সাবেকের বিরুদ্ধে ‘বিস্ফোরক’ অভিযোগ হলিউড নায়িকার
jugantor
সাবেকের বিরুদ্ধে ‘বিস্ফোরক’ অভিযোগ হলিউড নায়িকার

  বিনোদন ডেস্ক  

১৯ মার্চ ২০২১, ১৬:১৫:২৮  |  অনলাইন সংস্করণ

বলিউডের সবচেয়ে বেশি পারিশ্রমিক পাওয়া অভিনেত্রী অ্যাঞ্জেলিনা জোলির ঘর ভেঙেছে আরও চার বছর আগে। ব্র্যাড পিটের সঙ্গে এখন আর এক ছাদের নিচে থাকেন না তিনি। তবে সম্প্রতি সাবেক স্বামীর বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ এনেছেন এই সুদর্শনী।

সম্প্রতি বিবাহবিচ্ছেদের মামলায় আদালতে নতুন নথি জমা দিয়েছেন এই হলিউড অভিনেত্রী। সেখানে তিনি বলেছেন, ব্র্যাড পিট তাকে ঘরের মধ্যে হেনস্তা করেছেন। সেই প্রমাণ তার কাছে রয়েছেন। তার সন্তানরা এ বিষয়ে আদালতে সাক্ষী দেবেন। খবর এনডিটিভির।

৪৫ বছর বয়স্ক এই বলিউড অভিনেত্রী কোর্টে দাবি করেছেন যে, ৫৭ বছর বয়সী পিট তার ওপর সহিংসতা করেছেন। সে বিষয়ে তার সন্তানরা আদালতে সাক্ষী দেবেন।

প্রসঙ্গত ২০০৪ সালে 'মিস্টার অ্যান্ড মিসেস স্মিথ' ছবিতে কাজ করতে গিয়ে অ্যাঞ্জেলিনা জোলি-ব্র্যাড পিটের আলাপ হয়। বহু বছর চুটিয়ে প্রেম করার পর ২০১৪ সালে বিয়ে করেন দুই হলিউড তারকা। তবে বিয়ের দুই বছরের মাথাতেই একে অপরের সঙ্গে আইনি লড়াইয়ে জড়িয়ে পড়েন তারকা দম্পতি। যদিও তাদের আইনত বিচ্ছেদ হয়নি। তারকা দম্পতির ৬ সন্তান রয়েছে। মার্কিন সংবাদপত্র সূত্রে খবর অ্যাঞ্জেলিনা-ব্র্যাডের সন্তানরাও বাবা-মায়ের সম্পর্কের তিক্ততা ও গার্হস্থ্য হিংসার বিষয়ে আদালতে মুখ খুলতে রাজি হয়েছেন।

‘আনব্রোকেন’ অভিনেত্রী আগেও এ বিষয়ে কিছু প্রমাণ পেশ করেছিলেন। সম্প্রতি অতিরিক্ত কয়েকটি নথি জমা দেওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেন। বলা হচ্ছে— সাবেক দম্পতির ৬ ছেলেমেয়েকেও কথা বলার অধিকার দেওয়া হবে। বিবাহবিচ্ছেদের শুনানিতে তারা নিজেদের বক্তব্য পেশ করতে পারেন আদালতে। ব্র্যাড পিটের ঘনিষ্ঠ একটি সূত্র বলছে, অভিনেতা মনে করেন, যে প্রমাণের কথা বলা হচ্ছে, তা আদতে বিশেষ কিছু নয়। তাকে আঘাত করার জন্যই এমনটি করছেন জোলি। শুধু তা-ই নয়, এই কাজে সন্তানদের ব্যবহার করা হচ্ছে বলেও অভিযোগ ‘ওয়ান্স আপন আ টাইম ইন হলিউড’ অভিনেতার।

সাত বছরের লিভ ইনের পর ২০১২ সালে আংটি বদল করেন অ্যাঞ্জেলিনা জোলি ও ব্র্যাড পিট। ২০১৪ সালে তারা বিয়ে করেন। মাত্র দুই বছরের মাথায় ২০১৬ সালে ডিভোর্স ফাইল করেন অভিনেত্রী। তার পর থেকে আইনি লড়াই চলছে তো চলছেই।

সাবেকের বিরুদ্ধে ‘বিস্ফোরক’ অভিযোগ হলিউড নায়িকার

 বিনোদন ডেস্ক 
১৯ মার্চ ২০২১, ০৪:১৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বলিউডের সবচেয়ে বেশি পারিশ্রমিক পাওয়া অভিনেত্রী অ্যাঞ্জেলিনা জোলির ঘর ভেঙেছে আরও চার বছর আগে।  ব্র্যাড পিটের সঙ্গে এখন আর এক ছাদের নিচে থাকেন না তিনি।  তবে সম্প্রতি সাবেক স্বামীর বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ এনেছেন এই সুদর্শনী।

সম্প্রতি বিবাহবিচ্ছেদের মামলায় আদালতে নতুন নথি জমা দিয়েছেন এই হলিউড অভিনেত্রী।  সেখানে তিনি বলেছেন, ব্র্যাড পিট তাকে ঘরের মধ্যে হেনস্তা করেছেন। সেই প্রমাণ তার কাছে রয়েছেন। তার সন্তানরা এ বিষয়ে আদালতে সাক্ষী দেবেন। খবর এনডিটিভির।

৪৫ বছর বয়স্ক এই বলিউড অভিনেত্রী কোর্টে দাবি করেছেন যে, ৫৭ বছর বয়সী পিট তার ওপর সহিংসতা করেছেন। সে বিষয়ে তার সন্তানরা আদালতে সাক্ষী দেবেন। 

প্রসঙ্গত ২০০৪ সালে 'মিস্টার অ্যান্ড মিসেস স্মিথ' ছবিতে কাজ করতে গিয়ে অ্যাঞ্জেলিনা জোলি-ব্র্যাড পিটের আলাপ হয়। বহু বছর চুটিয়ে প্রেম করার পর ২০১৪ সালে বিয়ে করেন দুই হলিউড তারকা। তবে বিয়ের দুই বছরের মাথাতেই একে অপরের সঙ্গে আইনি লড়াইয়ে জড়িয়ে পড়েন তারকা দম্পতি। যদিও তাদের আইনত বিচ্ছেদ হয়নি। তারকা দম্পতির ৬ সন্তান রয়েছে। মার্কিন সংবাদপত্র সূত্রে খবর অ্যাঞ্জেলিনা-ব্র্যাডের সন্তানরাও বাবা-মায়ের সম্পর্কের তিক্ততা ও গার্হস্থ্য হিংসার বিষয়ে আদালতে মুখ খুলতে রাজি হয়েছেন। 

 ‘আনব্রোকেন’ অভিনেত্রী আগেও এ বিষয়ে কিছু প্রমাণ পেশ করেছিলেন। সম্প্রতি অতিরিক্ত কয়েকটি নথি জমা দেওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেন।  বলা হচ্ছে— সাবেক দম্পতির ৬ ছেলেমেয়েকেও কথা বলার অধিকার দেওয়া হবে। বিবাহবিচ্ছেদের শুনানিতে তারা নিজেদের বক্তব্য পেশ করতে পারেন আদালতে। ব্র্যাড পিটের ঘনিষ্ঠ একটি সূত্র বলছে, অভিনেতা মনে করেন, যে প্রমাণের কথা বলা হচ্ছে, তা আদতে বিশেষ কিছু নয়। তাকে আঘাত করার জন্যই এমনটি করছেন জোলি। শুধু তা-ই নয়, এই কাজে সন্তানদের ব্যবহার করা হচ্ছে বলেও অভিযোগ ‘ওয়ান্স আপন আ টাইম ইন হলিউড’ অভিনেতার।

সাত বছরের লিভ ইনের পর ২০১২ সালে আংটি বদল করেন অ্যাঞ্জেলিনা জোলি ও ব্র্যাড পিট। ২০১৪ সালে তারা বিয়ে করেন। মাত্র দুই বছরের মাথায় ২০১৬ সালে ডিভোর্স ফাইল করেন অভিনেত্রী। তার পর থেকে আইনি লড়াই চলছে তো চলছেই।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন