রোহিঙ্গা শিবির উন্নয়নে বাংলাদেশকে এডিবির ১০ কোটি ডলার অনুদান

  যুগান্তর ডেস্ক ০৬ জুলাই ২০১৮, ১৫:১৩ | অনলাইন সংস্করণ

রোহিঙ্গা
ছবি: রয়টার্স

নিপীড়ন থেকে বাঁচতে মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গা শরণার্থীদের জন্য অবকাঠামো উন্নয়নে বাংলাদেশকে ১০ কোটি ডলার ছাড়ের অনুমোদন দিয়েছে এশিয়া উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি)।

শুক্রবার এ অনুদান দেয়ার কথা জানিয়ে এডিবি বলেছে, একটি সহায়তা প্যাকেজের এই প্রথম অংশ দিয়ে শরণার্থীদের জন্য মৌলিক অবকাঠামো নির্মাণ ও বিভিন্ন সেবার উন্নয়ন করা হবে। খবর রয়টার্সের।

কক্সবাজারে লাখ লাখ রোহিঙ্গা শরণার্থী ব্যবস্থাপনায় বাংলাদেশকে ব্যাপক প্রতিকূলতার মুখোমুখি হতে হচ্ছে।

গত বছরের আগস্টের শেষ দিকে রাখাইনে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর জাতিগত নিধন শুরু হলে সাড়ে সাত লাখেরও বেশি রোহিঙ্গা সীমান্ত পাড়ি দিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছেন।

এডিবির প্রধান তাকিহিকো নাকাও বলেন, প্রকল্পের প্রথম ধাপে খাদ্যাভাব ও অন্যান্য ঝুঁকি কমাতে অবকাঠামোসহ বিভিন্ন সেবার উন্নয়নে কাজে লাগানো হবে।

গত মে মাসে ফিলিপাইনের রাজধানী ম্যানিলায় এডিবির বার্ষিক বৈঠকে ব্যাংকটির কাছে বাংলাদেশ সহায়তা চেয়েছিল।

প্রকল্পের প্রথম পর্যায় বাস্তবায়নে ব্যয় হবে ১২ কোটি ডলার, সময় লাগবে আড়াই বছর। প্রথম কিস্তিতে যে ১০ কোটি ডলার এডিবি দিচ্ছে, তার যোগান দেওয়া হবে তাদের এশীয় উন্নয়ন তহবিল থেকে। আর বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে দেওয়া হবে ২ কোটি ডলার।

মৌলিক খাদ্য মজুদ, বণ্টন কেন্দ্র, হাসপাতাল, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও জরুরি প্রবেশ সুবিধার উন্নয়নে সংশ্লিষ্ট সড়ক সংস্কার করা হবে।

এ ছাড়া ঘূর্ণিঝড় ও মৌসুমি ঝড়প্রবণ অঞ্চলে দুর্যোগ ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা বাড়াতেও এ প্রকল্প কাজ করবে। এ জন্য আশ্রয়কেন্দ্র নির্মাণ, ভূমিধস ঠেকাতে সুরক্ষা ব্যারিয়ার ও পয়োনিষ্কাশন নেটওয়ার্ক তৈরি করা হবে।

এর আগে স্বাস্থ্য, শিক্ষা, পানি, পয়োনিষ্কাশন ও সামাজিক সুরক্ষায় বাংলাদেশকে ৪৮ কোটি ডলার সহায়তা দেয়ার কথা জানিয়েছে বিশ্বব্যাংক।

গত মাসে প্রথম কিস্তিতে চলমান একটি স্বাস্থ্য খাতসহায়ক প্রকল্পের জন্য পাঁচ কোটি ডলার মঞ্জুর করেছে ব্যাংকটির পরিচালনা পর্ষদ।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, কানাডা সরকার ও বিশ্বব্যাংকের আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থা যৌথভাবে রোহিঙ্গাদের স্বাস্থ্য খাতের জন্য এ অনুদান দিচ্ছে।

কক্সবাজারে আশ্রয়কেন্দ্রে থাকা রোহিঙ্গা মা ও শিশুর স্বাস্থ্যসেবা, কিশোর বয়সীদের স্বাস্থ্য ও পুষ্টি সেবা, জন্মনিয়ন্ত্রণ ও প্রজনন স্বাস্থ্যসেবায় এ অর্থ ব্যয় করা হবে।

ঘটনাপ্রবাহ : রোহিঙ্গা বর্বরতা

আরও
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×