লাল টুকটুকে আপেল খেলে হয় ক্যান্সার!

  যুগান্তর ডেস্ক ০৭ নভেম্বর ২০১৮, ১০:৩০ | অনলাইন সংস্করণ

লাল টুকটুকে আপেল খেলে হয় ক্যান্সার!
ছবি: সংগৃহীত

লাল টুকটুকে রঙে সবার আকর্ষণ। আর এ রঙের আপেল দেখলেই লোভে খেতে ইচ্ছে করে।

এই লোভনীয় রঙের আপেলের মধ্যে মাখানো হয় ক্ষতিকর রাসায়নিক মোম, যা শরীরের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর। কিন্তু তারপরও আমরা রাসায়নিক মিশ্রিত আপেল খেয়ে থাকি।

গবেষকদের মতে, দীর্ঘদিন এ ধরনের রাসায়নিক শরীরে প্রবেশ করলে অন্ত্রে ক্ষতিকর প্রভাব ফেলে। এমনকি কোলন ক্যান্সারও হতে পারে।

মেডিসিন বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, আপেলের গায়ে প্রাকৃতিকভাবে মোমজাতীয় এক রকম পদার্থ সৃষ্টি হয়, কিন্তু তা বেশিদিন স্থায়ী হয় না। স্থায়িত্বের জন্য কৃত্রিম মোম মাখানো হয়। যাতে আর্দ্রতা না ঢুকতে পারে এবং বেশিদিন টুকটুকে লাল ও তাজা দেখায়।

গ্যাস্ট্রো এন্টেরোলজিস্ট ডা. বিপিএন কৌশিক বলেন, মোম বা প্যারাফিন পালিশ করা ফল যেমন- আপেল, পেয়ারা খেলে পাতলা পায়খানা, বমি ও পেটে ব্যথা হয়। অন্ত্রে আস্তরণ জমে যায়। খাদ্য খেলে ক্ষুদ্রান্ত্রের মধ্যে শোষিত না হয়ে হজমের বড়সড় গোলমাল হয়। এমনকি ঝুঁকি থাকে কোলন ক্যান্সারেরও।

ডা. অরিন্দম বিশ্বাস জানান, সাধারণত সেল্যাক, কারনৌবা, পেট্রোলিয়াম জেলি ব্যবহৃত হয়। এগুলো শরীরে প্রবেশ করলে মূলত হজমের সিস্টেমটাই নষ্ট হয়ে যায়।

পেট খারাপ, ডায়েরিয়া হয়। বৃহদান্ত্র, ক্ষুদ্রান্ত্রের ওপর যে আস্তরণ থাকে, তাতে মারাত্মক প্রভাব ফেলে। দীর্ঘদিন শরীরে ঢুকলে কোলন ক্যান্সার হওয়ারও আশঙ্কা থাকে।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×