রাতের আঁধারে শাড়ি-লুঙ্গি-মিষ্টি নিয়ে বাড়ি বাড়ি এমপি জগলুল
jugantor
রাতের আঁধারে শাড়ি-লুঙ্গি-মিষ্টি নিয়ে বাড়ি বাড়ি এমপি জগলুল

  সাতক্ষীরা  

১৮ অক্টোবর ২০১৮, ১৮:৩৯:১৬  |  অনলাইন সংস্করণ

রাতের আঁধারে শাড়ি-লুঙ্গি-মিষ্টি নিয়ে বাড়ি বাড়ি এমপি জগলুল
রাতের আঁধারে সনাতন ধর্মাবলম্বী নিম্ন আয়ের মানুষদের মাঝে শাড়ি-লুঙ্গি-মিষ্টি বিতরণ করছেন এমপি জগলুল।

সনাতন ধর্মাবলম্বীদের মহাষ্টমী উপলক্ষে নিম্ন আয়ের মানুষদের শারদীয় শুভেচ্ছা জানাতে রাতের আঁধারে শাড়ি, লুঙ্গি, মিষ্টি ও মুরগি নিয়ে তাদের বাড়িতে হাজির হন সাতক্ষীরা-৪ আসনের সরকারদলীয় সংসদ সদস্য এস এম জগলুল হায়দার।

মঙ্গলবার গভীর রাতে তার নির্বাচনী এলাকার বিভিন্ন গ্রামের অর্ধশতাধিক দরিদ্র মানুষের বাড়িতে যান তিনি। অসহায় মানুষগুলো তাদের বাড়িতে এমপিকে দেখে আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন ও তার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। 

তিনি পরিবারগুলোর খোঁজখবর নেন এবং তাদের সঙ্গে কিছু সময় কাটান। যে কোনো বিপদে-আপদে তাকে যে কোনো সময় সরাসরি ফোন করার অনুরোধ জানান এমপি জগলুল। 

এ সময় এমপি জগলুল বলেন, গত পাঁচ বছর তাদের এবং সব ধর্মীয় অনুষ্ঠান সুষ্ঠুভাবে পালনের জন্য নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছে। তিনি নিজেই এটা তদারকি করেছেন। তাদের সব মন্দির সংস্কার অথবা আধুনিকায়নে পর্যাপ্ত অর্থ বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। 

ধর্ম যার যার, উৎসব সবার এ কথা জানিয়ে তিনি বলেন, শেখ হাসিনার বাংলায়  হিন্দু-মুসলিম-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান সবাই আমরা ভাই-ভাই। আমাদের মধ্যে কোনো ভেদাভেদ নেই। আমরা সবাই মিলে অসাম্প্রদায়িক, উন্নত ও সমৃদ্ধ বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলাদেশ গড়ব।

রাতের আঁধারে শাড়ি-লুঙ্গি-মিষ্টি নিয়ে বাড়ি বাড়ি এমপি জগলুল

 সাতক্ষীরা 
১৮ অক্টোবর ২০১৮, ০৬:৩৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
রাতের আঁধারে শাড়ি-লুঙ্গি-মিষ্টি নিয়ে বাড়ি বাড়ি এমপি জগলুল
রাতের আঁধারে সনাতন ধর্মাবলম্বী নিম্ন আয়ের মানুষদের মাঝে শাড়ি-লুঙ্গি-মিষ্টি বিতরণ করছেন এমপি জগলুল।

সনাতন ধর্মাবলম্বীদের মহাষ্টমী উপলক্ষে নিম্ন আয়ের মানুষদের শারদীয় শুভেচ্ছা জানাতে রাতের আঁধারে শাড়ি, লুঙ্গি, মিষ্টি ও মুরগি নিয়ে তাদের বাড়িতে হাজির হন সাতক্ষীরা-৪ আসনের সরকারদলীয় সংসদ সদস্য এস এম জগলুল হায়দার।

মঙ্গলবার গভীর রাতে তার নির্বাচনী এলাকার বিভিন্ন গ্রামের অর্ধশতাধিক দরিদ্র মানুষের বাড়িতে যান তিনি।অসহায় মানুষগুলো তাদের বাড়িতে এমপিকে দেখে আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন ও তার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

তিনি পরিবারগুলোর খোঁজখবর নেন এবং তাদের সঙ্গে কিছু সময় কাটান। যে কোনো বিপদে-আপদে তাকে যে কোনো সময় সরাসরি ফোন করার অনুরোধ জানান এমপি জগলুল।

এ সময় এমপি জগলুল বলেন, গত পাঁচ বছর তাদের এবং সব ধর্মীয় অনুষ্ঠান সুষ্ঠুভাবে পালনের জন্য নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছে। তিনি নিজেই এটা তদারকি করেছেন। তাদের সব মন্দির সংস্কার অথবা আধুনিকায়নে পর্যাপ্ত অর্থ বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।

ধর্ম যার যার, উৎসব সবার এ কথা জানিয়ে তিনি বলেন, শেখ হাসিনার বাংলায় হিন্দু-মুসলিম-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান সবাই আমরা ভাই-ভাই। আমাদের মধ্যে কোনো ভেদাভেদ নেই। আমরা সবাই মিলে অসাম্প্রদায়িক, উন্নত ও সমৃদ্ধ বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলাদেশ গড়ব।