স্বাধীনতা দিবসে ‘ভুলো না আমায়’

  যুগান্তর ডেস্ক    ২২ মার্চ ২০১৯, ২১:০১ | অনলাইন সংস্করণ

‘ভুলো না আমায়’ নাটকের একটি দৃশ্য
‘ভুলো না আমায়’ নাটকের একটি দৃশ্য। ছবি-সংগৃহীত

১৯৭১ সালের প্রেক্ষাপট। মরিয়মের নতুন বিয়ে হয়েছে। স্বামী মুক্তিযুদ্ধে যোগ দেন। স্বামীর জন্য রুমালে নকশা আঁকা, আচার বানানো আর অপেক্ষা করে করে সময় কাটে মরিয়মের। ময়মুনা বুড়ির কাছে খবর পেলেই পাশের গ্রামে ছুটে যায় কালাম ভাইয়ের সঙ্গে দেখা করতে।

কালাম ভাইও যুদ্ধে যোগ দিয়েছে। সে মাঝে মাঝে মরিয়মের স্বামীর খোঁজখবর দেয়। গোপনে অসুস্থ মাকে দেখতে আসে কালাম। তবে কয়েক দিন হলো গ্রামে হানাদার প্রবেশ করেছে। রাতে শুয়ে শুয়ে স্বামীকে নিয়ে খারাপ স্বপ্ন দেখেন মরিয়ম।

গ্রামের নারীরা মরিয়মের স্বামীর প্রতি ভালোবাসা নেই বলে কুৎসা রটায়। এমন অবস্থায় একদিন গভীর রাতে দরজায় ঠকঠক আওয়াজ। কালাম ভাই এসেছে। কালামের কাছে স্বামীর গল্প শুনতে ব্যাকুল মরিয়ম। মরিয়মের ব্যাকুলতা দেখে কালাম কিছু একটা বলতে চেয়েও বলতে পারে না।

সব কিছু উপেক্ষা করে মরিয়ম শুধু ভালোবাসার কথা, অনেক অপেক্ষার কথা, স্বামীর বীরত্বের কথাই বলতে থাকেন। স্বাধীন দেশে সুখে বসবাসের আশায় বিভোর সে। আবারও দরজায় ঠকঠক আওয়াজ। বিপদ বুঝতে পেরে পেছনের দরজা দিয়ে পালায় কালাম। কালাম চলে গেলেও ফেলে রেখে যায় একটি পোঁটলা ও স্টেনগান। এরপরও স্বামীর জন্য রুমালে নকশা চলতে থাকে।

এমন গল্প নিয়ে নির্মিত হয়েছে স্বাধীনতা দিবসের বিশেষ নাটক ‘ভুলো না আমায়’। মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক এই নাটকটি রচনা করেছেন ড. সাইফুল জাহিদ এবং পরিচালনা করেছেন অঞ্জন আইচ।

এতে অভিনয় করেছেন মনোজ, প্রভা, দিলারা জামান, মাহবুব শাহীন, পাভেল ইসলামসহ আরও অনেকে। ‘ভুলো না আমায়’ নাটকটি আগামী ২৬ মার্চ রাত ৯টায় এনটিভিতে প্রচারিত হবে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×