প্রাচ্যনাটের উৎসবে ‘হান্ড্রেড বাই হান্ড্রেড’
jugantor
প্রাচ্যনাটের উৎসবে ‘হান্ড্রেড বাই হান্ড্রেড’

  বিনোদন ডেস্ক  

১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ২০:২১:৩১  |  অনলাইন সংস্করণ

স্বাস্থ্যবিধি মেনে প্রাচ্যনাট আয়োজন করেছে উঠান নাটকের। ‘অবসাদ বিরুদ্ধ স্রোত’- এ স্লোগান নিয়ে মাসব্যাপী এ আয়োজন অনুষ্ঠিত হচ্ছে রাজধানীর কাঁটাবনে প্রাচ্যনাটের নিজস্ব মহড়া কক্ষে।

১৮ সেপ্টেম্বর এ উৎসবে মঞ্চায়িত হবে নাটক ‘হান্ড্রেড বাই হান্ড্রেড’। নাটকটি রচনা ও নির্দেশনা দিয়েছেন সাইফুল জার্নাল।

নাটকের গল্পে দেখা যাবে- সাজু একটি পোশাক কারখানায় কাজ করে। এক অচেনা ভাইরাসের ভয়ে সারা দেশ যখন বন্ধ হয়ে যায়, থমকে যায়, শহর হয়ে যায় গ্রামমুখী, বেকার সাজুও তখন ফিরে যায় নিজ গ্রামে। একটু স্বস্তির নিঃশ্বাস নেয় ঘরে ফিরে। সময় কাটায় নতুন বৌয়ের সঙ্গে। কিন্তু আতঙ্ক কাটে না। এক অচেনা শত্রুর ভয়ে সবাই থেমে যায়। বাতাসে ভেসে বেড়ানো শত্রুর সঙ্গে যুদ্ধ করার তরিকা কারো জানা নাই। এসব বিষয় নিয়েই তৈরি করা হয়েছে নাটকটির গল্প।

নাটকটির বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন তানজিকুন, ফয়সল কবির সাদি, আরিফুল ইসলাম রুবেল, ফয়সল ইবনে মিজান, সৌন্দর্য প্রিয়দর্শিনী প্রমুখ।

নাটক প্রসঙ্গে নির্দেশক বলেন, আমরা একটা সহজ গল্প বলতে চেয়েছি। আমরা দেখাতে চেয়েছি অনেক ক্ষমতাধর মানুষের কাছে সাধারণ মানুষেরা কিভাবে অসহায় হয়ে পড়ে, আমরা বোঝাতে চেয়েছি সংকটে মানবতা কর্পূরের মতো কেন উড়ে যায়। আসলেই কি আমরা নিজেরা নিজেদের চালাই নাকি চালিত হই কিংবা চলতে বাধ্য হই?

প্রাচ্যনাটের উৎসবে ‘হান্ড্রেড বাই হান্ড্রেড’

 বিনোদন ডেস্ক 
১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৮:২১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

স্বাস্থ্যবিধি মেনে প্রাচ্যনাট আয়োজন করেছে উঠান নাটকের। ‘অবসাদ বিরুদ্ধ স্রোত’- এ স্লোগান নিয়ে মাসব্যাপী এ আয়োজন অনুষ্ঠিত হচ্ছে রাজধানীর কাঁটাবনে প্রাচ্যনাটের নিজস্ব মহড়া কক্ষে।

১৮ সেপ্টেম্বর এ উৎসবে মঞ্চায়িত হবে নাটক ‘হান্ড্রেড বাই হান্ড্রেড’। নাটকটি রচনা ও নির্দেশনা দিয়েছেন সাইফুল জার্নাল।

নাটকের গল্পে দেখা যাবে- সাজু একটি পোশাক কারখানায় কাজ করে। এক অচেনা ভাইরাসের ভয়ে সারা দেশ যখন বন্ধ হয়ে যায়, থমকে যায়, শহর হয়ে যায় গ্রামমুখী, বেকার সাজুও তখন ফিরে যায় নিজ গ্রামে। একটু স্বস্তির নিঃশ্বাস নেয় ঘরে ফিরে। সময় কাটায় নতুন বৌয়ের সঙ্গে। কিন্তু আতঙ্ক কাটে না। এক অচেনা শত্রুর ভয়ে সবাই থেমে যায়। বাতাসে ভেসে বেড়ানো শত্রুর সঙ্গে যুদ্ধ করার তরিকা কারো জানা নাই। এসব বিষয় নিয়েই তৈরি করা হয়েছে নাটকটির গল্প।

নাটকটির বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন তানজিকুন, ফয়সল কবির সাদি, আরিফুল ইসলাম রুবেল, ফয়সল ইবনে মিজান, সৌন্দর্য প্রিয়দর্শিনী প্রমুখ।

নাটক প্রসঙ্গে নির্দেশক বলেন, আমরা একটা সহজ গল্প বলতে চেয়েছি। আমরা দেখাতে চেয়েছি অনেক ক্ষমতাধর মানুষের কাছে সাধারণ মানুষেরা কিভাবে অসহায় হয়ে পড়ে, আমরা বোঝাতে চেয়েছি সংকটে মানবতা কর্পূরের মতো কেন উড়ে যায়। আসলেই কি আমরা নিজেরা নিজেদের চালাই নাকি চালিত হই কিংবা চলতে বাধ্য হই?