গাজীপুরে বিএনপি প্রার্থীর স্ত্রীর গণসংযোগে হামলা, গাড়ি ভাঙচুর

প্রকাশ : ২১ ডিসেম্বর ২০১৮, ২০:১২ | অনলাইন সংস্করণ

  গাজীপুর প্রতিনিধি

গাজীপুরে বিএনপি প্রার্থীর স্ত্রীর গণসংযোগে হামলায় আহত কয়েকজন। ছবি: যুগান্তর

গাজীপুর-৫ আসনে বিএনপির প্রার্থী কারাবন্দি ফজলুল হক মিলনের স্ত্রী শম্পা হকের গণসংযোগে পুলিশের উপস্থিতিতে হামলা গাড়ি ও ভাঙচুরের অভিযোগ পাওয়া গেছে। হামলায় চার নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। 

শুক্রবার বেলা সাড়ে ১০টার দিকে গাজীপুর মহানগরীর পূবাইলের মাজুখান বাজারের কাছাকাছি এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার পর পুলিশ উল্টো যুবদল ও ছাত্রদলের দুই নেতাকে আটক করে নিয়ে গেছে। 

এ ঘটনায় শম্পা হক ছাত্রলীগ ও যুবলীগ লাঠিসোঁটা নিয়ে ওই হামলা চালায় বলে গাজীপুরের রিটার্নিং অফিসারের কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন। 

শম্পা হক বলেন, ফজলুল হক মিলন পুলিশের দেয়া গায়েবি মামলায় জেলে থাকায় তিনি নেতাকর্মীদের নিয়ে শুক্রবার সকাল থেকে গাজীপুর মহানগরীর পূবাইল থানার হায়দারাবাদ এলাকায় লিফলেট বিতরণের মাধ্যমে প্রচার শুরু করেন। শুরুতেই নানা বাধার সম্মুখীন হন।  মেঘডুবী হয়ে দুপুর ১২টার দিকে মাজুখান বাজারে গণসংযোগে যাওয়ার পথে সামনে থেকে ৩০-৪০ জন পুলিশ আমাদের ব্যারিকেড দেয়।  

এ সময় পেছন থেকে ছাত্রলীগ-যুবলীগের একদল নেতাকর্মী লাঠিসোঁটা নিয়ে হামলা চালিয়ে তারা গাড়ির কাচ ভেঙে ফেলে এবং সঙ্গে থাকা নেতাকর্মীদের পিটিয়ে আহত করে। এতে কালীগঞ্জ থানা মহিলা দলের সভানেত্রী চামেলী হক, পূবাইল থানা যুবদল নেতা সোহেল রানা, পলাশ রানা ও মেহেদী হাসান আহত হন। আহতদের হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। 

এ সময় পুলিশের সাহায্য চেয়েও কোনো প্রকার সহায়তা পাওয়া যায়নি। উল্টো গাড়িতে থাকা যুবদল নেতা আওলাদ হোসেন ও ছাত্রদল নেতা মাসুম সরকারকে পুলিশ আটক করে নিয়ে যায়। 

পরে দুপুরে সম্পা হক গাজীপুর জেলা প্রশাসক ও নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয়ে গিয়ে লিখিত অভিযোগ দাখিল করেন। এ ঘটনায় তিনি জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট দিয়ে তদন্ত করে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানান। 

এ বিষয়ে গাজীপুর জেলা প্রশাসক ও নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার জানান, অভিযোগটি তদন্তের জন্য নির্বাচনের জন্য গঠিত ইলেকটোরাল ইনকোয়ারি কমিটিকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। তদন্তের পরে এ ব্যাপারে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।