১১২ কোটি অবৈধ টাকা বৈধ হলো ১২ কোটির ‘বিনিময়ে’
jugantor
১১২ কোটি অবৈধ টাকা বৈধ হলো ১২ কোটির ‘বিনিময়ে’

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ১৮:৩৭:৪৩  |  অনলাইন সংস্করণ

১১২ কোটি অবৈধ টাকা বৈধ হলো ১২ কোটির ‘বিনিময়ে’

২০২১-২২ অর্থবছরের প্রথম পাঁচ মাসে (জুলাই থেকে নভেম্বর) অপ্রদর্শিত ১১২ কোটি টাকা (কালো টাকা) বৈধ বা সাদা করা হয়েছে। এই কালো টাকা ১৫০ ব্যক্তির।তারা কর হিসেবে ১২ কোটি টাকার কিছু বেশি সরকারের কোষাগারে জমা দিয়ে টাকাগুলো বৈধ বা সাদা করেছেন।

১১২ কোটি টাকার মধ্যে নগদ, ব্যাংক আমানত, সঞ্চয়পত্র ও অন্যান্য আর্থিক খাতে বিনিয়োগ দেখিয়ে ৯০ কোটি টাকা বৈধ করা হয়েছে। আর বাকি টাকা বৈধ করা হয়েছে আবাসন খাত ও শেয়ার বাজারে বিনিয়োগ দেখিয়ে।

যদিও গত অর্থবছরের একই সময়ে ৫৫০ কোটি টাকা বৈধ করা হয়েছিল।

জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সংশ্লিষ্ট দপ্তর সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

সূত্রের তথ্য অনুযায়ী, চলতি অর্থবছরের প্রথম তিন মাসে ১২২ জন তাদের কালো টাকা বৈধ বা সাদা করেছেন। তার পরের দুই মাসে করেছেন মাত্র ২৮ জন।

এদিকে আগের অর্থবছরে (২০২০-২১) রেকর্ড পরিমাণ প্রায় ২০ হাজার ৬০০ কোটি টাকা (কালো টাকা) বৈধ বা সাদা করা হয়। প্রায় ২ হাজার কোটি টাকা সরকারকে কর দিয়ে প্রায় ১২ হাজার ব্যক্তি তাদের এই অবৈধ টাকাগুলো বৈধ করেন। তাদের মধ্যে রয়েছেন- চিকিৎসক, সরকারি চাকরিজীবী, তৈরি পোশাক রপ্তানিকারক, ব্যাংকের স্পন্সর-ডিরেক্টর, স্বর্ণ ব্যবসায়ী প্রমুখ।

১১২ কোটি অবৈধ টাকা বৈধ হলো ১২ কোটির ‘বিনিময়ে’

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ০৬:৩৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
১১২ কোটি অবৈধ টাকা বৈধ হলো ১২ কোটির ‘বিনিময়ে’
প্রতীকী ছবি

২০২১-২২ অর্থবছরের প্রথম পাঁচ মাসে (জুলাই থেকে নভেম্বর) অপ্রদর্শিত ১১২ কোটি টাকা (কালো টাকা) বৈধ বা সাদা করা হয়েছে। এই কালো টাকা ১৫০ ব্যক্তির।তারা কর হিসেবে ১২ কোটি টাকার কিছু বেশি সরকারের কোষাগারে জমা দিয়ে টাকাগুলো বৈধ বা সাদা করেছেন। 

১১২ কোটি টাকার মধ্যে নগদ, ব্যাংক আমানত, সঞ্চয়পত্র ও অন্যান্য আর্থিক খাতে বিনিয়োগ দেখিয়ে ৯০ কোটি টাকা বৈধ করা হয়েছে। আর বাকি টাকা বৈধ করা হয়েছে আবাসন খাত ও শেয়ার বাজারে বিনিয়োগ দেখিয়ে।

যদিও গত অর্থবছরের একই সময়ে ৫৫০ কোটি টাকা বৈধ করা হয়েছিল।

জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সংশ্লিষ্ট দপ্তর সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

সূত্রের তথ্য অনুযায়ী, চলতি অর্থবছরের প্রথম তিন মাসে ১২২ জন তাদের কালো টাকা বৈধ বা সাদা করেছেন। তার পরের দুই মাসে করেছেন মাত্র ২৮ জন।

এদিকে আগের অর্থবছরে (২০২০-২১) রেকর্ড পরিমাণ প্রায় ২০ হাজার ৬০০ কোটি টাকা (কালো টাকা) বৈধ বা সাদা করা হয়। প্রায় ২ হাজার কোটি টাকা সরকারকে কর দিয়ে প্রায় ১২ হাজার ব্যক্তি তাদের এই অবৈধ টাকাগুলো বৈধ করেন। তাদের মধ্যে রয়েছেন- চিকিৎসক, সরকারি চাকরিজীবী, তৈরি পোশাক রপ্তানিকারক, ব্যাংকের স্পন্সর-ডিরেক্টর, স্বর্ণ ব্যবসায়ী প্রমুখ।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন