সিরাজগঞ্জে পুলিশ-বিএনপি সংঘর্ষে এমপি প্রার্থীসহ ৪৪ জন গুলিবিদ্ধ

  সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি ১৪ ডিসেম্বর ২০১৮, ২২:২৭ | অনলাইন সংস্করণ

বিএনপির এমপি প্রার্থী রুমানা মাহমুদ
গুলিবিদ্ধ বিএনপির এমপি প্রার্থী রুমানা মাহমুদ। ছবি: যুগান্তর

সিরাজগঞ্জে পুলিশ-বিএনপির সংঘর্ষে পুলিশের শটগান, গ্যাস সেল ও বিএনপি ইটপাটকেল নিক্ষেপে বিএনপির এমপি প্রার্থী রুমানা মাহমুদসহ উভয়পক্ষের কমপক্ষে ৪৪ জন আহত হয়েছেন।

শুক্রবার সন্ধ্যার পর শহরের ইসলামিয়া কলেজ রোড সংঘর্ষের সূত্রপাত হলে দ্রুত তা পার্শ্ববর্তী এলাকাগুলোতে ছড়িয়ে পড়ে। এ সময় রাস্তায় আগুন জ্বালিয়ে ব্যারিকেড সৃষ্টি করে বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা। আহতের সিরাজগঞ্জ বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেসা মুজির জেনারেল হাসপাতালসহ বিভিন্ন বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

সিরাজগঞ্জ জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সাইদুর রহমান বাচ্চু বলেন, শুক্রবার আমাদের এমপি প্রার্থী ও বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকুর সহধর্মিণী রুমানা মাহমুদ ঢাকা থেকে সিরাজগঞ্জে আসেন নির্বাচনী প্রচারণার জন্য।

সে কারণে সন্ধ্যার পর দলের নেতাকর্মীরা নির্বাচনী প্রচারণার জন্য তার বাসভবনে জড়ো হন। এ সময় আওয়ামী লীগের একটি নির্বাচনী মিছিল বিএনপি অফিসের সামনে দিয়ে যাওয়ার সময় একটি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে চলে যায়। পরে এমপি প্রার্থী রুমানা মামহমুদকে নিয়ে অফিসে যাওয়ার পথে ইসলামিয়া কলেজ রোডে পুলিশ বাধা দেয়। এ সময় উত্তপ্ত পরিস্থিতি সৃষ্টি হলে পুলিশ নির্বিচারে শটগানের গুলি ও গ্যাস সেল নিক্ষেপ করে। এতে রুমানা মাহমুদসহ দলের কমপক্ষে ৪০ নেতাকর্মী আহত হন।

এদের মধ্যে দুই চোখে গুলিবিদ্ধ শহর মহিলা দলের যুগ্ম সম্পাদক মেরীকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রাতেই ঢাকা পাঠানো হয়েছে। অন্য আহতরা স্থানীয় হাসপাতাল ও ক্লিনিকে চিকিৎসা নিতে গেলে পুলিশ ছাত্রদল নেতা ফরিদ, সীমান্তসহ বেশ কয়েকজনকে আটক করে নিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে আওয়ামী লীগের দায়িত্বশীল নেতাদের বক্তব্য নেয়ার জন্য একাধিকবার মোবাইল করা হলেও তারা রিসিভ করেননি।

এদিকে সিরাজগঞ্জ সদর থানার ওসি মোহাম্মদ দাউদ জানান, বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে সদর থানার মোবাইল টিম শহরের ধানবান্ধী এলাকায় টহল দেয়ার সময় বিএনপির কিছু লোকজন অতর্কিত পুলিশের গাড়ি লক্ষ্য করে ইটপাটকেল করে।

এ সময় পুলিশ সদস্যরা গাড়ি থেকে মেনে তাদের নিবৃত্ত করার চেষ্টা করে। কিন্তু তারা আরও মারমুখী হয়ে পুলিশের ওপর হামলা চালায়। এ সময় পুলিশ জানমাল ও সরকারি সম্পদ রক্ষার্থে শটগান ও গ্যাসসেল নিক্ষেপ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। বিএনপির লোকজনের ইটপাটকেলের আঘাতে একজন এসআই ও তিনজন কনস্টেবল আহত হন।

বর্তমানে তারা সিরাজগঞ্জ বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেসা মুজির জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন

ঘটনাপ্রবাহ : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন

আরও
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
×