আমরা বর্তমানে দেশের ৩ নম্বর দল: চরমোনাই পীর
jugantor
আমরা বর্তমানে দেশের ৩ নম্বর দল: চরমোনাই পীর

  বোরহানউদ্দিন প্রতিনিধি  

২৪ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৯:২৬:০৩  |  অনলাইন সংস্করণ

চরমোনাই পীর

মুফতি সৈয়দ মো. রেজাউল করিম পীর সাহেব চরমোনাই বলেছেন, ইসলামী শাসনতন্ত্র দলকে এখন আর ছোট করে দেখার কোনো সুযোগ নেই, আমরা বর্তমানে বাংলাদেশের তিন নম্বর দল, আসন্ন একাদশ সংসদ নির্বাচনে আমরা ৩০০ আসনে প্রার্থী দিয়েছি।

সোমবার বিকালে ভোলা-২ আসনের (বোরহানউদ্দিন ও দৌলখান) পৃথক নির্বাচনী জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, আমাদের দলের সব প্রার্থী সবাই ইসলাম ধর্মে সুশিক্ষিত, বাংলার জনগণ আওয়ামী লীগ-বিএনপি-জাতীয় পার্টিকে বারবার ভোট দিয়ে নির্বাচিত করেছেন, তারা দেশের কোনো উন্নতি করতে পারেননি। আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এলে বিএনপির লোকজনকে জেলে পাঠায় আবার বিএপি ক্ষমতায় এলে আওয়ামী লীগের লোকজনকে জেলে পাঠায়।

চরমোনাই পীর বলেন, দুই দলের রেষারেষিতে দেশে খুন সন্ত্রাস বেড়ে দিনের পরদিন হাজার হাজার মায়ের কোল খালি হচ্ছে। আওয়ামী লীগ-বিএনপি-জাতীয় পার্টি যে দলই ক্ষমতায় এসেছেন তারা বারবার দুর্নীতিতে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে।

তিনি বলেন, ইসলামী শাসনতন্ত্র খুন সন্ত্রাস ও দুর্নীতির রাজনীতি করেন না, আমাদের রাজনীতি হচ্ছে ইসলামকে প্রতিষ্ঠা করে দেশে সুশাসন প্রতিষ্ঠা করে দেশের উন্নতিসাধন করা। আপনারা নৌকা-ধানের-লাঙ্গলে ভোট না দিয়ে ইসলামী শাসনতন্ত্রের ‘হাতপাখা’ মার্কায় ভোট দিন। দেশে সুদিন ফিরে আসবে।

এর আগে ভোলা-২ আসনের ইসলামী শাসনতন্ত্রের হাতপাখা প্রর্তীকের প্রার্থী মো. ওবায়েদুর রহমান বিন মোস্তফা বলেন, এ আসনে আওয়ামী লীগ বিএনপি নির্বাচিত হয়ে এলাকার কোনো উন্নয়ন করতে পারেনি। হাতপাখা মার্কায় ভোট দিয়ে আমাকে নির্বাচিত করলে গ্যাসভিত্তিক কলকারখানা গড়ে তোলা হবে। কোনো শিক্ষিত লোক বেকার থাকবে না।

জনসভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, ভোলা-১ আসনে হাতপাখা মার্কা প্রার্থী মো. ইয়াসিন নবীপুরী, মাও. মিজানুর রহমান, সাবেক ছাত্র নেতা তাজউদ্দিন ফারুকী, মাও. সোয়াইব, বোরহানউদ্দিন ইসলামী শাসনতন্ত্রের সভাপতি আ. আল নোমান, সম্পাদক মাহামুদুল হাসান ও মো. তায়েজউদ্দিন ফারুকী প্রমুখ।

আমরা বর্তমানে দেশের ৩ নম্বর দল: চরমোনাই পীর

 বোরহানউদ্দিন প্রতিনিধি 
২৪ ডিসেম্বর ২০১৮, ০৭:২৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
চরমোনাই পীর
ভোলা-২ আসনে বক্তব্য রাখছেন মুফতি সৈয়দ মো. রেজাউল করিম পীর সাহেব চরমোনাই। ছবি: যুগান্তর

মুফতি সৈয়দ মো. রেজাউল করিম পীর সাহেব চরমোনাই বলেছেন, ইসলামী শাসনতন্ত্র দলকে এখন আর ছোট করে দেখার কোনো সুযোগ নেই, আমরা বর্তমানে বাংলাদেশের তিন নম্বর দল, আসন্ন একাদশ সংসদ নির্বাচনে আমরা ৩০০ আসনে প্রার্থী দিয়েছি। 

সোমবার বিকালে ভোলা-২ আসনের (বোরহানউদ্দিন ও দৌলখান) পৃথক নির্বাচনী জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। 

তিনি বলেন, আমাদের দলের সব প্রার্থী সবাই ইসলাম ধর্মে সুশিক্ষিত, বাংলার জনগণ আওয়ামী লীগ-বিএনপি-জাতীয় পার্টিকে বারবার ভোট দিয়ে নির্বাচিত করেছেন, তারা দেশের কোনো উন্নতি করতে পারেননি। আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এলে বিএনপির লোকজনকে জেলে পাঠায় আবার বিএপি ক্ষমতায় এলে আওয়ামী লীগের লোকজনকে জেলে পাঠায়। 

চরমোনাই পীর বলেন, দুই দলের রেষারেষিতে দেশে খুন সন্ত্রাস বেড়ে দিনের পরদিন হাজার হাজার মায়ের কোল খালি হচ্ছে। আওয়ামী লীগ-বিএনপি-জাতীয় পার্টি যে দলই ক্ষমতায় এসেছেন তারা বারবার দুর্নীতিতে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে।  

তিনি বলেন, ইসলামী শাসনতন্ত্র খুন সন্ত্রাস ও দুর্নীতির রাজনীতি করেন না, আমাদের রাজনীতি হচ্ছে ইসলামকে প্রতিষ্ঠা করে দেশে সুশাসন প্রতিষ্ঠা করে দেশের উন্নতিসাধন করা। আপনারা নৌকা-ধানের-লাঙ্গলে ভোট না দিয়ে ইসলামী শাসনতন্ত্রের ‘হাতপাখা’ মার্কায় ভোট দিন। দেশে সুদিন ফিরে আসবে। 

এর আগে ভোলা-২ আসনের ইসলামী শাসনতন্ত্রের হাতপাখা প্রর্তীকের প্রার্থী মো. ওবায়েদুর রহমান বিন মোস্তফা বলেন, এ আসনে আওয়ামী লীগ বিএনপি নির্বাচিত হয়ে এলাকার কোনো উন্নয়ন করতে পারেনি। হাতপাখা মার্কায় ভোট দিয়ে আমাকে নির্বাচিত করলে গ্যাসভিত্তিক কলকারখানা গড়ে তোলা হবে। কোনো শিক্ষিত লোক বেকার থাকবে না। 

জনসভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, ভোলা-১ আসনে হাতপাখা মার্কা প্রার্থী মো. ইয়াসিন নবীপুরী, মাও. মিজানুর রহমান, সাবেক ছাত্র নেতা তাজউদ্দিন ফারুকী, মাও. সোয়াইব, বোরহানউদ্দিন ইসলামী শাসনতন্ত্রের সভাপতি আ. আল নোমান, সম্পাদক মাহামুদুল হাসান ও মো. তায়েজউদ্দিন ফারুকী প্রমুখ।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন