আমি কথায় নয় কাজে বিশ্বাসী: মুহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজ
jugantor
আমি কথায় নয় কাজে বিশ্বাসী: মুহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজ

  বিনোদন প্রতিবেদক  

১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ২২:৪৭:০০  |  অনলাইন সংস্করণ

তৃতীয়বারের মতো অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে টেলিভিশন নাট্যপরিচালকদের সবচেয়ে বড় সংগঠন ‘ডিরেক্টরস গিল্ড’র নির্বাচন। আগামী ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১-২২ মেয়াদের নির্বাচন বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি অথবা এফডিসি প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত হবে।

আসন্ন নির্বাচনে ভোটের লড়াইয়ে নির্বাচন কমিশনের নির্দেশনা মেনে নিজেদের মতো করে প্রচারণায় নেমেছেন নির্মাতারা। তাদের মধ্যে এ সময়ের আলোচিত নির্মাতা মুহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজ এবারের নির্বাচনে সাধারণ সম্পাদক পদে প্রার্থী হয়েছেন।

মোস্তফা কামাল রাজ বাংলাদেশের একজন স্বনামধন্য টিভি নাটক ও চলচ্চিত্র পরিচালক নির্মাতা। তার পরিচালিত প্রজাপতি মুক্তি পায় ২০১১ সালের ৭ নভেম্বর। এ চলচ্চিত্রটিতে অভিনয় করেছেন মৌসুমী, জাহিদ হাসান, মোশাররফ করিম। এ চলচ্চিত্রটি শ্রেষ্ঠ সংগীত পরিচালক, শ্রেষ্ঠ গীতিকার এবং শ্রেষ্ঠ শিল্পী (নারী) ক্যাটাগরিতে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করে। এছাড়া রাজের পরিচালিত চলচ্চিত্র ছায়া-ছবি (২০১৩), তারকাঁটা (২০১৪), সম্রাট (২০১৬), যদি একদিন (২০১৮) সালে মুক্তি পায়।

এবারের ‘ডিরেক্টরস গিল্ড’ নির্বাচন নিয়ে মুহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজ কথা বলেছেন যুগান্তরের সঙ্গে-

যুগান্তর: নির্বাচনের আগে আপনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জানিয়েছিলেন আপনি নির্বাচন করছেন না। কিন্তু হঠাৎ সিদ্ধান্ত বদল করলেন কেন?
রাজ:
আমি গতবারও নির্বাচন করতে চাইনি। এবারও নির্বাচন করার পরিকল্পনা ছিল না। সে জন্য আমার মতামত আমার ফেসবুকের মাধ্যমে জানিয়েছিলাম। কিন্তু এই ইন্ডাস্ট্রিতে যারা আমার গুরুজন তারা আমাকে ডেকে নিয়ে বললেন— তোমার নির্বাচন করতে হবে। আমি না বলাতে তারা বললেন- সংগঠনের প্রয়োজনে তোমাকে দরকার।

যুগান্তর: ডিরেক্টরস গিল্ড নির্বাচনে আপনার প্রতিশ্রুতি কী?
রাজ:
প্রতিশ্রুতি একটি নির্বাচনী কৌশল। আমি সেই কৌশল অবলম্বন করতে চাই না।

যুগান্তর: তাহলে আপনি কী করতে চান?
রাজ:
আমি যদি নির্বাচিত হই তাহলে আমার সহকর্মীদের সঙ্গে একসঙ্গে বসে তাদের সমস্যার কথা শুনে সেগুলো সমাধান করার জন্য আমার সাধ্যমত চেষ্টা করবো। এবং আমার ব্যক্তিগত কিছু পরিকল্পনা আছে যেটা আমি নির্বাচিত হওয়ার পর বাস্তবায়ন করবো। কারণ আমি কথায় নয় কাজে বিশ্বাসী।

যুগান্তর: আপনি আগেও নির্বাচন করেছেন দুইবার। কিন্তু কোনোবারই বিজয়ী হননি। এবারও কি হারবেন নাকি বিজয়ী হয়ে চমকে দেবেন?
রাজ:
আগের দুইবার নির্বাচন করে আমি পরাজিত হয়েছি এটা সত্য। এ জন্য আমার কোনো আফসোস নেই এবং মন খারাপও হয়নি। তবে এবার সবাই যদি আমাকে যোগ্য মনে করেন তাহলে বিজয়ী হবো। আর যোগ্য মনে না করলে এবারও পরাজিত হয়ে হ্যাট্রিক করবো।

আমি কথায় নয় কাজে বিশ্বাসী: মুহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজ

 বিনোদন প্রতিবেদক 
১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১০:৪৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

তৃতীয়বারের মতো অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে টেলিভিশন নাট্যপরিচালকদের সবচেয়ে বড় সংগঠন ‘ডিরেক্টরস গিল্ড’র নির্বাচন। আগামী ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১-২২ মেয়াদের নির্বাচন বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি অথবা এফডিসি প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত হবে। 

আসন্ন নির্বাচনে ভোটের লড়াইয়ে নির্বাচন কমিশনের নির্দেশনা মেনে নিজেদের মতো করে প্রচারণায় নেমেছেন নির্মাতারা। তাদের মধ্যে এ সময়ের আলোচিত নির্মাতা মুহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজ এবারের নির্বাচনে সাধারণ সম্পাদক পদে প্রার্থী হয়েছেন। 

মোস্তফা কামাল রাজ বাংলাদেশের একজন স্বনামধন্য টিভি নাটক ও চলচ্চিত্র পরিচালক নির্মাতা। তার পরিচালিত প্রজাপতি মুক্তি পায় ২০১১ সালের ৭ নভেম্বর। এ চলচ্চিত্রটিতে অভিনয় করেছেন মৌসুমী, জাহিদ হাসান, মোশাররফ করিম। এ চলচ্চিত্রটি শ্রেষ্ঠ সংগীত পরিচালক, শ্রেষ্ঠ গীতিকার এবং শ্রেষ্ঠ শিল্পী (নারী) ক্যাটাগরিতে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করে। এছাড়া রাজের পরিচালিত চলচ্চিত্র ছায়া-ছবি (২০১৩), তারকাঁটা (২০১৪), সম্রাট (২০১৬), যদি একদিন (২০১৮) সালে মুক্তি পায়। 

এবারের ‘ডিরেক্টরস গিল্ড’ নির্বাচন নিয়ে মুহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজ কথা বলেছেন যুগান্তরের সঙ্গে- 

যুগান্তর: নির্বাচনের আগে আপনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জানিয়েছিলেন আপনি নির্বাচন করছেন না। কিন্তু হঠাৎ সিদ্ধান্ত বদল করলেন কেন? 
রাজ:
আমি গতবারও নির্বাচন করতে চাইনি। এবারও নির্বাচন করার পরিকল্পনা ছিল না। সে জন্য আমার মতামত আমার ফেসবুকের মাধ্যমে জানিয়েছিলাম। কিন্তু এই ইন্ডাস্ট্রিতে যারা আমার গুরুজন তারা আমাকে ডেকে নিয়ে বললেন— তোমার নির্বাচন করতে হবে। আমি না বলাতে তারা বললেন- সংগঠনের প্রয়োজনে তোমাকে দরকার। 

যুগান্তর: ডিরেক্টরস গিল্ড নির্বাচনে আপনার প্রতিশ্রুতি কী?
রাজ:
প্রতিশ্রুতি একটি নির্বাচনী কৌশল। আমি সেই কৌশল অবলম্বন করতে চাই না। 

যুগান্তর: তাহলে আপনি কী করতে চান?
রাজ:
আমি যদি নির্বাচিত হই তাহলে আমার সহকর্মীদের সঙ্গে একসঙ্গে বসে তাদের সমস্যার কথা শুনে সেগুলো সমাধান করার জন্য আমার সাধ্যমত চেষ্টা করবো। এবং আমার ব্যক্তিগত কিছু পরিকল্পনা আছে যেটা আমি নির্বাচিত হওয়ার পর বাস্তবায়ন করবো। কারণ আমি কথায় নয় কাজে বিশ্বাসী। 

যুগান্তর: আপনি আগেও নির্বাচন করেছেন দুইবার। কিন্তু কোনোবারই বিজয়ী হননি। এবারও কি হারবেন নাকি বিজয়ী হয়ে চমকে দেবেন? 
রাজ:
আগের দুইবার নির্বাচন করে আমি পরাজিত হয়েছি এটা সত্য। এ জন্য আমার কোনো আফসোস নেই এবং মন খারাপও হয়নি। তবে এবার সবাই যদি আমাকে যোগ্য মনে করেন তাহলে বিজয়ী হবো। আর যোগ্য মনে না করলে এবারও পরাজিত হয়ে হ্যাট্রিক করবো।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন