মাইগ্রেন সমস্যায় প্রচলিত কিছু ভুল ধারণা
jugantor
মাইগ্রেন সমস্যায় প্রচলিত কিছু ভুল ধারণা

  লাইফস্টাইল ডেস্ক  

১৮ অক্টোবর ২০২১, ১৩:১২:০৯  |  অনলাইন সংস্করণ

মাইগ্রেন সমস্যায় প্রচলিত কিছু ভুল ধারণা

মাইগ্রেনের সমস্যা বর্তমানে অনেকেরই দেখা দিচ্ছে। মাইগ্রেনের প্রাথমিক লক্ষণ হচ্ছে— মাঝারি থেকে গুরুতর মাথাব্যথা করা। এ ছাড়া মাইগ্রেনের মাথাব্যথার কারণে অনেকের বুক ধড়ফড়, ব্যথা ও বমিভাব হয়ে থাকে।

মাইগ্রেনের সমস্যা হলে আমরা অনেকেই বিভিন্ন ওষুধ, ক্যাফেইন, পুষ্টি গ্রহণসহ করে থাকি। কিন্তু আমরা হয়তো অনেকেই জানি না যে, এগুলো মাইগ্রেনের তেমন কোনো উপকারে আসে না।

আসুন জেনে নিই মাইগ্রেন সম্পর্কে প্রচলিত কিছু ভুল ধারণা—

১. মাইগ্রেন গুরুতর নয়

মাইগ্রেনের সমস্যা গুরুতর নয় এই ধারণাটি মোটেও ঠিক নয়। এটি দীর্ঘস্থায়ী এবং কখনও কখনও দুর্বল ও অক্ষম করে তুলতে পারে বলে জানিয়েছেন ডা. মেধাত মিখাইল। তিনি একজন ব্যথা ব্যবস্থাপনা বিশেষজ্ঞ ও ফাউন্টেন ভ্যালির মেমোরিয়াল কেয়ার অরেঞ্জ কোস্ট মেডিকেল সেন্টারের মেরুদণ্ড স্বাস্থ্য কেন্দ্রের অপারেটিভ প্রোগ্রামের চিকিৎসা পরিচালক।

তিনি বলেন, হেমিপ্লেজিক মাইগ্রেন নামে এক ধরনের মাইগ্রেন আছে যা পারিবারিক, নিউরোলজিকাল লক্ষণগুলোর সঙ্গে যুক্ত এবং এটি স্ট্রোক পর্যন্ত ঘটাতে পারে।

২. মাইগ্রেন শুধু মাথাব্যথা
মাইগ্রেন নিয়ে সবচেয়ে পরিচিত ভুল ধারনাটি হচ্ছে যে, এটি শুধু একটি মাথাব্যথা। কিন্তু এ ধারনাটি একদমই ভুল। এটি অন্যান্য সাধারণ মাথাব্যথার মতো নয়। এ বিষয়ে পেডিয়াট্রিক নিউরোলজি, প্রাপ্তবয়স্ক এবং শিশুদের মাথাব্যথা, এবং নিউরোমেজিং এ বোর্ড প্রত্যয়িত ডা. জেনিফার ম্যাকভিজ বলেন, মাইগ্রেন আসলে একটি প্রাথমিক মাথাব্যথার ব্যাধি এবং এটি সাধারণ মাথাব্যথার চেয়ে অনেক বেশি। আসলে, মাথাব্যথা মাইগ্রেনের একমাত্র লক্ষণ, এবং কিছু মাইগ্রেনের মাথাব্যথা একেবারেই নেই।

৩. ক্যাফেইন মাইগ্রেনের কারণ
অনেকেই মনে করেন যে ক্যাফেইন হচ্ছে মাইগ্রেনের কারণ। যদিও কফির সঙ্গে মাইগ্রেনের একটি সম্পর্ক রয়েছে কিন্তু তারপরেও ক্যাফেইন মাইগ্রেনের কারণ নয়। কিন্তু এটি কিছু মানুষের ক্ষেত্রে ট্রিগার হিসেবে কাজ করতে পারে। ড. মিখাইল বলেছেন, ক্যাফিনের অতিরিক্ত ব্যবহার মাইগ্রেন ট্রিগার করতে পারে। সাধারণভাবে ক্যাফিন মাইগ্রেনের মাথাব্যথা সহ মাথাব্যথা উপশমে সাহায্য করতে পারে।

৪. কোনো ওষুধ মাইগ্রেন কমাতে পারে না
কোনো ওষুধই মাইগ্রেনের সমস্যা কমাতে পারে না এটি অনেকেরই ভুল ধারনা। এখন অনেক ওষুধই পাওয়া যায় যেগুলো মাথাব্যথা কমাতে পারে। এ ছাড়া ড. মিখাইলের মতে, প্রতি রাতে কমপক্ষে ৮ ঘণ্টা ঘুমানো এবং প্রতিদিন ৮ গ্লাস পানি পান করলে তা অনেকটাই মাইগ্রেনের ঝুঁকি কমাতে পারে।

৫. সাপ্লিমেন্ট মাইগ্রেন নিরাময় করে
অনেকেই মনে করেন যে, বিভিন্ন সাপলিমেন্ট মাইগ্রেনের সমস্যা নিরাময় করে। কিন্তু এ ধারনাটি ভুল। ড. মিখাইল এ ধারনাটিকে ভুল বলে বলেছেন যে, এটি সত্য নয়যে সাপলিমেন্ট মাইগেনের সমস্যা নিরাময় করে। এটি কিছুটা মাইগ্রেনের মাথাব্যথাকে কমাতে সাহায্য করতে পারে বা এর সূত্রপাত প্রতিরোধ করতে পারে, কিন্তু নিরাময় করবে না।

তথ্যসূত্র: মেডিকেল নিউজ টুডে

মাইগ্রেন সমস্যায় প্রচলিত কিছু ভুল ধারণা

 লাইফস্টাইল ডেস্ক 
১৮ অক্টোবর ২০২১, ০১:১২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
মাইগ্রেন সমস্যায় প্রচলিত কিছু ভুল ধারণা
প্রতীকী ছবি

মাইগ্রেনের সমস্যা বর্তমানে অনেকেরই দেখা দিচ্ছে।  মাইগ্রেনের প্রাথমিক লক্ষণ হচ্ছে— মাঝারি থেকে গুরুতর মাথাব্যথা করা। এ ছাড়া মাইগ্রেনের মাথাব্যথার কারণে অনেকের বুক ধড়ফড়, ব্যথা ও বমিভাব হয়ে থাকে।

মাইগ্রেনের সমস্যা হলে আমরা অনেকেই বিভিন্ন ওষুধ, ক্যাফেইন, পুষ্টি গ্রহণসহ করে থাকি।  কিন্তু আমরা হয়তো অনেকেই জানি না যে, এগুলো মাইগ্রেনের তেমন কোনো উপকারে আসে না। 

আসুন জেনে নিই মাইগ্রেন সম্পর্কে প্রচলিত কিছু ভুল ধারণা—

১. মাইগ্রেন গুরুতর নয়

মাইগ্রেনের সমস্যা গুরুতর নয় এই ধারণাটি মোটেও ঠিক নয়।  এটি দীর্ঘস্থায়ী এবং কখনও কখনও দুর্বল ও অক্ষম করে তুলতে পারে বলে জানিয়েছেন ডা. মেধাত মিখাইল। তিনি একজন ব্যথা ব্যবস্থাপনা বিশেষজ্ঞ ও ফাউন্টেন ভ্যালির মেমোরিয়াল কেয়ার অরেঞ্জ কোস্ট মেডিকেল সেন্টারের মেরুদণ্ড স্বাস্থ্য কেন্দ্রের অপারেটিভ প্রোগ্রামের চিকিৎসা পরিচালক।

তিনি বলেন, হেমিপ্লেজিক মাইগ্রেন নামে এক ধরনের মাইগ্রেন আছে যা পারিবারিক, নিউরোলজিকাল লক্ষণগুলোর সঙ্গে যুক্ত এবং এটি স্ট্রোক পর্যন্ত ঘটাতে পারে।

২. মাইগ্রেন শুধু মাথাব্যথা
মাইগ্রেন নিয়ে সবচেয়ে পরিচিত ভুল ধারনাটি হচ্ছে যে, এটি শুধু একটি মাথাব্যথা। কিন্তু এ ধারনাটি একদমই ভুল। এটি অন্যান্য সাধারণ মাথাব্যথার মতো নয়। এ বিষয়ে পেডিয়াট্রিক নিউরোলজি, প্রাপ্তবয়স্ক এবং শিশুদের মাথাব্যথা, এবং নিউরোমেজিং এ বোর্ড প্রত্যয়িত ডা. জেনিফার ম্যাকভিজ বলেন, মাইগ্রেন আসলে একটি প্রাথমিক মাথাব্যথার ব্যাধি এবং এটি সাধারণ মাথাব্যথার চেয়ে অনেক বেশি। আসলে, মাথাব্যথা মাইগ্রেনের একমাত্র লক্ষণ, এবং কিছু মাইগ্রেনের মাথাব্যথা একেবারেই নেই।

৩. ক্যাফেইন মাইগ্রেনের কারণ
অনেকেই মনে করেন যে ক্যাফেইন হচ্ছে মাইগ্রেনের কারণ। যদিও কফির সঙ্গে মাইগ্রেনের একটি সম্পর্ক রয়েছে কিন্তু তারপরেও ক্যাফেইন মাইগ্রেনের কারণ নয়। কিন্তু এটি কিছু মানুষের ক্ষেত্রে ট্রিগার হিসেবে কাজ করতে পারে। ড. মিখাইল বলেছেন, ক্যাফিনের অতিরিক্ত ব্যবহার মাইগ্রেন ট্রিগার করতে পারে। সাধারণভাবে ক্যাফিন মাইগ্রেনের মাথাব্যথা সহ মাথাব্যথা উপশমে সাহায্য করতে পারে।

৪. কোনো ওষুধ মাইগ্রেন কমাতে পারে না
কোনো ওষুধই মাইগ্রেনের সমস্যা কমাতে পারে না এটি অনেকেরই ভুল ধারনা। এখন অনেক ওষুধই পাওয়া যায় যেগুলো মাথাব্যথা কমাতে পারে। এ ছাড়া ড. মিখাইলের মতে, প্রতি রাতে কমপক্ষে ৮ ঘণ্টা ঘুমানো এবং প্রতিদিন ৮ গ্লাস পানি পান করলে তা অনেকটাই মাইগ্রেনের ঝুঁকি কমাতে পারে।

৫. সাপ্লিমেন্ট মাইগ্রেন নিরাময় করে
অনেকেই মনে করেন যে, বিভিন্ন সাপলিমেন্ট মাইগ্রেনের সমস্যা নিরাময় করে। কিন্তু এ ধারনাটি ভুল। ড. মিখাইল এ ধারনাটিকে ভুল বলে বলেছেন যে, এটি সত্য নয়যে সাপলিমেন্ট মাইগেনের সমস্যা নিরাময় করে। এটি কিছুটা মাইগ্রেনের মাথাব্যথাকে কমাতে সাহায্য করতে পারে বা এর সূত্রপাত প্রতিরোধ করতে পারে, কিন্তু নিরাময় করবে না।

তথ্যসূত্র: মেডিকেল নিউজ টুডে

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন