যুবসমাজ ও নারীদের কথা মাথায় রেখে কাজ করবেন ইমরান

  কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি ১০ ডিসেম্বর ২০১৮, ২২:৪৭ | অনলাইন সংস্করণ

ইমরান এইচ সরকার
ইমরান এইচ সরকার। ছবি: সংগৃহীত

কুড়িগ্রাম-৪ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র ইমরান এইচ সরকার সোমবার দুপুরে জেলা রিটার্নিং অফিসার ও জেলা প্রশাসক সুলতানা পারভীনের কাছ থেকে প্রতীক পেয়েই যোগাযোগ শুরু করেছেন এলাকাবাসীর সঙ্গে।

উন্নয়নের গতির সঙ্গে তাল রেখে মার্কা বেছে নিয়েছেন মোটরগাড়ি। নির্বাচিত হলে কুড়িগ্রাম-৪ আসনের তিনটি উপজেলার নানা সমস্যা ও সম্ভাবনা মাথায় রেখে বিভিন্ন পরিকল্পনা নিয়ে ভোটের ময়দানে ছুটে বেড়াচ্ছেন এ তরুণ নেতা।

রৌমারী, রাজিবপুর ও চিলমারী উপজেলা নিয়ে গঠিত পিছিয়ে পড়া এই এলাকার মানুষের উন্নয়নে তার বেশকিছু ব্যক্তিগত পরিকল্পনা রয়েছে। যুগান্তরকে তিনি জানান, পিছিয়ে পড়া এই অঞ্চলের শতকরা প্রায় ৭২ জন মানুষ নিম্ন আয়ের। বন্যা ও নদীভাঙনে প্রতিবছর শত শত পরিবার এখানে গৃহহীন হয়। নেই কোনো কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা। সে কারণে যুবসমাজের মধ্যে হতাশা ও নানান ধরনের অবক্ষয় লক্ষ করা যাচ্ছে।

ইমরান বলেন, এ যুবসমাজ ও নারীদের কথা মাথায় রেখে কর্মসংস্থানের সুযোগ করা হবে। এ জন্য এই এলাকা ইকোনমিক জোন করে ইন্ডাস্ট্রি ব্যবস্থার ওপর জোর দেন তিনি।

এছাড়াও তিনি বলেন, আমার নির্বাচনী এলাকায় প্রধান লক্ষ্য হলো নদীভাঙনকবলিত পরিবারদের পুনর্বাসিত করার পাশাপাশি নদীশাসনের লক্ষ্যে পূর্বপাড়ে বাঁধ ও ড্রেজিং করা। যাত্রীসাধারণের পারাপারের সুবিধার্তে চিলমারী-রৌমারী-যাদুরচর ও রাজিবপুরে ফেরি চলাচলের ব্যবস্থা করা।

ইমরান বলেন, এর বাইরে আমরা লক্ষ্য করছি ঢাকার সঙ্গে রৌমারীর কোনো রেল যোগাযোগ নেই। আমরা দেওয়ানগঞ্জ থেকে ২৫ কিলোমিটার রেল টেনে আনলেই রৌমারী-রাজিবপুরের মানুষ রেলে ঢাকার সঙ্গে চলাচল করতে পারবে। এছাড়া ঢাকার সঙ্গে সরাসরি চিলমারী ও রৌমারীর রেল যোগাযোগ নেই। এ জন্য আন্তনগর রেল যোগাযোগব্যবস্থার জনদাবিটি পূরণ করা। এতে অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড তরান্বিত হবে।

ইমরান এইচ সরকার বলেন, সেই সঙ্গে ঢাকা-রৌমারী দুর্বিষহ সড়ক যোগাযোগব্যবস্থার উন্নয়ন করা। গ্রামের অনেক রাস্তা বিচ্ছিন্ন হওয়ায় মানুষ হেঁটে যেতে পারে না।গ্রামের সেই সব সড়কের উন্নতিসাধন করা।

এছাড়াও রৌমারীর স্থল ও চিলমারীর নৌবন্দর ভৌগোলিকভাবে খুবই প্রোটেনশিয়াল। এ দুটি বন্দর আন্তর্জাতিক মানের বন্দর হিসেবে পূর্ণাঙ্গভাবে চালু করার ওপর জোর দেন তিনি।

ইমরান বলেন, এর বাইরে বৃহৎ চরাঞ্চলের মানুষের এখন পর্যন্ত শিক্ষা, চিকিৎসা, বাসস্থানসহ বিদ্যুতের ব্যবস্থা নেই। এগুলো যদি আমরা চরাঞ্চলের মানুষের জন্য প্রোভাইড করতে পারি তাহলে এলাকার চিত্র পাল্টে যাবে। এ জন্য চরাঞ্চলের দিকে বিশেষ নজর দেয়া। সর্বোপরি এলাকার বৃহৎ যুবসমাজের জন্য কিছু পরিকল্পনা নেয়া।

এসব তরুণদের কারিগরি প্রশিক্ষণের পাশাপাশি চাহিদামতো বিভিন্ন প্রশিক্ষণের মাধ্যমে যদি বিদেশে পাঠানো যায় তাহলে তারা সমাজের মূল স্ট্রিমে পৌঁছতে পারবে বলে তিনি বিশ্বাস করেন।

এ সময় গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র ইমরান এইচ সরকার এলাকাবাসীর কাছে ভোটের পাশাপাশি তাদের কাছ থেকে দোয়া ও আশীর্বাদ কামনা করেন।

ঘটনাপ্রবাহ : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন

আরও
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×