মনোনয়নপত্র দাখিল করলেন ৪৮ প্রার্থী

রাজশাহীতে নির্বাচন আচরণবিধি ভঙ্গের হিড়িক

  রাজশাহী ব্যুরো ২৮ নভেম্বর ২০১৮, ১৯:৫১ | অনলাইন সংস্করণ

রাজশাহীতে নির্বাচন আচরণবিধি ভঙ্গের হিড়িক

রাজশাহীতে মনোনয়নপত্র দাখিলে আচরণবিধি ভঙ্গের হিড়িক পড়েছে। ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ এবং বিরোধী বিএনপির প্রার্থীরা বিধি ভেঙে বিপুলসংখ্যক কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে উপস্থিত হন।

বুধবার সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত এ দৃশ্য দেখা যায়।

আচরণবিধি ভঙ্গের ব্যাপারে ভ্রুক্ষেপ নেই রিটার্নিং কর্মকর্তা কার্যালয়ের নির্বাচনে দায়িত্বপ্রাপ্ত সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের। বিপুলসংখ্যক নেতাকর্মী ও সমর্থকদের উপস্থিতির বিষয়টি নির্বাচন আচরণবিধির স্পষ্ট লঙ্ঘন বলে তারাও স্বীকার করেছেন।

তবে তারা বলছেন, বিষয়টি প্রার্থীদের আগেই জানানো হয়েছে। কিন্তু প্রার্থীরা সেটি আমলে নেননি।

রাজশাহী রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন বুধবার বিকাল ৫টা পর্যন্ত রাজশাহীর সংসদীয় ছয়টি আসনে ৩৯ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেন।

এর আগে মঙ্গলবার পর্যন্ত মনোনয়নপত্র জমা দেন আরো ৯ প্রার্থী। সব মিলিয়ে ৪৮ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।

আর মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছিলেন ৬৮ জন প্রার্থী। এদের মধ্যে ২০ জন প্রার্থী শেষ মুহূর্তে মনোনয়নপত্র দাখিল করেননি।

রাজশাহী রিটার্নিং কর্মকর্তার দফতরে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন রাজশাহী-৩ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী বর্তমান এমপি আয়েন উদ্দিন। বিপুলসংখ্যক নেতাকর্মী নিয়ে শোডাউন করে নির্বাচন দফতরে হাজির হন তিনি।

দুপুরে রাজশাহী-২ আসনে বিএনপির প্রার্থী দলটির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা মিজানুর রহমান মিনুও মনোনয়নপত্র জমা দেন শোডাউন করেই। মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার আগে কোর্ট শহীদ মিনারে সমাবেশ করেন বিএনপি নেতাকর্মীরা।

নগর বিএনপির সভাপতি মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলের নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত ওই সমাবেশে উপস্থিত থেকে বক্তব্য দেন মিনু।

বুধবার গোদাগাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তার দফতরে মনোনয়নপত্র জমা দেন রাজশাহী-১ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী এমপি ওমর ফারুক চৌধুরী। তিনিও বিপুলসংখ্যক নেতাকর্মী সঙ্গে নিয়ে শোডাউন করে মনোনয়নপত্র জমা দেন।

শোডাউন করে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন রাজশাহী-৬ আসনের এমপি পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম। চারঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার দফতরে মনোনয়নপত্র জমা দেন তিনি।

এর আগে উপজেলা পরিষদের প্রধান ফটক ঘিরে বিশাল পথসভা করেন শাহরিয়ার। তাতে হ্যান্ডমাইকে বক্তব্যও দেন তিনি।

গত ২৬ নভেম্বর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে মনোনয়নপত্র দাখিল করেন রাজশাহী-২ আসনে মহাজোটের প্রার্থী এমপি ফজলে হোসেন বাদশা।

পরদিন ২৭ নভেম্বর বাগমারা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার দফতরে রাজশাহী-৪ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী বর্তমান এমপি ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। এরাও বিধি ভেঙে শোডাউন করে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।

প্রার্থীদের এসব কর্মকাণ্ড নির্বাচন আচরণবিধি ভঙ্গ বলে নিশ্চিত করেছেন রাজশাহীর স্থানীয় সরকার বিভাগের উপপরিচালক ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা পারভেজ রায়হান।

তিনি বলেন, মনোয়নপত্র দাখিলের সময় কোনো ধরনের মিছিল, সমাবেশ, মোটরসাইকেল মিছিল বা শোডাউন করা যাবে না।

এ ধরনের নির্দেশনা প্রত্যেক প্রার্থীকে আগেই জানানো হয়েছে। প্রার্থীরা সেটি মেনে চলারও প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। কিন্তু তারা সেটি মানেননি। বিষয়টি তদন্ত করে বিধি ভঙ্গকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে নির্বাচন কমিশন বলে জানান এ কর্মকর্তা।

ঘটনাপ্রবাহ : আইসিসি বিশ্ব একাদশ

আরও
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×