সিরাজগঞ্জে আ'লীগ-বিএনপি সংঘর্ষ, বিএনপি প্রার্থীর বাড়ি ভাঙচুর

  শাহজাদপুর (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি ১১ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৯:২০:৪১ | অনলাইন সংস্করণ

অগ্নিসংযোগ করা মোটরসাইকেল ও বিএনপি প্রার্থীর বাড়ি। ছবি: যুগান্তর

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির মধ্যে হামলা সংঘর্ষ, ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া, ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় তিনটি মোটরসাইকেলে অগ্নিসংযোগ, বিএনপি প্রার্থী ড. এমএ মুহিতের বাড়ির চেয়ার-টেবিল ও জানালার গ্লাস এবং একটি দোকান ভাঙচুর করা হয়।

মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার পৌর সদরের শক্তিপুর গ্রামে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে ১৫ জন আহত হয়েছে। আহতদের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাৎক্ষণিকভাবে আহতদের নাম জানা যায়নি।

শাহজাদপুর উপজেলা যুবদলের সভাপতি আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ জানায়, এ দিন সকাল সোয়া ১১টার দিকে সে ও তার বড় ভাই শাহজাদপুর উপজেলা বিএনপির সিনিয়র সহসভাপতি জেলা পরিষদ মার্কেটের সামনে (সাবেক বিএনপি অফিস) বসে দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে নির্বাচন নিয়ে আলাপ করছিলেন, এ সময় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের একটি মোটরসাইকেল বহর তাদের সামনে এসে দাঁড়িয়েই তাদের দু'ভাইকে বেধড়ক মারপিট করে।

এর কিছু সময় পরই তারা বিএনপি প্রার্থী ড.এমএ মুহিতের শক্তিপুরের বাড়িতে হামলা চালায়। এ সময় সেখানে উপস্থিত নেতাকর্মীরা তাদেও বাধা দিলে উভয়পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ার ঘটনা ঘটে।

এ ব্যাপারে শাহজাদপুর পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আমিরুল ইসলাম শাহু বলেন, আমাদের একটি মিছিল ওই পথ দিয়ে আসার সময় ড. মুহিতের বাড়ির ভেতর থেকে গালাগালি করে এবং ঢিল ছোড়ে। এতে তারা প্রতিবাদ করে এগিয়ে গেলে তারা হামলা চালায়।

এ ব্যাপারে শাহজাদপুর উপজেলা বিএনপির সহসভাপতি সাবেক পৌর মেয়র নজরুল ইসলাম বলেন, আওয়ামী লীগের লোকজন পূর্বপরিকল্পিতভাবে মোটরসাইকেলের বহর নিয়ে তাদের প্রার্থী মুহিতের বাড়িতে হামলা চালিয়েছে। পাশের কবরস্থানে জানাজার জন্য অপেক্ষমাণ লোকজন তাদের অন্যায়ের প্রতিবাদ করে প্রতিহত করেছে।

তিনি আরও জানান, এদিন সকালে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা নরিনা গ্রামে জামায়াত নেতা সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান জিয়ার মোটরসাইকেল, তালগাছিতে বিএনপি নেতা মজিররের দোকান ভাঙচুর ও এদের দুজনকে মারপিট করে আহত করে।

এ ব্যাপারে শাহজাদপুর থানার ওসি বলেন, খবর পেয়ে আমাদের ফোর্স দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে বড় কোনো অঘটন ছাড়াই পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনেছে। এখন এলাকায় শান্তি বিরাজ করছে। তিনি বলেন, এ ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্তরা মামলা করলে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত