প্রকাশ : ২১ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০:০০ | অাপডেট: ২১ মার্চ, ২০১৭ ০০:৩৮:০৬ প্রিন্ট
ঐতিহাসিক টেস্ট জয়
এই ধারা ধরে রাখতে হবে

টেস্ট ক্রিকেটে বড় দলের বিপক্ষে জয় পাওয়া বাংলাদেশের জন্য এখন আর অসম্ভব কোনো ঘটনা নয়। রোববার শ্রীলংকার বিপক্ষে কলম্বো টেস্ট জয়ের মধ্য দিয়ে এটাই প্রমাণ করল টাইগার বাহিনী। বাংলাদেশ ক্রিকেট দল ইতিমধ্যেই বিশ্ব ক্রিকেটের সব বাঘা বাঘা দলের বিপক্ষে জয় করায়ত্ত করে নিতে সক্ষম হয়েছে। তবে টাইগারদের টেস্ট জয়ের রেকর্ড খুব ভালো নয়- দেশের বাইরে চতুর্থ এবং সব মিলিয়ে নবম টেস্ট জয় এটি, যদিও টেস্ট মর্যাদা পাওয়ার মধ্য দিয়ে দলটি ক্রিকেটের কৌলীন্য অর্জন করেছে সাড়ে ১৬ বছর আগে। সেদিক থেকে শক্তিশালী শ্রীলংকার বিপক্ষে শ্রীলংকারই মাটিতে এ জয়কে অবিস্মরণীয় বলতে হয়। তবে এ বিজয় যে কারণে ইতিহাসে স্থান করে নিয়েছে তা হল এটি ছিল বাংলাদেশের শততম টেস্ট ম্যাচ। উল্লেখ্য, ইতিপূর্বে নিজেদের শততম ওয়ান ডে (ওডিআই) ম্যাচেও জয়ী হয়েছিল বাংলাদেশ।

দেশের টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে কলম্বো টেস্ট জয়কে সবচেয়ে বড় অর্জন হিসেবে দেখা হচ্ছে। এ সাফল্যের মধ্য দিয়ে টাইগাররা জানান দিল- তারা টেস্ট ক্রিকেটেও পিছিয়ে নেই। গত বছর বাংলাদেশ দল ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট জিতেছিল, তবে তা দেশের মাটিতে। সাম্প্রতিক সময়ে নিউজিল্যান্ড ও ভারত সফরে বাংলাদেশ দল প্রত্যাশা অনুযায়ী খেলতে পারেনি। শ্রীলংকার বিপক্ষে নিজেদের শততম টেস্ট ম্যাচে জয়লাভের মধ্য দিয়ে সেই ব্যর্থতা কাটিয়ে ওঠার প্রথম ধাপ অতিক্রম করল টাইগাররা। আশা করা যায় এ জয়ের ফলে তাদের মনোবল আরও বাড়বে।

দলগত সব খেলারই সাফল্য নির্ভর করে টিম স্পিরিটের ওপর। ক্রিকেটেও তা-ই। ব্যাটিং, বোলিং, ফিল্ডিং- এ তিন ক্ষেত্রে ভালো করতে পারলেই সাফল্য হাতের মুঠোয় ধরা দেয়। বর্তমানে টাইগারদের মধ্যে এ তিনের সমন্বয় লক্ষ করা যাচ্ছে, এটি আশার কথা। তবে এ ক্ষেত্রে ধারাবাহিকতা ধরে রাখাটা খুব বেশি জরুরি। সাম্প্রতিক সময়ে এমনও লক্ষ করা গেছে, কোনো টেস্টের প্রথম ইনিংসে খুব ভালো পারফরম্যান্স দেখিয়ে দ্বিতীয় ইনিংসে তারা খুবই খারাপ করেছে। ফলে কাক্সিক্ষত লক্ষ্য অর্জন তথা জয় কাছাকাছি এসেও ফসকে গেছে। ক্রিকেট আনপ্রেডিক্টেবল খেলা। সেক্ষেত্রে এমনটি ঘটতেই পারে। তবে উপর্যুপরি এরকম হলে সে বিষয়ে সতর্ক হওয়া প্রয়োজন। মোট কথা, বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের দুর্বল জায়গাগুলো সঠিকভাবে চিহ্নিত করে সেসব কাটিয়ে ওঠার ব্যবস্থা করতে হবে। তাহলেই সাফল্যের ধারাবাহিকতা ধরে রাখা সম্ভব হবে।

শ্রীলংকায় দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজের প্রথম ম্যাচটিতে বাংলাদেশ প্রত্যাশা অনুযায়ী খেলতে না পারলেও গোটা সিরিজে সার্বিকভাবে টাইগারদের পারফরম্যান্স ভালো ছিল, বলা যায়। সাকিব আল হাসানের ম্যান অব দ্য সিরিজ হওয়াই এর প্রমাণ। এ টেস্ট জয়ের একটি প্রতীকী তাৎপর্যও রয়েছে। শ্রীলংকায় দুই ম্যাচের এ টেস্ট সিরিজটির নাম দেয়া হয়েছে ‘জয় বাংলা কাপ’। আর মার্চ আমাদের স্বাধীনতার মাস। এ মাসে টেস্ট ক্রিকেটে এমন একটি গুরুত্বপূর্ণ জয়ের মধ্য দিয়ে ঘটনাটিকে স্মরণীয় করে রাখল টাইগাররা। এ ঐতিহাসিক টেস্ট জয়ের জন্য অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম, অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান, ম্যান অব দ্য ম্যাচ তামিম ইকবালসহ বাংলাদেশ দলের প্রত্যেক ক্রিকেটার, কর্মকর্তা ও সংশ্লিষ্টদের প্রতি রইল আমাদের অভিনন্দন।


 


আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত