রাজশাহী-১: ধানের শীষের পোস্টার কেটে ফেলার অভিযোগ

  রাজশাহী ব্যুরো ২৩ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৭:০৫ | অনলাইন সংস্করণ

ধানের শীষের ছেঁড়া পোস্টার
ধানের শীষের ছেঁড়া পোস্টার

রাজশাহী-১ ( গোদাগাড়ী-তানোর) আসনে খোদ আওয়ামী লীগ প্রার্থী ওমর ফারুক চৌধুরীর নেতৃত্বে প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির প্রার্থী ও দলের ভাইস-চেয়ারম্যান ব্যারিষ্টার আমিনুল হকের ধানের শীষের পোস্টার, ব্যানার ও ফেস্টুন কেটে ফেলাসহ ১৪টি নির্বাচনী অফিস ভাঙচুরের অভিযোগ করা হয়েছে।

ব্যারিস্টার আমিনুল হকের নির্বাচনী এজেন্ট ছাড়াও দলের নেতাকর্মীরা এসব অভিযোগ করেছেন। অভিযোগের প্রতিকার চেয়ে সহকারী রিটার্নিং অফিসার ও গোদাগাড়ী উপজেলা নির্বাহী অফিসার ছাড়াও থানার ওসিকে লিখিতভাবে অভিযোগ দিয়েছেন প্রার্থী নিজে।

এদিকে বিএনপি প্রার্থী রোববার দুপুরে রাজশাহীতে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলন করেও একই অভিযোগ করেছেন।

অভিযোগে ব্যারিস্টার আমিনুল হক বলেন, তিনি প্রতিনিয়ত গোদাগাড়ী ও তানোরে প্রচারাভিযানে গিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ও তার নেতাকর্মীদের দ্বারা প্রতিবন্ধকতার মধ্যে পড়ছেন। নির্বাচনী এলাকার সর্বত্রই ধানের শীষের পোস্টার, ব্যানার ও ফেস্টুন কেটে ফেলার পাশাপাশি নির্বাচনী অফিসে হামলা করে ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করা হচ্ছে। এতে নেতাকর্মীদের মাঝে ভীতিকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে।

প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ও তার সমর্থকদের এসব কর্মকাণ্ড সুষ্পষ্টভাবে নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন হলেও নির্বাচনী পরিবেশ দেখভালের দায়িত্বে নিয়োজিত রিটার্নিং অফিসার ও পুলিশ কোনো প্রতিকার করছেন না বলে অভিযোগ করেন ব্যারিষ্টার আমিনুল হক।

অভিযোগে আরও বলা হয়, বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার দিনগত রাতে নৌকা প্রতীকের কর্মী-সমর্থকরা গোদাগাড়ীর ভাটোপাড়া ফুলতলা, বড়গাছি, সাহাব্দীপুর, কদমহাজির মোড়, কাদিপুর, গোপালপুর, ঈদগাহ মোড়, পিরিজপুর, হরিসংকরপুর ব্রীজ মোড়, বিদিরপুর হাট,বাইপাস মোড়, চরআষাড়িয়াদহ, রাজাবাড়ীহাটসহ অর্ধশতাধিক এলাকায় ধানের শীষের পোস্টার, ব্যানার ও ফেষ্টুন কেটে ফেলেছেন। একই সঙ্গে এসব এলাকায় থাকা ধানের শীষের ৬টি নির্বাচনী অফিস ভাঙচুর করা হয়েছে। রাতে বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোটারদের হুমকি দেয়া হচ্ছে।

এদিকে গোদাগাড়ী পৌর যুবদলের সভাপতি মাহবুবুর রহমান বিপ্লবসহ বিএনপি নেতাকর্মীরা অভিযোগে আরও জানান, শনিবার বিকাল ৪টা থেকে আওয়ামী লীগ প্রার্থী ওমর ফারুক চৌধুরীর নেতৃত্বে পৌরসভার সুলতানগঞ্জ থেকে গণসংযোগ শুরু হয়। এই সময়ে নৌকা প্রতীকের সমর্থক একদল নেতাকর্মী অস্ত্র ও লাঠি হাতে ফারুক চৌধুরীর পেছনে পেছনে প্রদক্ষিণকালে পৌরসভার বিভিন্ন মহল্লায় থাকা ধানের শীষের পোস্টার ব্যানার ও ফেস্টুন কাটতে কাটতে যায়। পথে পথে পাওয়া বিএনপির নির্বাচনী অফিসগুলিও ভাঙচুর করা হয়। নৌকা প্রতীকের সমর্থকরা এলাকাবাসীকে ভয়ভীতিও প্রদর্শন করেন। গোদাগাড়ী পৌরসভার মাদারপুর মহল্লার নারী ভোটারদের হুমকি দেয়া হয়েছে।

এসব অভিযোগের বিষয়ে জানতে রাজশাহী-১ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ওমর ফারুক চৌধুরীর মোবাইল ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তিনি ফোন ধরে কথা বলেননি।

তবে অভিযোগ সম্পর্কে গোদাগাড়ী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবদুর রশিদ বলেন, এসব অভিযোগ সম্পুর্ণ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। বিএনপি প্রার্থী ভোটারদের সহানুভুতি পেতে পরিকল্পিতভাবে আওয়ামী লীগ প্রার্থীর বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালাচ্ছেন। নির্বাচনী এলাকার কোথাও ধানের শীষের পোস্টার ব্যানার ও ফেস্টুন কাটা হয়নি ও নির্বাচনী অফিস ভাঙচুর হয়নি বলে দাবি রশিদের।

ঘটনাপ্রবাহ : রাজশাহী-১: জাতীয় সংসদ নির্বাচন

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×