শীতে কেন ব্যাডমিন্টন খেলবেন
jugantor
শীতে কেন ব্যাডমিন্টন খেলবেন

  অধ্যাপক ডা. খাজা নাজিম উদ্দিন  

০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ১৬:৪৫:৩৪  |  অনলাইন সংস্করণ

শীতের সময়টাতে ব্যাডমিন্টন খেলা বেশি জনপ্রিয়। শরীর ও মনের সুস্থতায় অবশ্য ব্যাডমিন্টন বেশ উপকারী। এক ঘণ্টা ব্যাডমিন্টন খেললে ৪৫০ ক্যালরি পোড়ানো সম্ভব। এ খেলা আপনার গতি বাড়াবে, শরীরটাকে ফিট রাখবে। বুদ্ধিতেও শান পড়বে। গড়ে উঠবে খেলোয়াড়সুলভ মানসিকতা। ব্যাডমিন্টন খেলতে গিয়ে দৌড়ঝাঁপ, ডাইভিং, ক্ষিপ্রতার সঙ্গে কর্কে আঘাত করার বিষয়টি আপনার পেশি ও সন্ধির দক্ষতা বাড়াবে।

এ ধরনের খেলায় রক্তে খারাপ চর্বির মাত্রা কমে, ভালো চর্বির মাত্রা বাড়ে। রক্তে শর্করার পরিমাণ কমে। ডায়াবেটিসের রোগীরা হাঁটার বদলে ব্যাডমিন্টনও খেলতে পারেন। রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে থাকবে। হৃদরোগের ঝুঁকি কমবে। সুস্থ ব্যক্তি খেলার অভ্যাস গড়ে তুললে পরবর্তী সময়ে তাদের এসব দীর্ঘমেয়াদি রোগ হওয়ার ঝুঁকি কমে।

এছাড়া এ রকম খেলায় অস্থিসন্ধিগুলো সচল ও সুস্থ থাকবে। হাত-পা, পিঠসহ শরীরের প্রায় সব জায়গার মাংসপেশির জোর বাড়বে এবং এর পাশাপাশি এসব পেশির নমনীয়তা বাড়বে। ব্যাডমিন্টন খেলার অভ্যাস সচল ও কর্মক্ষম থাকার পথে আপনাকে এগিয়ে দেবে। সচল থাকার মাধ্যমে হাড়ের ক্ষয় রোধ হবে।

ব্যাডমিন্টন খেলায় আপনার দুশ্চিন্তা কমবে। প্রফুল্ল থাকতে পারবেন। সামাজিক যোগাযোগ বাড়বে। শরীরের প্রতিটি কোষে অক্সিজেন যাবে প্রচুর পরিমাণে। এন্ডরফিন নিঃসরণ বাড়বে, যার ফলে শরীরের ব্যথা কম অনুভব করবেন, মানসিক চাপ কমবে এবং ঘুম ভালো হবে।

লেখক: অধ্যাপক, মেডিসিন বিভাগ, বারডেম হাসপাতাল, ঢাকা।

শীতে কেন ব্যাডমিন্টন খেলবেন

 অধ্যাপক ডা. খাজা নাজিম উদ্দিন 
০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ০৪:৪৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

শীতের সময়টাতে ব্যাডমিন্টন খেলা বেশি জনপ্রিয়। শরীর ও মনের সুস্থতায় অবশ্য ব্যাডমিন্টন বেশ উপকারী। এক ঘণ্টা ব্যাডমিন্টন খেললে ৪৫০ ক্যালরি পোড়ানো সম্ভব। এ খেলা আপনার গতি বাড়াবে, শরীরটাকে ফিট রাখবে। বুদ্ধিতেও শান পড়বে। গড়ে উঠবে খেলোয়াড়সুলভ মানসিকতা। ব্যাডমিন্টন খেলতে গিয়ে দৌড়ঝাঁপ, ডাইভিং, ক্ষিপ্রতার সঙ্গে কর্কে আঘাত করার বিষয়টি আপনার পেশি ও সন্ধির দক্ষতা বাড়াবে। 

এ ধরনের খেলায় রক্তে খারাপ চর্বির মাত্রা কমে, ভালো চর্বির মাত্রা বাড়ে। রক্তে শর্করার পরিমাণ কমে। ডায়াবেটিসের রোগীরা হাঁটার বদলে ব্যাডমিন্টনও খেলতে পারেন। রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে থাকবে। হৃদরোগের ঝুঁকি কমবে। সুস্থ ব্যক্তি খেলার অভ্যাস গড়ে তুললে পরবর্তী সময়ে তাদের এসব দীর্ঘমেয়াদি রোগ হওয়ার ঝুঁকি কমে। 

এছাড়া এ রকম খেলায় অস্থিসন্ধিগুলো সচল ও সুস্থ থাকবে। হাত-পা, পিঠসহ শরীরের প্রায় সব জায়গার মাংসপেশির জোর বাড়বে এবং এর পাশাপাশি এসব পেশির নমনীয়তা বাড়বে। ব্যাডমিন্টন খেলার অভ্যাস সচল ও কর্মক্ষম থাকার পথে আপনাকে এগিয়ে দেবে। সচল থাকার মাধ্যমে হাড়ের ক্ষয় রোধ হবে। 

ব্যাডমিন্টন খেলায় আপনার দুশ্চিন্তা কমবে। প্রফুল্ল থাকতে পারবেন। সামাজিক যোগাযোগ বাড়বে। শরীরের প্রতিটি কোষে অক্সিজেন যাবে প্রচুর পরিমাণে। এন্ডরফিন নিঃসরণ বাড়বে, যার ফলে শরীরের ব্যথা কম অনুভব করবেন, মানসিক চাপ কমবে এবং ঘুম ভালো হবে। 

লেখক: অধ্যাপক, মেডিসিন বিভাগ, বারডেম হাসপাতাল, ঢাকা।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন