বাংলাদেশকে ২০০ কোটি ডলার ঋণ দিচ্ছে এডিবি
jugantor
বাংলাদেশকে ২০০ কোটি ডলার ঋণ দিচ্ছে এডিবি

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

২০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২০:১৪:৪১  |  অনলাইন সংস্করণ

বাংলাদেশকে চলতি অর্থবছরে ২০০ কোটি মার্কিন ডলার (২ বিলিয়ন) ঋণ দিচ্ছে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি। ঋণ দেওয়ার বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন আছে বলে জানিয়েছে সংস্থাটি।

মঙ্গলবার সচিবালয়ে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎকালে এটি জানিয়েছে এডিবির বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর এডিমন গিন্টিং।

ওই বৈঠকে স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণ পরবর্তী চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় আরও সহযোগিতা চাওয়া হয়েছে এডমিন গিন্টিংয়ের কাছে। তবে আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে এবং কোভিড-১৯ ক্ষতিকর প্রভাব উত্তরণে সহায়তার জন্য এডিবির ভূয়সী প্রশংসা করেছেন অর্থমন্ত্রী।

চলতি অর্থবছরে বাজেট সহায়তা এবং চলমান বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পের জন্য এই ঋণ চেয়েছে বাংলাদেশ। ওই প্রস্তাবের বিপরীতে বাংলাদেশকে ২০০ কোটি ডলার ঋণ দিচ্ছে এমনটি আভাস দিয়েছেন এডমিন গিন্টিং। এডিবির বাইরেও অন্যান্য দাতা সংস্থা বিশেষ করে বিশ্বব্যাংক, আইএমএফ ও জাইকার কাছেও ঋণ সহায়তা চাওয়া হয়েছে।

এডিবির কান্ট্রি ডিরেক্টর আগামী ২৬-৩০ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিতব্য সংস্থাটির ৫৫তম বার্ষিক বোর্ড সভায় অংশগ্রহণের জন্য অর্থমন্ত্রীকে অগ্রীম ধন্যবাদ জানান। সামগ্রিকভাবে উন্নয়ন অভীষ্ট অর্জনে ভবিষ্যতে বাংলাদেশ ও এডিবির মধ্যে এ ধরনের সহযোগিতা অব্যাহত রাখার বিষয়ে গুরুত্বারোপ করেন এডমিন গিন্টিং।

প্রসঙ্গত, এডিবি এ যাবত ২ হাজার ৭৫৫ কোটি (২৭.৫৫ বিলিয়ন) মার্কিন ডলারের ঋণ সহায়তা দিয়েছে। বাংলাদেশে উন্নয়ন সহায়তার ক্ষেত্রে এডিবি প্রধানত বিদ্যুৎ, শিক্ষা, পরিবহণ, জ্বালানি, পানি সম্পদ, কৃষি, স্থানীয় সরকার, সুশাসন, আর্থিক এবং বেসরকারি খাতকে প্রাধান্য দিয়ে আসছে।

বাংলাদেশকে ২০০ কোটি ডলার ঋণ দিচ্ছে এডিবি

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
২০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৮:১৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বাংলাদেশকে চলতি অর্থবছরে ২০০ কোটি মার্কিন ডলার (২ বিলিয়ন) ঋণ দিচ্ছে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি। ঋণ দেওয়ার বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন আছে বলে জানিয়েছে সংস্থাটি। 

মঙ্গলবার সচিবালয়ে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎকালে এটি জানিয়েছে এডিবির বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর এডিমন গিন্টিং। 

ওই বৈঠকে স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণ পরবর্তী চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় আরও সহযোগিতা চাওয়া হয়েছে এডমিন গিন্টিংয়ের কাছে। তবে আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে এবং কোভিড-১৯ ক্ষতিকর প্রভাব উত্তরণে সহায়তার জন্য এডিবির ভূয়সী প্রশংসা করেছেন অর্থমন্ত্রী।

চলতি অর্থবছরে বাজেট সহায়তা এবং চলমান বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পের জন্য এই ঋণ চেয়েছে বাংলাদেশ। ওই প্রস্তাবের বিপরীতে বাংলাদেশকে ২০০ কোটি ডলার ঋণ দিচ্ছে এমনটি আভাস দিয়েছেন এডমিন গিন্টিং। এডিবির বাইরেও অন্যান্য দাতা সংস্থা বিশেষ করে বিশ্বব্যাংক, আইএমএফ ও জাইকার কাছেও ঋণ সহায়তা চাওয়া হয়েছে।

এডিবির কান্ট্রি ডিরেক্টর আগামী ২৬-৩০ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিতব্য সংস্থাটির ৫৫তম বার্ষিক বোর্ড সভায় অংশগ্রহণের জন্য অর্থমন্ত্রীকে অগ্রীম ধন্যবাদ জানান। সামগ্রিকভাবে উন্নয়ন অভীষ্ট অর্জনে ভবিষ্যতে বাংলাদেশ ও এডিবির মধ্যে এ ধরনের সহযোগিতা অব্যাহত রাখার বিষয়ে গুরুত্বারোপ করেন এডমিন গিন্টিং। 

প্রসঙ্গত, এডিবি এ যাবত ২ হাজার ৭৫৫ কোটি (২৭.৫৫ বিলিয়ন) মার্কিন ডলারের ঋণ সহায়তা দিয়েছে। বাংলাদেশে উন্নয়ন সহায়তার ক্ষেত্রে এডিবি প্রধানত বিদ্যুৎ, শিক্ষা, পরিবহণ, জ্বালানি, পানি সম্পদ, কৃষি, স্থানীয় সরকার, সুশাসন, আর্থিক এবং বেসরকারি খাতকে প্রাধান্য দিয়ে আসছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন