৩১ মার্চ চেন্নাই-ঢাকা ফ্লাইট চালু করছে ইউএস-বাংলা

  যুগান্তর রিপোর্ট ২০ মার্চ ২০১৯, ১৮:০৪ | অনলাইন সংস্করণ

ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স। ছবি: যুগান্তর
ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স। ছবি: যুগান্তর

প্রথমবারের মতো আগামী ৩১ মার্চ থেকে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স ব্যবসা সম্প্রসারণের ধারাবাহিকতায় দক্ষিণ এশিয়ার অন্যতম গন্তব্য ভারতের চেন্নাইতে ফ্লাইট পরিচালনা শুরু করতে যাচ্ছে। এটি বাংলাদেশের আকাশ পরিবহনের ইতিহাসে প্রথম। প্রাথমিকভাবে সপ্তাহে তিন দিন ঢাকা থেকে চেন্নাই রুটে ফ্লাইট পরিচালিত হবে।

আজ বুধবার রাজধানীর হোটেল সোনারগাঁওয়ে সংবাদ সম্মেলনে একথা জানান ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ইমরান আসিফ।

বাংলাদেশের বিমান পরিবহন সেক্টরে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স প্রতিষ্ঠার মাত্র দু’বছরের মধ্যে ঢাকা-কাঠমুন্ডু রুটে ফ্লাইট পরিচালনার মাধ্যমে আন্তর্জাতিক পরিমন্ডলে যাত্রা শুরু করে। বর্তমানে দেশের অভ্যন্তরে সকল বিমানবন্দর ও আন্তর্জাতিক পরিমন্ডলে ঢাকা থেকে সিঙ্গাপুর, কুয়ালালামপুর, ব্যাংকক, গুয়াংজু, মাস্কাট, দোহা ও কলকাতা রুটে ফ্লাইট পরিচালনা করছে।

এছাড়া ইউএস-বাংলা চট্টগ্রাম থেকে মাস্কাট, দোহা ও কলকাতা রুটেও ফ্লাইট পরিচালনা করছে। পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী আগামী ৩১ মার্চ থেকে ঢাকা-চট্টগ্রাম-চেন্নাই রুটে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স ফ্লাইট শুরু করতে যাচ্ছে।

ঢাকা-চেন্নাই রুটে ওয়ানওয়ের জন্য সর্বনিম্ন ভাড়া ১৫ হাজার ৪৩ টাকা এবং রিটার্ন ভাড়া ২২ হাজার ২২৩ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। এছাড়া চট্টগ্রাম-চেন্নাই রুটে ওয়ানওয়ের জন্য সর্বনিম্ন ভাড়া ১৬ হাজার ৪৫ টাকা এবং রিটার্ন ভাড়া ২২ হাজার ২২৫ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।

ভাড়ায় সকল ধরনের ট্যাক্স ও সারচার্জ অন্তর্ভূক্ত। প্রাথমিকভাবে রবি, মঙ্গল, বৃহস্পতিবার ঢাকা থেকে সকাল ৯.১০ মিনিটে এবং চট্টগ্রাম থেকে সকাল ১০.৪৫ মিনিটে চেন্নাই এর উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাবে এবং চেন্নাই এর স্থানীয় সময় দুপুর ১২:৪৫ মিনিটে পৌঁছাবে। এছাড়া চেন্নাই থেকে রবি, মঙ্গল ও বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় দুপুর ১.৩০ মিনিটে চট্টগ্রামের উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসবে এবং বিকাল ৪.৩০ মিনিটে চট্টগ্রাম ও সন্ধ্যা ৬:০০ টায় ঢাকায় পৌঁছাবে।

ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স ঢাকা ও চট্টগ্রাম থেকে কলকাতায় ফ্লাইট পরিচালনা করে আসছে। সকলের প্রত্যাশা অনুযায়ী বাংলাদেশি প্রথম কোনো এয়ারলাইন্স হিসেবে ইউএস-বাংলা ভারতের অন্যতম গন্তব্য চেন্নাইতে ফ্লাইট পরিচালনা শুরু করতে যাচ্ছে। এছাড়া চেন্নাইতে বাংলাদেশী ট্রাভেলারদের ভ্রমণ করার জন্য স্বল্প খরচে আকর্ষণীয় ট্যুর ও মেডিকেল প্যাকেজ ঘোষণা করেছে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স।

চেন্নাই ভারতের তামিলনাড়ু রাজ্যের রাজধানী। চেন্নাই শিল্প ও বাণিজ্যের একটি বড় কেন্দ্র এবং সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য ও মন্দির স্থাপত্যের জন্য বিখ্যাত। চেন্নাই ভারতের মোটরগাড়ি শিল্পের রাজধানী। এখানে ভারতের মোটরগাড়ি শিল্পের প্রায় চল্লিশ শতাংশ ম্পানির ভিত্তি রয়েছে। ভারতে উৎপাদিত গাড়ির একটি প্রধান অংশ এখানে তৈরি হয়। শহরটির পূর্ব উপকূলে রয়েছে ১২ কিলোমিটার দীর্ঘ মেরিনা সমুদ্র-সৈকত, যা পৃথিবীর দীর্ঘতম সমুদ্র-সৈকতগুলোর একটি।

চেন্নাইতে সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালসহ বিশ্বমানের চিকিৎসা সুবিধা রয়েছে। চেন্নাইয়ের গুরুত্বপূর্ণ হাসপাতালগুলি হলো অ্যাপোলো হসপিটালস, অ্যাপোলো স্পেশালিটি হসপিটাল, এসআরএম মেডিকেল কলেজ হসপিটাল অ্যান্ড রিসার্চ সেন্টার, এমআইওটি হাসপাতাল, শ্রী রামচন্দ্র মেডিকেল কলেজ অ্যান্ড রিসার্চ ইনস্টিটিউট, ভাসান স্বাস্থ্যপরিসেবা, ড. মেহতা হাসপাতাল, গ্লোবাল হাসপাতাল ও স্বাস্থ্য সিটি, শঙ্কর নেত্রালয়া ও বিজয়া মেডিকেল এডুকেশনাল ট্রাস্ট।

বর্তমানে ভালো চিকিৎসা ও সাশ্রয়ী সেবার জন্য উচ্চবিত্তদের পাশাপাশি মধ্যবিত্তরাও প্রতিবেশী দেশ ভারতে যাচ্ছেন। কলকাতা ছাড়াও জটিল অপারেশন এর জন্য চেন্নাই বা মাদ্রাজ ক্রমেই বাংলাদেশের জনগণের কাছে নির্ভরশীল হয়ে উঠছে। চেন্নাই থেকেও কম খরচে চিকিৎসা সুবিধা পেতে ১৩৩ কিঃমিঃ দূরত্বে রয়েছে তামিলনাড়ুর জেলা শহর ভেল্লর। এখানে রয়েছে খ্রিস্টান মিশনারীদের অলাভজনক বিখ্যাত হাসপাতাল সিএমসি ও নারায়নী। এখানকার দুটো হাসপাতালের মান ও সেবা আন্তর্জাতিক মানের সে অনুপাতে চিকিৎসা ব্যয় বেশী নয়।

থাইল্যান্ডের মতো ভারতের মেডিক্যাল ট্যুরিজম বিশ্বের মধ্যে সবচেয়ে দ্রুত বর্ধনশীল। প্রতিবছর ১০ থেকে ১২ লাখ লোক ভারতে যায়। এর মধ্যে ২০ শতাংশ চিকিৎসা ভিসা নিয়ে যায়, তবে প্রকৃত অর্থে চিকিৎসার্থে যাওয়া লোকের সংখ্যা আরো বেশি হবে। অন্যরা টুরিস্ট ভিসা নিয়ে ভারত যায়। বিশ্বের অত্যাধুনিক চিকিৎসা সরঞ্জাম থাকায় সেখানকার চিকিৎসাব্যবস্থা অনেক উন্নত এবং একই সঙ্গে সাশ্রয়ী। ইতিমধ্যে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স ও অ্যাপোলো হসপিটাল, চেন্নাইয়ের সঙ্গে একটি দ্বিপাক্ষিক চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে।

ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স চেন্নাইতে প্রতিজনের জন্য ৩৭ হাজার ৯৯০ টাকায় একটি হেলথ প্যাকেজ ঘোষণা করেছে। প্যাকেজ এর মধ্যে ঢাকা-চেন্নাই-ঢাকা রিটার্ন এয়ার টিকেট, দুই জনের জন্য ২ রাত ৩ দিন থাকার ব্যবস্থা রাখা হয়েছে, কমপ্লিমেন্টারি সকালের নাস্তা, ভিসা ইনভাইটেশন লেটার, ফ্রি ডক্টরস অ্যাপয়নমেন্ট, ফ্রি এয়ারপোর্ট পিক-আপসহ অ্যাপোলো মাস্টার হেলথ চেক প্যাকেজ অন্তর্ভূক্ত রয়েছে।

হেলথ প্যাকেজ ছাড়াও পর্যটকদের জন্য নূন্যতম ৩২ হাজার ৪৯০ টাকায় ২ রাত ৩ দিনের হলিডে প্যাকেজ ও ঘোষণা করা হয়েছে। প্যাকেজের মধ্যে ঢাকা-চেন্নাই-ঢাকা রিটার্ন এয়ার টিকেট, দুই জনের জন্য ২ রাত ৩ দিন থাকার ব্যবস্থা রাখা হয়েছে, কমপ্লিমেন্টারি সকালের নাস্তা, ফ্রি এয়ারপোর্ট পিক-আপ অন্তর্ভূক্ত রয়েছে।

প্রসঙ্গত, ১৭ জুলাই ২০১৪ সালে যাত্রা শুরু করে অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক রুটে ৯৮.৭% অন টাইম ফ্লাইট পরিচালনার রেকর্ড বজায় রেখে চলেছে। দুইটি ড্যাশ ৮-কিউ৪০০ এয়ারক্রাফট নিয়ে যাত্রা শুরু করা ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের বিমান বহরে বর্তমানে চারটি বোয়িং ৭৩৭-৮০০ এবং তিনটি ড্যাশ ৮-কিউ৪০০ রয়েছে। খুব শিগগির তিনটি এটিআর ৭২-৬০০ বিমান বহরে যুক্ত হবে।

ঢাকা-চট্টগ্রাম-চেন্নাই রুটে ১৬৪ আসনের বোয়িং ৭৩৭-৮০০ এয়ারক্রাফট দিয়ে ফ্লাইট পরিচালিত হবে। বোয়িং ৭৩৭-৮০০ এয়ারক্রাফটে ৮টি বিজনেস ক্লাস, ১৫৬টি ইকোনমি ক্লাস এর আসন ব্যবস্থা রয়েছে। সপ্তাহে প্রায় ৩৩০টির অধিক অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক রুটে ফ্লাইট পরিচালনা করে থাকে ইউএস-বাংলা। যাত্রা শুরু করার পর সাড়ে চার বছরে প্রায় ৫৮ হাজার ফ্লাইট পরিচালনা করেছে, যা বাংলাদেশে বিমান চলাচলের ইতিহাসে একটি রেকর্ড।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×