এবার চার বলি অভিনেত্রীর ক্রেডিট কার্ড বাজেয়াপ্ত
jugantor
এবার চার বলি অভিনেত্রীর ক্রেডিট কার্ড বাজেয়াপ্ত

  বিনোদন ডেস্ক  

২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ২০:৩০:০৯  |  অনলাইন সংস্করণ

চার বলি অভিনেত্রী

বলিউড অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতে মৃত্যুর জেরে মাদক কেলেঙ্কারির তদন্তে ফোনের পর এবার দীপিকা, সারা, শ্রদ্ধা আর রাকুলের ক্রেডিট কার্ড বাজেয়াপ্ত করেছে ভারতের কেন্দ্রীয় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ ব্যুরো (এনসিবি)।

ইতিমধ্যে বলিউডের প্রথম সারির এই চার অভিনেত্রীকে জেরা করা হয়েছে। দিনভর পৃথক জিজ্ঞাসাবাদে চারজনই দাবি করেছেন, তারা কোনোদিনই মাদক নেননি। তবে তদন্তের স্বার্থে চারজনেরই ফোন নিয়ে নেওয়া হয়েছে।

এদিকে, সোমবার ভারতীয় গণমাধ্যম জানিয়েছে, এই চার বলি অভিনেত্রীর ক্রেডিট কার্ড বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। তাদের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট স্টেটমেন্টও খতিয়ে দেখবে এনসিবি। ইতিমধ্যেই তাদের ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে টাকার লেনদেন খতিয়ে দেখা হয়েছে। মূলত কোনো মাদক বিক্রেতার সঙ্গে আর্থিক লেনদেন হয়েছে কিনা, তা দেখার জন্যই এই পদক্ষেপ।

জানা যায়, সুশান্তের ম্যানেজার জয়া সাহাকে কয়েক দফায় জিজ্ঞাসাবাদ এবং তার ফোনের হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট থেকে বলিউডের আরও কয়েকজনের নামের খোঁজ পায় এনসিবি। সেখানেই ২০১৭ সালের একটি গ্রুপ চ্যাটের খোঁজ পাওয়া যায়। সেখানে ‘ডি’ এবং ‘কে’নামে দুই আইডির সূত্র ধরেই এনসিবি দীপিকা এবং তার ম্যানেজার করিশমার বিরুদ্ধে সমন জারি করে। জেরায় দীপিকা ওই চ্যাটের কথা স্বীকার করলেও বলেন, তিনি নিজে মাদক নেননি। অন্য দিকে, বাকি তিনজনের নাম উঠে আসে রিয়াকে জিজ্ঞাসাবাদ করার সময়।

এনসিবি প্রধান রাকেশ আস্থানা দিল্লি থেকে মুম্বাই পৌঁছে কর্মকর্তাদের সঙ্গে রোববার গভীর রাতে বৈঠক করেছেন বলে জানা গেছে।

দীপিকার ম্যানেজার করিশমা প্রকাশ যে ট্যালেন্ট ম্যানেজমেন্ট এজেন্সিতে কাজ করতেন, সেই ‘কোয়ান ট্যালেন্ট ম্যানেজমেন্ট’ কোম্পানির মালিক মধু মন্টেনাকেও ইতিমধ্যে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে এনসিবি। অন্যদিকে করন জোহরের ঘনিষ্ঠ গ্রেফতার ক্ষিতিজ প্রসাদকে টানা জেরা চালানো হচ্ছে।

এবার চার বলি অভিনেত্রীর ক্রেডিট কার্ড বাজেয়াপ্ত

 বিনোদন ডেস্ক 
২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৮:৩০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
চার বলি অভিনেত্রী
ছবি: সংগৃহীত

বলিউড অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতে মৃত্যুর জেরে মাদক কেলেঙ্কারির তদন্তে ফোনের পর এবার দীপিকা, সারা, শ্রদ্ধা আর রাকুলের ক্রেডিট কার্ড বাজেয়াপ্ত করেছে ভারতের কেন্দ্রীয় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ ব্যুরো (এনসিবি)।

ইতিমধ্যে বলিউডের প্রথম সারির এই চার অভিনেত্রীকে জেরা করা হয়েছে। দিনভর পৃথক জিজ্ঞাসাবাদে চারজনই দাবি করেছেন, তারা কোনোদিনই মাদক নেননি। তবে তদন্তের স্বার্থে চারজনেরই ফোন নিয়ে নেওয়া হয়েছে।

এদিকে, সোমবার ভারতীয় গণমাধ্যম জানিয়েছে, এই চার বলি অভিনেত্রীর ক্রেডিট কার্ড বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। তাদের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট স্টেটমেন্টও খতিয়ে দেখবে এনসিবি। ইতিমধ্যেই তাদের ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে টাকার লেনদেন খতিয়ে দেখা হয়েছে। মূলত কোনো মাদক বিক্রেতার সঙ্গে আর্থিক লেনদেন হয়েছে কিনা, তা দেখার জন্যই এই পদক্ষেপ।

জানা যায়, সুশান্তের ম্যানেজার জয়া সাহাকে কয়েক দফায় জিজ্ঞাসাবাদ এবং তার ফোনের হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট থেকে বলিউডের আরও কয়েকজনের নামের খোঁজ পায় এনসিবি। সেখানেই ২০১৭ সালের একটি গ্রুপ চ্যাটের খোঁজ পাওয়া যায়। সেখানে ‘ডি’ এবং ‘কে’নামে দুই আইডির সূত্র ধরেই এনসিবি দীপিকা এবং তার ম্যানেজার করিশমার বিরুদ্ধে সমন জারি করে। জেরায় দীপিকা ওই চ্যাটের কথা স্বীকার করলেও বলেন, তিনি নিজে মাদক নেননি। অন্য দিকে, বাকি তিনজনের নাম উঠে আসে রিয়াকে জিজ্ঞাসাবাদ করার সময়।

এনসিবি প্রধান রাকেশ আস্থানা দিল্লি থেকে মুম্বাই পৌঁছে কর্মকর্তাদের সঙ্গে রোববার গভীর রাতে বৈঠক করেছেন বলে জানা গেছে।

দীপিকার ম্যানেজার করিশমা প্রকাশ যে ট্যালেন্ট ম্যানেজমেন্ট এজেন্সিতে কাজ করতেন, সেই ‘কোয়ান ট্যালেন্ট ম্যানেজমেন্ট’ কোম্পানির মালিক মধু মন্টেনাকেও ইতিমধ্যে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে এনসিবি। অন্যদিকে করন জোহরের ঘনিষ্ঠ গ্রেফতার ক্ষিতিজ প্রসাদকে টানা জেরা চালানো হচ্ছে।