আইডিআরএ’র সেমিনারে বক্তারা

সুশাসন প্রতিষ্ঠিত হলে বীমাখাতে আস্থা বাড়বে

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
২০ নভেম্বর ২০২৩, ১০:০২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

দেশের বীমাখাতে সমস্যা দীর্ঘদিনের। বড় সমস্যা গ্রাহকের আস্থা সংকট। ‘করপোরেট গভর্ন্যান্স গাইডলাইন’ মেনে সুশাসন প্রতিষ্ঠা করতে পারলেই গ্রাহকের আস্থা বাড়বে। সোমবার রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে বীমাখাতের নিয়ন্ত্রক সংস্থা ইন্স্যুরেন্স ডেভেলপমেন্ট অ্যান্ড রেগুলেটরি অথোরিটি (আইডিআরএ) আয়োজিত সেমিনারে বক্তারা এসব কথা বলেন। 

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সচিব মোহাম্মদ সলীম উল্লাহ। আইডিআরএ’র চেয়ারম্যান মোহাম্মদ জয়নুল বারীর সভাপতিত্বে সেমিনারে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ইন্স্যুরেন্স ফোরামের প্রেসিডেন্ট বি এম ইউসুফ আলী। সেমিনারের বিষয় ছিল : করপোরেট গভর্ন্যান্স গাইডলাইন। 

শেখ মোহাম্মদ সলীম উল্লাহ বলেন, বীমা এমন এক খাত, যেখানে মানুষের আস্থা প্রয়োজন। এখানে প্রতারণা বা মিথ্যার আশ্রয় নেওয়ার সুযোগ নেই। তিনি বলেন, একাউন্টিংয়ের ভাষায় বীমা হলো- অন গোয়িং কনসার্ন। অর্থাৎ এটি চলবেই। তবে চলার মতো চলতে হবে। তার মতে, স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড বাড়বে। এতে বাড়বে ঝুঁকি। আর ঝুঁকি ব্যবস্থাপনায় বীমার প্রয়োজন। সচিব বলেন, বর্তমানে দেশে ৮১টি বীমা কোম্পানি আছে। সামনে আরও বাড়বে। এখানে চাহিদা আছে, তাই সরবরাহ জরুরি। তবে প্রতারণার আশ্রয় নেওয়ার সুযোগ নেই।

বিএম ইউসুফ আলী বলেন, বীমাখাতে দুর্নীতি-অনিয়মের জন্য মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তারা (সিইও) দায়ী নয়। চাকরির নিরাপত্তা পেলে বীমাখাতে সুশাসন প্রতিষ্ঠায় তারা ভূমিকা রাখতে পারবে। তিনি বলেন, বীমাখাতে উন্নয়ন ও সুশাসন নিশ্চিতে ‘করপোরেট গভর্ন্যান্স গাইডলাইন’ সময়োপযোগী। এটা বাস্তবায়ন হলে এখাতে সুশাসন নিশ্চিত হবে।

তিনি বলেন, কোম্পানির সিইও একজন কর্মচারি। ফলে পর্ষদের বাইরে কিছুই করার সুযোগ নেই। ম্যানেজমেন্টের লোকজন সব সময় সরকার ও নিয়ন্ত্রকসংস্থার বিধি-বিধান মেনে চলার চেষ্টা করে। বিএম ইউসুফ আলী বলেন, দেশের যে কয়টি বড় কোম্পানি ধ্বংস হয়েছে, তার সিংহভাগ দায় পর্ষদের। ম্যানেজমেন্টের লোকজন বোর্ডের নির্দেশনা মেনেছে। সম্প্রতি অনিয়ম-দুর্নীতির জন্য বীমা কোম্পানির পরিচালনা পর্ষদ ভেঙে দেওয়া হয়েছে। তবে শুধু বোর্ড ভাঙাই সমাধান নয়। তিনি বলেন, সিইওদের নেতৃত্বে কোম্পানি পরিচালিত হলে এক টাকাও নষ্ট হবে না।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন