যুক্তরাষ্ট্র ৪০০ কোটি ডলার অনুদান দিয়েছে।

বিশ্বব্যাপী কোভিড-১৯’র টিকা গ্রহণের ন্যায়সঙ্গত সুযোগ তৈরির লক্ষ্যে এই অনুদানের মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্র বিশ্বের বৃহত্তম দাতাদেশে পরিণত হয়েছে।

শিশুদের জন্য আরও ১৫ লাখ টিকা দিল যুক্তরাষ্ট্র

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
০৮ আগস্ট ২০২২, ১০:২৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

করোনাভাইরাস মোকাবিলায় বাংলাদেশের ৫ থে‌কে ১১ বছর বয়সী শিশুদের জন্য আরও ১৫ লাখ ডোজ ফাইজারের টিকা অনুদান দিয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র।

সোমবার ঢাকায় মার্কিন দূতাবাস এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানায়।

এতে বলা হয়, বাংলাদেশে ৫ থে‌কে ১১ বছর বয়সী শিশুদেরকে টিকা দিতে এবং দেশের ৭০ শতাংশেরও বেশি নাগরিককে সম্পূর্ণ টিকার আওতায় আনতে চায়। এই অগ্রগতি ত্বরান্বিত করতে যুক্তরাষ্ট্র ফাইজারের তৈরি আরও ১৫ লাখ ডোজ কোভিড-১৯ টিকা অনুদান দিয়েছে। এ সপ্তাহের চালানটি ছোট শিশুদের জন্য অনুদান দেওয়া টিকার দ্বিতীয় চালান। এর মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্রের মোট টিকা অনুদানের পরিমাণ দাঁড়াল ৭৫ মিলিয়ন (৭ কোটি ৫০ লাখ) ডোজের বেশি।

দূতাবাস জানায়, বাংলাদেশে আন্তর্জাতিক পর্যায় থেকে পাওয়া কোভিড-১৯ টিকা অনুদানের দুই-তৃতীয়াংশেরও বেশি এসেছে যুক্তরাষ্ট্র ও আমেরিকার জনগণের পক্ষ থেকে। 

জাতীয় কোভিড-১৯ টিকা কার্যক্রমের প্রতিটি ক্ষেত্রে সহায়তা প্রদানের লক্ষ্যে যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশের সঙ্গে নিবিড়ভাবে কাজ করে যাচ্ছে। এগুলোর মধ্যে রয়েছে ৫১ হাজা‌রের বেশি স্বাস্থ্যসেবা প্রদানকারী ও অন্যান্য কর্মীদের জন্য নিরাপদ টিকা প্রদান প্রশিক্ষণ। বাংলাদেশের ৬৪টি জেলায় কোভিড-১৯’র টিকা কার্যক্রম গ্রহণে সহায়তা করা। 

যুক্তরাষ্ট্র ১৮টি ফ্রিজার ভ্যান, ৭৫০টি ফ্রিজার ইউনিট ও ৮ হাজারটি টিকা বহন বাক্স অনুদান দেয়া। পাশাপাশি ৪ কোটি ৭০ লাখ টিকা সরাসরি প্রদানের লক্ষ্যে প্রত্যন্ত অঞ্চলগুলোতে ৫ কোটি ৭০ লক্ষ ডোজ টিকা পরিবহনে সহায়তা করেছে।
 
বাংলাদেশে কোভিড-১৯ বিষয়ে উন্নয়ন ও মানবিক সহায়তা হিসেবে যুক্তরাষ্ট্র ১৪ কোটি ডলারেরও বেশি অনুদান দিয়েছে। একইভা‌বে বিশ্বব্যাপী কোভ্যাক্স কার্যক্রমের আওতায় কোভিড-১৯’র টিকার অতি-শীতলীকৃত মজুদ, পরিবহন ও নিরাপদ ব্যবহার-বিধি অনুসরণে সহায়তার জন্য যুক্তরাষ্ট্র ৪০০ কোটি ডলার অনুদান দিয়েছে। 

বিশ্বব্যাপী কোভিড-১৯’র টিকা গ্রহণের ন্যায়সঙ্গত সুযোগ তৈরির লক্ষ্যে এই অনুদানের মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্র বিশ্বের বৃহত্তম দাতাদেশে পরিণত হয়েছে।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন