প্রধানমন্ত্রীর অপেক্ষায় কোটালীপাড়াবাসী

  কোটালীপাড়া (গোপালগঞ্জ) প্রতিনিধি ১২ ডিসেম্বর ২০১৮, ০৯:৩৪ | অনলাইন সংস্করণ

প্রধানমন্ত্রীর অপেক্ষায় কোটালীপাড়াবাসী
আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ছবি: সংগৃহীত

আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজ নির্বাচনী এলাকা গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ার জনসভা কেন্দ্র করে নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা সৃষ্টি হয়েছে।

আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অপেক্ষায় রয়েছে কোটালীপাড়াবাসী।

প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানাতে কোটালীপাড়ার বিভিন্ন আসনের নেতাকর্মীরা ছবিসংবলিত পোস্টার, ব্যানার নিয়ে অনুষ্ঠানস্থলে অপেক্ষা করছেন।

বুধবার বেলা আড়াইটায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কোটালীপাড়া উপজেলা সদরের শেখ লুৎফর রহমান আদর্শ সরকারি কলেজ মাঠে নির্বাচনী জনসভায় প্রধান অতিথির ভাষণ দেবেন।

প্রধানমন্ত্রীর আগমন উপলক্ষে তার নিজ নির্বাচনী এলাকা গোপালগঞ্জ-৩ (কোটালীপাড়া-টুঙ্গিপাড়া) আসনে উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে।

নেতাকর্মী, সমর্থক ও সাধারণ মানুষের মধ্যে উৎসাহ-উদ্দীপনা সৃষ্টি হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর জনসভার প্রচার-প্রচারণা নিয়ে কোটালীপাড়া উপজেলা মুখরিত হয়ে উঠেছে। বর্ণিল সাজে কোটালীপাড়াকে সর্জিত করা হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রীর জনসভাকে সফল করতে কোটালীপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগ সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছেন।

এর আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা টুঙ্গিপাড়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদনের মধ্য দিয়ে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রচার শুরু করবেন। তবে কোটালীপাড়া উপজেলার জনসভাটিই তার নির্বাচনী প্রথম জনসভা।

দুপুরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা টুঙ্গিপাড়া পৌঁছে বঙ্গবন্ধুর সমাধিসৌধের বেদিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ, ফাতেহা পাঠ ও দোয়া-মোনাজাতে অংশ নেবেন।

বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় প্রধানমন্ত্রী টুঙ্গিপাড়া থেকে সড়কপথে ঢাকার উদ্দেশে রওনা হবেন।

জেলা পরিষদ সদস্য নজরুল ইসলাম হাজরা মন্নু বলেন, পিছিয়ে পড়া এই জনপদকে আধুনিক কোটালীপাড়া হিসেবে গড়ে তুলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আমাদের কর্মসংস্থানসহ সব ধরনের উন্নয়ন করেছেন। তিনি কোটালীপাড়াবাসীকে প্রাণের চেয়েও বেশি ভালোবাসেন। আমরাও তাকে শ্রদ্ধা করি। তাই তাকে ভোট দিয়ে আবার নির্বাচিত করব। সবাই মিলে জনসভায় অংশ নিয়ে প্রধনমন্ত্রীর দিকনির্দেশনা শুনব।

কোটালীপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এসএম হুমায়ুন কবির বলেন, প্রধানমন্ত্রীর জনসভাস্থল লাখ লাখ মানুষের উপস্থিতিতে মুখরিত হয়ে উঠবে। কোটালীপাড়ার ১১ ইউনিয়ন ও পৌর এলাকা থেকে হাজার হাজার মানুষ বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রাসহ এ জনসভায় অংশ নেবেন।

কোটালীপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা চেয়ারম্যান মুজিবুর রহমান হাওলাদার বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গোপালগঞ্জ- ৩ আসন থেকে ছয়বার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দুর্ভেদ্য এ ঘাঁটি থেকে তিনি বিপুল ভোটে পুনরায় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়ে টানা তিনবার সরকার গঠন করবেন বলে আমরা প্রত্যাশা ব্যক্ত করছি।

উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মতিয়ার রহমান হাজরা বলেন, প্রধানমন্ত্রীর এ জনসভাকে সফল ও সাফল্যমণ্ডিত করতে আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগসহ সব সহযোগী সংগঠনের প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে।

ইউপি চেয়ারম্যান কামরুল ইসলাম বাদল বলেন, শুধু কোটালীপাড়া উপজেলার ১১ ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভাই নয়, এর আশপাশের বিভিন্ন উপজেলা থেকেও এ জনসভায় ব্যাপক লোকসমাগম ঘটবে। এটি যেমন আমাদের প্রিয় নেত্রীর প্রথম নির্বাচনী জনসভা, তেমনই এ জনসভাটি হবে দেশের সর্ববৃহৎ জনসভা।

কোটালীপাড়া থানার ওসি মোহাম্মদ কামরুল ফারুক বলেন, প্রধানমন্ত্রীর কোটালীপাড়া সফর সফল করতে প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী দফায় দফায় সভা করেছে। পাশাপাশি গোয়েন্দা সংস্থার কর্মীরা কাজ করে যাচ্ছেন।

ঘটনাপ্রবাহ : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন

আরও
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×