৪০ হাজারের বেশি গানে কণ্ঠ দেয়া প্রখ্যাত সংগীতশিল্পী আর নেই
jugantor
৪০ হাজারের বেশি গানে কণ্ঠ দেয়া প্রখ্যাত সংগীতশিল্পী আর নেই

  বিনোদন ডেস্ক  

২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৬:০১:২৬  |  অনলাইন সংস্করণ

না ফেরার দেশে পাড়ি জমালেন ৪০ হাজারের বেশি গানে কণ্ঠ দেয়া উপমহাদেশের প্রখ্যাত সংগীতশিল্পী এসপি বালা সুব্রামানিয়াম।

শুক্রবার হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে তিনি মারা গেছেন বলে তার ছেলে এসপি চরণ ভারতের গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন। তার বয়স হয়েছিল ৭৪ বছর।

এসপি চরণ বলেন, ‘আমার বাবা এসপিবি দুপুর ১টা ৪ মিনিটে চেন্নাইয়ের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন। এসপিবি সবার। তিনি তার সংগীতেই বেঁচে থাকবেন।’

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলোর খবর, করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন থিরু এসপি বালা সুব্রামানিয়াম। শারীরিক অবস্থায় অবনতি ঘটলে গত ৫ আগস্ট চেন্নাইয়ের একটি হাসপাতালে ভর্তি হন তিনি। শারীরিক অবস্থার গুরুতর অবনতি ঘটলে ১৪ আগস্টে তাকে লাইফসাপোর্টে নেয়া হয়। ৪ সেপ্টেম্বর তিনি করোনামুক্ত হন। করোনামুক্ত হলেও নিউমোনিয়ায় ভুগছিলেন তিনি। ২৫ সেপ্টেম্বর দুপুরে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে তিনি মারা যান।

উপমহাদেশের ১৬টি ভাষায় গান গেয়েছেন বালা সুব্রামানিয়াম। তার পুরো নাম শ্রীপতি পণ্ডিতারাধ্যুলা। ভারতের শোবিজ অঙ্গনে তিনি ‘এসপিবি’ নামেই পরিচিত। ৪০ হাজারের বেশি গান গেয়ে গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে স্থান করেন নেন এই কিংবদন্তি। তার সবচেয়ে বড় কৃতিত্ব হলো- সব বয়সের শ্রোতাদের কাছে তিনি সমধিক জনপ্রিয়।

সেরা প্লেব্যাক শিল্পী হিসেবে তিনি ছয়বার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন। বলিউড ও কর্নাটকের বেশ কিছু সিনেমায় গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয়ও করেছেন তিনি।

বাল সুব্রামেনিয়ামের বহু জনপ্রিয় গানগুলোর মধ্যে, পেহলা পেহলা পেয়া, মেরে রাঙমে, দেখা হ্যয় পেহলি বার, দিল দিওয়ানা গানগুলো অন্যতম।

ভারত সরকার তাকে সম্মানজনক পদ্মশ্রী (২০০১) ও পদ্মভূষণ (২০১১) উপাধিতে ভূষিত করেছে।

তথ্যসূত্র: টাইম অব ইন্ডিয়া, ফার্স্ট পোস্ট

৪০ হাজারের বেশি গানে কণ্ঠ দেয়া প্রখ্যাত সংগীতশিল্পী আর নেই

 বিনোদন ডেস্ক 
২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৪:০১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

না ফেরার দেশে পাড়ি জমালেন ৪০ হাজারের বেশি গানে কণ্ঠ দেয়া উপমহাদেশের প্রখ্যাত সংগীতশিল্পী এসপি বালা সুব্রামানিয়াম। 

শুক্রবার হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে তিনি মারা গেছেন বলে তার ছেলে এসপি চরণ ভারতের গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন। তার বয়স হয়েছিল ৭৪ বছর।  

এসপি চরণ বলেন, ‘আমার বাবা এসপিবি দুপুর ১টা ৪ মিনিটে চেন্নাইয়ের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন। এসপিবি সবার। তিনি তার সংগীতেই বেঁচে থাকবেন।’

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলোর খবর, করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন থিরু এসপি বালা সুব্রামানিয়াম। শারীরিক অবস্থায় অবনতি ঘটলে গত ৫ আগস্ট চেন্নাইয়ের একটি হাসপাতালে ভর্তি হন তিনি। শারীরিক অবস্থার গুরুতর অবনতি ঘটলে ১৪ আগস্টে তাকে লাইফসাপোর্টে নেয়া হয়। ৪ সেপ্টেম্বর তিনি করোনামুক্ত হন। করোনামুক্ত হলেও নিউমোনিয়ায় ভুগছিলেন তিনি। ২৫ সেপ্টেম্বর দুপুরে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে তিনি মারা যান।  

উপমহাদেশের ১৬টি ভাষায় গান গেয়েছেন বালা সুব্রামানিয়াম। তার পুরো নাম শ্রীপতি পণ্ডিতারাধ্যুলা। ভারতের শোবিজ অঙ্গনে তিনি ‘এসপিবি’ নামেই পরিচিত।  ৪০ হাজারের বেশি গান গেয়ে গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে স্থান করেন নেন এই কিংবদন্তি। তার সবচেয়ে বড় কৃতিত্ব হলো- সব বয়সের শ্রোতাদের কাছে তিনি সমধিক জনপ্রিয়। 

সেরা প্লেব্যাক শিল্পী হিসেবে তিনি ছয়বার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন। বলিউড ও কর্নাটকের বেশ কিছু সিনেমায় গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয়ও করেছেন তিনি।

বাল সুব্রামেনিয়ামের বহু জনপ্রিয় গানগুলোর মধ্যে, পেহলা পেহলা পেয়া, মেরে রাঙমে, দেখা হ্যয় পেহলি বার, দিল দিওয়ানা গানগুলো অন্যতম।

ভারত সরকার তাকে সম্মানজনক পদ্মশ্রী (২০০১) ও পদ্মভূষণ (২০১১) উপাধিতে ভূষিত করেছে।

তথ্যসূত্র: টাইম অব ইন্ডিয়া, ফার্স্ট পোস্ট