আয়কর রিটার্নের সময় বাড়ছে না: এনবিআর চেয়ারম্যান
jugantor
আয়কর রিটার্নের সময় বাড়ছে না: এনবিআর চেয়ারম্যান

  যুগান্তর রিপোর্ট  

২৯ নভেম্বর ২০২০, ১১:৫৭:৫৫  |  অনলাইন সংস্করণ

আবু হেনা

জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) চেয়ারম্যান আবু হেনা মো. রহমাতুল মুনিম বলেছেন, চলতি বছর আয়কর রিটার্ন জমা দেয়ার সময় বাড়ছে না। রিটার্ন জমা দেয়ার শেষ দিন ৩০ নভেম্বরই থাকছে।

রোববার সকাল ১০টায় এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা জানান।

আবু হেনা বলেন, যারা নির্ধারিত সময়ে আয়কর রিটার্ন দিতে পারবেন না, তারা সংশ্লিষ্ট কর অফিসে আবেদন করতে পারবেন। তবে ২ শতাংশজরিমানার বিষয়টি বাধ্যতামূলক নয়।

গ্রাহক সঠিক সময়ে কেন রিটার্ন জমা দিতে পারেননি, তার যৌক্তিক কারণ দেখাতে পারলে জরিমানা মওকুফ করা হবে। কমিশনারের কাছেযদি কারণ যৌক্তিক মনে না হয়, তবে জরিমানা গুনতে হবে, বলেন তিনি।

আয়কর আইন অনুযায়ী উপকর কমিশনার করদাতার আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে রিটার্ন জমা দিতে দুই মাস সময় দিতে পারেন। তবেকরদাতাকে সেই ক্ষেত্রে ২ শতাংশ জরিমানা দিতে হয়।

এনবিআর চেয়ারম্যান জানান, গত বছরের ২৬ নভেম্বরের চেয়ে এ বছরের ২৬ নভেম্বর পর্যন্ত রিটার্ন বেড়েছে ৬৩ হাজার ১৯৯টি। তবে একই সময়ে আয়কর কমেছে ১৯৩ কোটি টাকা।

এ বছর ২৬ নভেম্বর পর্যন্ত দাখিল করা রিটার্নের সংখ্যা ছিল ১৩ লাখ ২০ হাজার ৮২৫। গত বছর একই সময়ে দাখিল করা আয়কর রিটার্নছিল ১২ লাখ ৫৭ হাজার ৬২৬টি। সে হিসাবে রিটার্ন বেড়েছে ৬৩ হাজার ১৯৯টি।

এ বছর ২৬ নভেম্বর পর্যন্ত রিটার্নের সঙ্গে কর পরিশোধ হয়েছে ২ হাজার ৩৮৭ কোটি টাকা। গত বছর একই সময়ে রিটার্নের সঙ্গে কর পরিশোধ হয়েছিল ২ হাজার ৫৮০ কোটি টাকা। সে হিসাবে কর পরিশোধ কমেছে ১৯৩ কোটি টাকা।

আবু হেনা বলেন, আয়কর রিটার্ন আরও কীভাবে সহজ করা যায়, সে কাজ চলছে। এ বছর থেকে এক পাতার রিটার্ন করা হয়েছে, যাতে করদাতা সহজে রিটার্ন দিতে পারেন।

তিনি আরও জানান, করোনা মহামারীর কারণে এ বছর আয়কর দিবসের র্যালি হচ্ছে না। তবে আলোচনাসভা হবে জুমে।

এ বছরের আয়কর দিবসে প্রতিপাদ্য বিষয় হচ্ছে- ‘স্বচ্ছ ও আধুনিক করসেবা প্রদানের মাধ্যমে করদাতাবান্ধব পরিবেশ নিশ্চিতকরণ’।

আয়কর রিটার্নের সময় বাড়ছে না: এনবিআর চেয়ারম্যান

 যুগান্তর রিপোর্ট 
২৯ নভেম্বর ২০২০, ১১:৫৭ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
আবু হেনা
ফাইল ছবি

জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) চেয়ারম্যান আবু হেনা মো. রহমাতুল মুনিম বলেছেন, চলতি বছর আয়কর রিটার্ন জমা দেয়ার সময় বাড়ছে না। রিটার্ন জমা দেয়ার শেষ দিন ৩০ নভেম্বরই থাকছে। 

রোববার সকাল ১০টায় এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা জানান। 

আবু হেনা বলেন, যারা নির্ধারিত সময়ে আয়কর রিটার্ন দিতে পারবেন না, তারা সংশ্লিষ্ট কর অফিসে আবেদন করতে পারবেন। তবে ২ শতাংশ জরিমানার বিষয়টি বাধ্যতামূলক নয়। 

গ্রাহক সঠিক সময়ে কেন রিটার্ন জমা দিতে পারেননি, তার যৌক্তিক কারণ দেখাতে পারলে জরিমানা মওকুফ করা হবে। কমিশনারের কাছে যদি কারণ যৌক্তিক মনে না হয়, তবে জরিমানা গুনতে হবে, বলেন তিনি। 

আয়কর আইন অনুযায়ী উপকর কমিশনার করদাতার আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে রিটার্ন জমা দিতে দুই মাস সময় দিতে পারেন। তবে করদাতাকে সেই ক্ষেত্রে ২ শতাংশ জরিমানা দিতে হয়। 

এনবিআর চেয়ারম্যান জানান, গত বছরের ২৬ নভেম্বরের চেয়ে এ বছরের ২৬ নভেম্বর পর্যন্ত রিটার্ন বেড়েছে ৬৩ হাজার ১৯৯টি। তবে একই সময়ে আয়কর কমেছে ১৯৩ কোটি টাকা। 

এ বছর ২৬ নভেম্বর পর্যন্ত দাখিল করা রিটার্নের সংখ্যা ছিল ১৩ লাখ ২০ হাজার ৮২৫। গত বছর একই সময়ে দাখিল করা আয়কর রিটার্ন ছিল ১২ লাখ ৫৭ হাজার ৬২৬টি। সে হিসাবে রিটার্ন বেড়েছে ৬৩ হাজার ১৯৯টি। 

এ বছর ২৬ নভেম্বর পর্যন্ত রিটার্নের সঙ্গে কর পরিশোধ হয়েছে ২ হাজার ৩৮৭ কোটি টাকা। গত বছর একই সময়ে রিটার্নের সঙ্গে কর পরিশোধ হয়েছিল ২ হাজার ৫৮০ কোটি টাকা। সে হিসাবে কর পরিশোধ কমেছে ১৯৩ কোটি টাকা।

আবু হেনা বলেন, আয়কর রিটার্ন আরও কীভাবে সহজ করা যায়, সে কাজ চলছে। এ বছর থেকে এক পাতার রিটার্ন করা হয়েছে, যাতে করদাতা সহজে রিটার্ন দিতে পারেন।

তিনি আরও জানান, করোনা মহামারীর কারণে এ বছর আয়কর দিবসের র্যালি হচ্ছে না। তবে আলোচনাসভা হবে জুমে। 

এ বছরের আয়কর দিবসে প্রতিপাদ্য বিষয় হচ্ছে- ‘স্বচ্ছ ও আধুনিক করসেবা প্রদানের মাধ্যমে করদাতাবান্ধব পরিবেশ নিশ্চিতকরণ’।