একদিনে ১১ কোভিড রোগী শনাক্ত, মৃত্যু ১
jugantor
একদিনে ১১ কোভিড রোগী শনাক্ত, মৃত্যু ১

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

২৯ নভেম্বর ২০২২, ২০:৩২:৪৪  |  অনলাইন সংস্করণ

দেশে গত একদিনে নতুন করে ১১ জন করোনাভাইরাসের রোগী শনাক্ত হয়েছেন। তাদের মধ্যে ঢাকার বাসিন্দা মাত্র একজন। এ সময়ে মৃত্যু হয়েছে ১ জনের। নতুন রোগীদের নিয়ে দেশে মোট শনাক্ত করোনা রোগীর সংখ্যা বেড়ে ২০ লাখ ৩৬ হাজার ৫৬৭ জন হয়েছে। মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২৯ হাজার ৪৩৩ জন হয়েছে।

মঙ্গলবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে পাঠানো করোনাবিষয়ক নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়- সারা দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় ১ হাজার ৫২০টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়। পরীক্ষা করা হয় ১ হাজার ৫২১টি নমুনা। পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার শূন্য দশমিক ৭২ শতাংশ। আগের দিন এই হার ছিল ০ দশমিক ৭৯ শতাংশ। মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত মোট শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ৪৯ শতাংশ।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানিয়েছে গত একদিনে শনাক্ত রোগীর মধ্যে কেবল একজন ঢাকা জেলার বাসিন্দা। এছাড়া টাঙ্গাইল, সিরাজগঞ্জ ও চট্টগ্রামে দুইজন করে এবং ফরিদপুর, নারায়ণগঞ্জ, সিলেট ও কুষ্টিয়ায় ১ জন করে রোগী শনাক্ত হয়েছেন। পঞ্চাশোর্ধ্ব যে নারী মারা গেছেন তিনি ছিলেন চট্টগ্রামের বাসিন্দা। একটি সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। তবে গত ২৪ ঘণ্টায় ৬৮ জন করোনা রোগীর সেরে ওঠার তথ্য দিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। তাদের নিয়ে এ পর্যন্ত সুস্থ হলেন ১৯ লাখ ৮৫ হাজার ৭৬২ জন।

বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের প্রথম সংক্রমণ ধরা পড়েছিল ২০২০ সালের ৮ মার্চ। ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের ব্যাপক বিস্তারের মধ্যে গত বছরের ২৮ জুলাই দেশে রেকর্ড ১৬ হাজার ২৩০ জন নতুন রোগী শনাক্ত হয়। প্রথম রোগী শনাক্তের ১০ দিন পর ২০২০ সালের ১৮ মার্চ দেশে প্রথম মৃত্যুর তথ্য নিশ্চিত করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। ২০২১ সালের ৫ আগস্ট ও ১০ আগস্ট ২৬৪ জন করে মৃত্যুর খবর আসে, যা মহামারির মধ্যে এক দিনের সর্বোচ্চ সংখ্যা। বিশ্বে করোনাভাইরাস আক্রান্ত হয়ে এ পর্যন্ত মারা গেছেন ৬৬ লাখ ৩২ হাজারের বেশি মানুষ। বিশ্বজুড়ে আক্রান্ত ছাড়িয়েছে ৬৪ কোটি ১৮ লাখের বেশি।

একদিনে ১১ কোভিড রোগী শনাক্ত, মৃত্যু ১

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
২৯ নভেম্বর ২০২২, ০৮:৩২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

দেশে গত একদিনে নতুন করে ১১ জন  করোনাভাইরাসের রোগী শনাক্ত হয়েছেন। তাদের মধ্যে ঢাকার বাসিন্দা মাত্র একজন। এ সময়ে মৃত্যু হয়েছে ১ জনের। নতুন রোগীদের নিয়ে দেশে মোট শনাক্ত করোনা রোগীর সংখ্যা বেড়ে ২০ লাখ ৩৬ হাজার ৫৬৭ জন হয়েছে। মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২৯ হাজার ৪৩৩ জন হয়েছে। 

মঙ্গলবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে পাঠানো করোনাবিষয়ক নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়- সারা দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় ১ হাজার ৫২০টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়। পরীক্ষা করা হয় ১ হাজার ৫২১টি নমুনা। পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার শূন্য দশমিক ৭২ শতাংশ। আগের দিন এই হার ছিল ০ দশমিক ৭৯ শতাংশ। মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত মোট শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ৪৯ শতাংশ।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানিয়েছে গত একদিনে শনাক্ত রোগীর মধ্যে কেবল একজন ঢাকা জেলার বাসিন্দা। এছাড়া টাঙ্গাইল, সিরাজগঞ্জ ও চট্টগ্রামে দুইজন করে এবং ফরিদপুর, নারায়ণগঞ্জ, সিলেট ও কুষ্টিয়ায় ১ জন করে রোগী শনাক্ত হয়েছেন। পঞ্চাশোর্ধ্ব যে নারী মারা গেছেন তিনি ছিলেন চট্টগ্রামের বাসিন্দা। একটি সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। তবে গত ২৪ ঘণ্টায় ৬৮ জন করোনা রোগীর সেরে ওঠার তথ্য দিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। তাদের নিয়ে এ পর্যন্ত সুস্থ হলেন ১৯ লাখ ৮৫ হাজার ৭৬২ জন। 

বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের প্রথম সংক্রমণ ধরা পড়েছিল ২০২০ সালের ৮ মার্চ। ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের ব্যাপক বিস্তারের মধ্যে গত বছরের ২৮ জুলাই দেশে রেকর্ড ১৬ হাজার ২৩০ জন নতুন রোগী শনাক্ত হয়। প্রথম রোগী শনাক্তের ১০ দিন পর ২০২০ সালের ১৮ মার্চ দেশে প্রথম মৃত্যুর তথ্য নিশ্চিত করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। ২০২১ সালের ৫ আগস্ট ও ১০ আগস্ট ২৬৪ জন করে মৃত্যুর খবর আসে, যা মহামারির মধ্যে এক দিনের সর্বোচ্চ সংখ্যা। বিশ্বে করোনাভাইরাস আক্রান্ত হয়ে এ পর্যন্ত মারা গেছেন ৬৬ লাখ ৩২ হাজারের বেশি মানুষ। বিশ্বজুড়ে আক্রান্ত ছাড়িয়েছে ৬৪ কোটি ১৮ লাখের বেশি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন