ডিভোর্স ও নাজিয়াকে নিয়ে যা বললেন অপূর্ব

  যুগান্তর রিপোর্ট ১৮ মে ২০২০, ১৫:২০:৩২ | অনলাইন সংস্করণ

দ্বিতীয় সংসারও টিকল না জনপ্রিয় টিভি অভিনেতা জিয়াউল ফারুক অপূর্বর। স্ত্রী নাজিয়া হাসান অদিতির সঙ্গে বিচ্ছেদ হওয়ায় তাদের ৯বছরের দাম্পত্য জীবনের ইতি ঘটল।

রোববার বিকালে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সংসার ভাঙার খবর নাজিয়া নিজেই নিশ্চিত করেন।

এরপর গণমাধ্যমে খবর প্রকাশ হলে রাত ৮টা ২৪ মিনিটে আবার ফেসবুকে নিজের অবস্থান জানান নাজিয়া। সেখানে তিনি অপূর্বের প্রশংসাকরে তাকে দোষারোপ না করার জন্য ভক্তদের অনুরোধ জানান। অপূর্বের প্রতি কোনো অভিযোগও নেই বলে উল্লেখ করেন তিনি।

নাজিয়ার ওই স্ট্যাটাসের ৪ ঘণ্টা পর রাত ১১টা ৪২ মিনিটে অপূর্বও ফেসবুকে একই ধরনের একটি স্ট্যাটাস দেন।

সেখানে নাজিয়ার মতোই অপূর্বও তার সাবেক স্ত্রীর প্রশংসা করেন। শুধু তাই নয়, তার অনেক সাফল্যের পেছনে নাজিয়া মূল ভূমিকা পালনকরেছে উল্লেখ করেন এই অভিনেতা।

অপূর্বের স্ট্যাটাসটি পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো-

‘বেদনার সঙ্গে আমি সবাইকে জানাচ্ছি যে, নাজিয়া হাসান অদিতির সঙ্গে আমার ৯ বছরের দুর্দান্ত যাত্রাটি অপ্রত্যাশিতভাবে থেমে গেল। আমরাএমনটা চাইনি। তবে আমাদের জীবন এখানে আমাদের এনে দাঁড় করিয়েছে।

এত বছর যাবত আমরা একসঙ্গে ছিলাম। সে সর্বদা দুর্দান্ত একজন সঙ্গী এবং সত্যিকারের শুভাকাঙ্ক্ষী ছিলেন। আমার অনেক সাফল্যেরপেছনে মূল ভূমিকা পালন করেছে অদিতি। সে এক আশ্চর্য ব্যক্তি, একজন আত্মবিশ্বাসী উদ্যোক্তা এবং সর্বোপরি অত্যন্ত দয়ালু এবং মানবিকব্যক্তি।

যদিও আমি আমার ক্যারিয়ারে অনেক অর্জন করেছি, তবুও আমার সর্বকালের সবচেয়ে বড় অর্জন আমাদের ছেলে আয়াশ। পিতৃত্বের এইদুর্দান্ত উপহারের জন্য আমি নাজিয়ার কাছে কৃতজ্ঞ। সে একজন অনুকরণীয় মা।

আমি বুঝতে পারি যে বিয়ের মতো সম্পর্ক ভাঙার পর অনেক প্রশ্ন উঠে। তবে আমি আমার বন্ধুবান্ধব, আমার সহকর্মীদের এবং আমার লাখলাখ ভক্তদের অনুরোধ করছি যে, দয়া করে আমাদের জায়গা থেকে ভাবুন। সবাই জেনে রাখুন আমাদের পক্ষে এটিই সর্বোত্তম সিদ্ধান্ত হয়েছে।এই সিদ্ধান্তে আমাদের উভয়ের পরিবার সহায়ক ছিল।

আমি আশা করি সবার সমর্থন পাব আমরা দুজনে। যেন জীবনের এই পরীক্ষারসময়গুলো পার করতে পারি।

দয়া করে আমাকে, নাজিয়াকে ও আমাদের পুত্রকে আপনার প্রার্থনায় রাখবেন। সবাইকে ধন্যবাদ এবং আল্লাহ আমাদের সবাইকে মঙ্গল করুন।’

প্রসঙ্গত ২০১০ সালের ১৯ আগস্ট মাসে অভিনেত্রী সাদিয়া জাহান প্রভাকে বিয়ে করেন অপূর্ব। যদিও এর পরের বছরের ফেব্রুয়ারিতেই ডিভোর্স হয় তাদের। এরপর ওই বছরের ১৪ জুলাই পারিবারিকভাবে নাজিয়া হাসান অদিতিকে বিয়ে করেন অপূর্ব।

 

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত