জীবন শঙ্কা কাটেনি সৌমিত্রের
jugantor
জীবন শঙ্কা কাটেনি সৌমিত্রের

  বিনোদন ডেস্ক  

২৯ অক্টোবর ২০২০, ১২:০৯:৫৩  |  অনলাইন সংস্করণ

জীবন শঙ্কা কাটেনি সৌমিত্রের

পশ্চিমবঙ্গের অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের জীবন শঙ্কা কাটেনি। তার দুটি কিডনি অচল হয়ে পড়েছে। এ কারণে তার কিডনি ডায়ালাইসিস করা হয়েছে।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ায় পশ্চিমবঙ্গের শক্তিমান এ অভিনেতাকে কলকাতার বেলভিউ নার্সিংহোমে ভর্তি করা হয়। সেখানে ২৩ দিন ধরে চিকিৎসাধীন তিনি। এখনও ভেন্টিলেশনে রাখা হয়েছে তাকে।

মূত্রের পরিমাণ কম হওয়ায় স্বল্প সময়ের জন্য একাধিকবার ডায়ালাইসিসের সিদ্ধান্ত নেন চিকিৎসকরা। বুধবার প্রথম ডায়ালাইসিস করা হয়। এতে ভালো ফল পাওয়া গেছে।

বুধবার রাতের মেডিকেল বুলেটিনে জানানো হয়, সৌমিত্রের প্রথম পর্বের ডায়ালাইসিস হয়েছে এবং তাতে ভালো সাড়া পাওয়া গেছে। তার রক্তচাপ বাড়ে বা কমেওনি। এ ছাড়া শরীরের অন্যান্য মাপকাঠিও স্বাভাবিক রয়েছে বলেও জানানো হয়েছে ওই বুলেটিনে। তবে তিনি শঙ্কামুক্ত নন।

বুধবার বিকালে চিকিৎসকরা আরও জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় সৌমিত্রের মূত্র কম হয়েছে। তার কিডনি ঠিকমতো কাজ করছে না। তাই কিডনি বিশেষজ্ঞরা কয়েকটি ডায়ালাইসিসের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। ইউরিয়া ও ক্রিয়েটিনিনের পরিমাণ কমাতে ২-৩ বার ডায়ালাইসিস হতে পারে।

গুরুতর অসুস্থ এ অভিনেতার চেতনও কম। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, সচেতনতা এ মুহূর্তে ৯ থেকে ১০-এর মধ্যে রয়েছে। ডায়ালাইসিসের মাধ্যমে সচেতনতার মাত্রাও বাড়ানোর চেষ্টা করা হবে। দেয়া হচ্ছে অ্যান্টিবায়োটিকও।

তবে ডায়ালাইসিসের পর চিকিৎসকরা আশার বাণীও শুনিয়েছেন। তারা বলছেন, সৌমিত্রের রক্তপাত বন্ধ হয়েছে। তারা আরও জানিয়েছেন, হিমোগ্লোবিন ও অন্যান্য মাপকাঠি স্থিতিশীল। ফুসফুসও কিছুটা কাজ করছে। অক্সিজেন চলছে।


জীবন শঙ্কা কাটেনি সৌমিত্রের

 বিনোদন ডেস্ক 
২৯ অক্টোবর ২০২০, ১২:০৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
জীবন শঙ্কা কাটেনি সৌমিত্রের
ফাইল ছবি

পশ্চিমবঙ্গের অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের জীবন শঙ্কা কাটেনি।  তার দুটি কিডনি অচল হয়ে পড়েছে। এ কারণে তার কিডনি ডায়ালাইসিস করা হয়েছে।  

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ায় পশ্চিমবঙ্গের শক্তিমান এ অভিনেতাকে কলকাতার বেলভিউ নার্সিংহোমে ভর্তি করা হয়।  সেখানে ২৩ দিন ধরে চিকিৎসাধীন তিনি। এখনও ভেন্টিলেশনে রাখা হয়েছে তাকে।

মূত্রের পরিমাণ কম হওয়ায় স্বল্প সময়ের জন্য একাধিকবার ডায়ালাইসিসের সিদ্ধান্ত নেন চিকিৎসকরা। বুধবার প্রথম ডায়ালাইসিস করা হয়। এতে ভালো ফল পাওয়া গেছে। 

বুধবার রাতের মেডিকেল বুলেটিনে জানানো হয়, সৌমিত্রের প্রথম পর্বের ডায়ালাইসিস হয়েছে এবং তাতে ভালো সাড়া পাওয়া গেছে। তার রক্তচাপ বাড়ে বা কমেওনি। এ ছাড়া শরীরের অন্যান্য মাপকাঠিও স্বাভাবিক রয়েছে বলেও জানানো হয়েছে ওই বুলেটিনে। তবে তিনি শঙ্কামুক্ত নন।

বুধবার বিকালে চিকিৎসকরা আরও জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় সৌমিত্রের মূত্র কম হয়েছে। তার কিডনি ঠিকমতো কাজ করছে না। তাই কিডনি বিশেষজ্ঞরা কয়েকটি ডায়ালাইসিসের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। ইউরিয়া ও ক্রিয়েটিনিনের পরিমাণ কমাতে ২-৩ বার ডায়ালাইসিস হতে পারে।

গুরুতর অসুস্থ এ অভিনেতার চেতনও কম। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, সচেতনতা এ মুহূর্তে ৯ থেকে ১০-এর মধ্যে রয়েছে।  ডায়ালাইসিসের মাধ্যমে সচেতনতার মাত্রাও বাড়ানোর চেষ্টা করা হবে।  দেয়া হচ্ছে অ্যান্টিবায়োটিকও।

তবে ডায়ালাইসিসের পর চিকিৎসকরা আশার বাণীও শুনিয়েছেন। তারা বলছেন, সৌমিত্রের রক্তপাত বন্ধ হয়েছে। তারা আরও জানিয়েছেন, হিমোগ্লোবিন ও অন্যান্য মাপকাঠি স্থিতিশীল। ফুসফুসও কিছুটা কাজ করছে। অক্সিজেন চলছে।