শেয়ারবাজার শক্তিশালী করতে সব সংস্থার সমন্বয় জরুরি
jugantor
বর্ষপূর্তিতে বিএসইসিকে ডিএসইর অভিনন্দন
শেয়ারবাজার শক্তিশালী করতে সব সংস্থার সমন্বয় জরুরি

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

১৮ মে ২০২১, ২১:১১:১২  |  অনলাইন সংস্করণ

শেয়ারবাজারকে শক্তিশালী করতে সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলোর মধ্যে আরও সমন্বয় জরুরি। এক্ষেত্রে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) যেভাবে, সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় এবং কেন্দ্রীয় ব্যাংককে আরও নীতি সহায়তা দিতে হবে।

দায়িত্ব নেয়ার পর বিএসইসির বর্তমান চেয়ারম্যান প্রফেসর শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলামের বর্ষপূতিতে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) পক্ষ থেকে নেয়া অভিনন্দন বার্তায় মঙ্গলবার এসব কথা বলা হয়।

ডিএসইর পরিচালনা পর্ষদের পক্ষে প্রতিষ্ঠানটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (ইনচার্জ) এম সাইফুর রহমান মজুমদার বিএসইসির চেয়ারম্যানের হাতে অভিনন্দন বার্তা তুলে দেন। এ সময় ডিএসইর মহাব্যবস্থাপক মো. ছামিউল ইসলাম এবং উপ-মহাব্যবস্থাপক মো. শফিকুর রহমান উপস্থিত ছিলেন।

অভিনন্দন বার্তায় ডিএসইর চেয়ারম্যান মো. ইউনুসুর রহমান বলেন, বর্তমান কমিশন দায়িত্ব নেয়ার পর প্রজ্ঞা ও মেধা দিয়ে স্বল্পতম সময়ে পুঁজিবাজার উন্নয়ন, নিয়ন্ত্রণ ও বিভিন্ন সংস্কারে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছে। এ সময়ে কমিশনে কিছু উদ্যোগ বিনিয়োগকারী এবং অন্যান্য স্টেকহোল্ডারদের আস্থা বাড়াতে ভুমিকা রেখেছে।
সামগ্রিকভাবে বাজারে এর ইতিবাচক ইতিবাচক প্রভাব পড়েছে। আমরা দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি, এই কমিশনের প্রচেষ্টায় সামনে বাজার আরও টেকসই হবে। প্রাইমারি নিয়ন্ত্রক প্রতিষ্ঠান হিসেবে স্টক এক্সচেঞ্জ দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নের চালিকাশক্তি। আর এই শক্তির বিকাশে সবাইকে কাজ করতে হবে।

ইতিমধ্যে ডিএসই ডিজাস্টার রিকভারি (ডিআর) সুবিধা সম্বলিত বহুল প্রতীক্ষিত ডেটা সেন্টার (ডিসি) প্রতিষ্ঠার কাজ এগিয়ে চলছে। যা বাজারের উন্নয়নে সহায়ক হবে।

তিনি বলেন, কমিশন যে গতিতে আগাচ্ছে, তা বজায় রাখতে প্রয়োজনীয় নীতি সহায়তা জরুরি। এজন্য সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়, কেন্দ্রীয় ব্যাংক এবং অন্যান্য সংস্থার সঙ্গে সমন্বয় নিশ্চিত করে বাজারকে আরও শক্তিশালী করতে হবে।

বর্ষপূর্তিতে বিএসইসিকে ডিএসইর অভিনন্দন

শেয়ারবাজার শক্তিশালী করতে সব সংস্থার সমন্বয় জরুরি

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
১৮ মে ২০২১, ০৯:১১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

শেয়ারবাজারকে শক্তিশালী করতে সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলোর মধ্যে আরও সমন্বয় জরুরি। এক্ষেত্রে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) যেভাবে, সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় এবং কেন্দ্রীয় ব্যাংককে আরও নীতি সহায়তা দিতে হবে। 

দায়িত্ব নেয়ার পর বিএসইসির বর্তমান চেয়ারম্যান প্রফেসর শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলামের বর্ষপূতিতে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) পক্ষ থেকে নেয়া অভিনন্দন বার্তায় মঙ্গলবার এসব কথা বলা হয়। 

ডিএসইর পরিচালনা পর্ষদের পক্ষে প্রতিষ্ঠানটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (ইনচার্জ) এম সাইফুর রহমান মজুমদার বিএসইসির চেয়ারম্যানের হাতে অভিনন্দন বার্তা তুলে দেন। এ সময় ডিএসইর মহাব্যবস্থাপক মো. ছামিউল ইসলাম এবং উপ-মহাব্যবস্থাপক মো. শফিকুর রহমান উপস্থিত ছিলেন। 

অভিনন্দন বার্তায় ডিএসইর চেয়ারম্যান মো. ইউনুসুর রহমান বলেন, বর্তমান কমিশন দায়িত্ব নেয়ার পর প্রজ্ঞা ও মেধা দিয়ে স্বল্পতম সময়ে পুঁজিবাজার উন্নয়ন, নিয়ন্ত্রণ ও বিভিন্ন সংস্কারে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছে। এ সময়ে কমিশনে কিছু উদ্যোগ বিনিয়োগকারী এবং অন্যান্য স্টেকহোল্ডারদের আস্থা বাড়াতে ভুমিকা রেখেছে। 
সামগ্রিকভাবে বাজারে এর ইতিবাচক ইতিবাচক প্রভাব পড়েছে। আমরা দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি, এই কমিশনের প্রচেষ্টায় সামনে বাজার আরও  টেকসই হবে। প্রাইমারি নিয়ন্ত্রক প্রতিষ্ঠান হিসেবে স্টক এক্সচেঞ্জ দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নের চালিকাশক্তি। আর এই শক্তির বিকাশে সবাইকে কাজ করতে হবে। 

ইতিমধ্যে ডিএসই ডিজাস্টার রিকভারি (ডিআর) সুবিধা সম্বলিত বহুল প্রতীক্ষিত ডেটা সেন্টার (ডিসি) প্রতিষ্ঠার কাজ এগিয়ে চলছে। যা বাজারের উন্নয়নে সহায়ক হবে। 

তিনি বলেন, কমিশন যে গতিতে আগাচ্ছে, তা বজায় রাখতে প্রয়োজনীয় নীতি সহায়তা জরুরি। এজন্য সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়, কেন্দ্রীয় ব্যাংক এবং অন্যান্য সংস্থার সঙ্গে সমন্বয় নিশ্চিত করে বাজারকে আরও শক্তিশালী করতে হবে। 
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন