নাটোরে নির্বাচনের মাঠে রহস্যজনক সংবাদপত্র
jugantor
নাটোরে নির্বাচনের মাঠে রহস্যজনক সংবাদপত্র

  যুগান্তর রিপোর্ট, নাটোর  

১৯ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৯:৩২:০৬  |  অনলাইন সংস্করণ

নাটোর ম্যাপ

নাটোরে জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে ‘প্রিয় নাটোর’ নামে চার পাতার আট পৃষ্ঠার একটি রহস্যজনক রঙিন ট্যাবলয়েড সংবাদপত্র বিলি করা হচ্ছে। উন্নতমানের রোল অফসেট মেশিনে ছাপনো সরকারি ছাড়পত্রবিহীন কাগজটির নামের নিচেই লিখা রয়েছে ‘ছোট কাগজ, বড় খবর’।


দুই টাকা দামের এ কাগজটি বিনামূল্যে হকারদের মাধ্যমে বিভিন্ন জাতীয় ও স্থানীয় দৈনিক পত্রিকার ভেতরে ঢুকিয়ে পাঠকদের কাছে পৌঁছে দেয়া হচ্ছে। পত্রিকার শেষ পৃষ্ঠায় প্রিয় গ্রুপের পক্ষে এর সম্পাদক আবদুল হালিম ও প্রকাশক শরিফুল ইসলাম আকন্দ এ ট্যাবলয়েড পত্রিকাটি আলো প্রিন্টার্স থেকে ছাপানো হয় বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

কাগজটিতে বার্তা, বাণিজ্য ও সম্পাদকীয় কার্যালয়ের ঠিকানা দেয়া হয়েছে নাটোরের বড় হরিশপুর। কিন্তু বড় হরিশপুরে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে নাটোর জেলার কোথাও এমন কোনো পত্রিকার অফিস বা প্রেস নেই। বাস্তবে এর সঙ্গে জড়িতদের ব্যক্তিদেরও কোনো অস্তিত্বই খুঁজে পাওয়া যায়নি।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দু’একজন হকার জানান, প্রতিদিন সকালে বস্তায় করে পত্রিকাটি তাদের কাছে চলে আসে কিন্তু কোথা থেকে কীভাবে আসে তারা কিছুই জানেন না। এতে মূলত নাটোরের চারটি আসনের ঐক্যফ্রন্ট তথা বিএনপি-জামায়াতের বিরুদ্ধে নেতিবাচক এবং আওয়ামী লীগ প্রার্থীদের পক্ষে ইতিবাচক ও সরকারের সব উন্নয়ন কর্মকাণ্ডবিষয়ক বিভিন্ন ধরনের প্রতিবেদন ফলাও করে প্রকাশ করা হচ্ছে।

ওই কাগজের একটি সংখ্যার প্রথম পৃষ্ঠায় ‘লালপুরে মনজুরুল ইসলাম বিমলের গাড়িতে হামলা, সন্দেহের তীর বিএনপির দিকে’ শিরোনামে নাটোর-১ ধানের শীষের প্রার্থীর বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশ হয়।

নাটোর-২ আসনের প্রার্থী বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও নাটোর জেলা বিএনপির সভাপতি অ্যাডভোকেট এম রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলুর ছবি ব্যঙ্গ করে ‘আটকে গেল দুলুর প্রার্থিতা’ শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশ করা হয়।

রহস্যজনক ওই পত্রিকার একটি সংখ্যায় নাটোর-৩ সিংড়া আসনে বিএনপির প্রার্থী দাউদার মাহমুদ সম্পর্কে বেশকিছু অসত্য ও বানোয়াট তথ্যসংবলিত সংবাদ প্রকাশ করার পাশাপাশি প্রতিমন্ত্রী হয়েও আয় বাড়েনি পলকের শিরোনামে আরেকটি সংবাদ প্রকাশ হয়েছে।

এ ব্যাপারে নাটোর-৩ আসনে বিএনপির প্রার্থী ও উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক দাউদার মাহমুদ বলেন, আওয়ামী লীগের কোনো জনপ্রিয়তা নেই, বিএনপির জনপ্রিয়তায় ভীত হয়ে ভোটারদের মধ্যে বিভ্রান্ত ছড়ানোর জন্য তারা এসব করছেন।

বিশিষ্টজনরা মনে করছেন ছাড়পত্রবিহীন এ ধরনের সংবাদপত্রটি নির্বাচনে অহেতুক ঝামেলা সৃষ্টি করছে তাই অবিলম্বে এ ধরনের ভুতুড়ে পত্রিকার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া উচিত।

নাটোরে নির্বাচনের মাঠে রহস্যজনক সংবাদপত্র

 যুগান্তর রিপোর্ট, নাটোর 
১৯ ডিসেম্বর ২০১৮, ০৭:৩২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
নাটোর ম্যাপ
নাটোর ম্যাপ

নাটোরে জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে ‘প্রিয় নাটোর’ নামে চার পাতার আট পৃষ্ঠার একটি রহস্যজনক রঙিন ট্যাবলয়েড সংবাদপত্র বিলি করা হচ্ছে। উন্নতমানের রোল অফসেট মেশিনে ছাপনো সরকারি ছাড়পত্রবিহীন কাগজটির নামের নিচেই লিখা রয়েছে ‘ছোট কাগজ, বড় খবর’।


দুই টাকা দামের এ কাগজটি বিনামূল্যে হকারদের মাধ্যমে বিভিন্ন জাতীয় ও স্থানীয় দৈনিক পত্রিকার ভেতরে ঢুকিয়ে পাঠকদের কাছে পৌঁছে দেয়া হচ্ছে। পত্রিকার শেষ পৃষ্ঠায় প্রিয় গ্রুপের পক্ষে এর সম্পাদক আবদুল হালিম ও প্রকাশক শরিফুল ইসলাম আকন্দ এ ট্যাবলয়েড পত্রিকাটি আলো প্রিন্টার্স থেকে ছাপানো হয় বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

কাগজটিতে বার্তা, বাণিজ্য ও সম্পাদকীয় কার্যালয়ের ঠিকানা দেয়া হয়েছে নাটোরের বড় হরিশপুর। কিন্তু বড় হরিশপুরে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে নাটোর জেলার কোথাও এমন কোনো পত্রিকার অফিস বা প্রেস নেই। বাস্তবে এর সঙ্গে জড়িতদের ব্যক্তিদেরও কোনো অস্তিত্বই খুঁজে পাওয়া যায়নি।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দু’একজন হকার জানান, প্রতিদিন সকালে বস্তায় করে পত্রিকাটি তাদের কাছে চলে আসে কিন্তু কোথা থেকে কীভাবে আসে তারা কিছুই জানেন না। এতে মূলত নাটোরের চারটি আসনের ঐক্যফ্রন্ট তথা বিএনপি-জামায়াতের বিরুদ্ধে নেতিবাচক এবং আওয়ামী লীগ প্রার্থীদের পক্ষে ইতিবাচক ও সরকারের সব উন্নয়ন কর্মকাণ্ডবিষয়ক বিভিন্ন ধরনের প্রতিবেদন ফলাও করে প্রকাশ করা হচ্ছে।

ওই কাগজের একটি সংখ্যার প্রথম পৃষ্ঠায় ‘লালপুরে মনজুরুল ইসলাম বিমলের গাড়িতে হামলা, সন্দেহের তীর বিএনপির দিকে’ শিরোনামে নাটোর-১ ধানের শীষের প্রার্থীর বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশ হয়।

নাটোর-২ আসনের প্রার্থী বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও নাটোর জেলা বিএনপির সভাপতি অ্যাডভোকেট এম রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলুর ছবি ব্যঙ্গ করে ‘আটকে গেল দুলুর প্রার্থিতা’ শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশ করা হয়।

রহস্যজনক ওই পত্রিকার একটি সংখ্যায় নাটোর-৩ সিংড়া আসনে বিএনপির প্রার্থী দাউদার মাহমুদ সম্পর্কে বেশকিছু অসত্য ও বানোয়াট তথ্যসংবলিত সংবাদ প্রকাশ করার পাশাপাশি প্রতিমন্ত্রী হয়েও আয় বাড়েনি পলকের শিরোনামে আরেকটি সংবাদ প্রকাশ হয়েছে।

এ ব্যাপারে নাটোর-৩ আসনে বিএনপির প্রার্থী ও উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক দাউদার মাহমুদ বলেন, আওয়ামী লীগের কোনো জনপ্রিয়তা নেই, বিএনপির জনপ্রিয়তায় ভীত হয়ে ভোটারদের মধ্যে বিভ্রান্ত ছড়ানোর জন্য তারা এসব করছেন।

বিশিষ্টজনরা মনে করছেন ছাড়পত্রবিহীন এ ধরনের সংবাদপত্রটি নির্বাচনে অহেতুক ঝামেলা সৃষ্টি করছে তাই অবিলম্বে এ ধরনের ভুতুড়ে পত্রিকার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া উচিত।