ইফতারে সামিল হলেন বিদ্যা সিনহা মিম, ফেসবুকে প্রশংসিত
jugantor
ইফতারে সামিল হলেন বিদ্যা সিনহা মিম, ফেসবুকে প্রশংসিত

  বিনোদন ডেস্ক  

১৪ এপ্রিল ২০২১, ২৩:৪১:২৯  |  অনলাইন সংস্করণ

ইফতারে সামিল হলেন বিদ্যা সিনহা মিম, ফেসবুকে প্রশংসিত

রহমত, মাগফিরাত ও নাজাতের সওগাত নিয়ে বছর ঘুরে আবার এলো মাহে রমজান।

শুরু হয়েছে মাসব্যাপী সিয়াম সাধনা। সাহরির পর সারাদিন না খেয়ে থেকে মাগরিবের আযানের প্রথম ধ্বনিতে মুখে ইফতার তুলেন ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা।

ইফতারের পবিত্রতায় সামিল হতে চান না এমন একজন মানুষ খুঁজে পাওয়া যাবে না। তেমনি প্রথম রোজার প্রথম ইফতারে সামিল হলেন মডেল ও অভিনেত্রী হিসাবে প্রশংসিত বিদ্যা সিনহা মিম। মিমের জনপ্রিয়তা এখন দেশের গণ্ডি পেরিয়ে কলকাতাতেও পৌঁছেছে।

জনপ্রিয় এই অভিনেত্রী ইফতারের আয়োজনে সামিল হওয়া একটি ছবি নিজের ফেসবুক পেজে আপলোড করেছেন। যেখানে দেখা গেছে, ঘরোয়া পরিবেশে খাবারের টেবিলে ইফতার নিয়ে বসেছেন মিম। আযানের জন্য অপেক্ষা করছেন।চারিদিকে পবিত্রতার আবেশ।

ক্যাপশনে মিম লিখেছেন, প্রথম রমাদান ইফতার, ভালোবাসার চিহ্ন।

ছবিটি ইফতারের পর পর প্রকাশ করেন মিম।

এটি অবশ্য মিমের ভেরিফায়েড পেজ নয়। তবে পেজটি থেকে পোস্ট করার ৪ ঘণ্টার মধ্যে ছবিটি ভাইরাল হয়ে পড়ে। অই পেজে গত কয়েকদিনে আপলোড করা পোস্টগুলোর চেয়ে চার-পাঁচ গুণ লাইক জমা পড়েছে ইফতারের ছবিতে। ইতোমধ্যে লাইক জমা পড়েছে ২২ হাজারের বেশি। কমেন্ট জমা পড়েছে ৩২২ টি।

মন্তব্যের ঘরে মিমকে প্রশংসা ভাসাচ্ছেন নেটিজেনরা। সৌরদ্বীপ দে নামের এক নেটিজেন লিখেছেন, সত্যিই সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির প্রতীক তুমি মিম।

কামাল আহমেদ লিখেছেন, ভালোবাস ও সম্মান মিমের জন্য। কিভাবে অন্য ধর্মের প্রতি সম্মান দেখাতে হয়, কেউ কেউ শিখে নিতে পারেন। ভাল থাকো মিম, ভাল থাকুক তোমার পরিবার।

ফুয়াদ আল মুক্তাদি লিখেছেন, ধর্মীয় সম্প্রীতি বজায় থাকুক সবার মনে। দেখে ভালো লাগছে।

গাজি মোহাম্মদউল্লাহ ফরহাদ লিখেছেন, সর্বপ্রথম আমাদের মানুষ হতে হবে।একজন প্রকৃত মানুষের কাছে ধর্মবর্ণের ভেদাভেদ নেই । সত্যি মিম আপুর কাজটা প্রশংসানীয়। আশা করছি আমারও অন্য ধর্মের প্রতি এবং বিশেষ করে মিম আপুর প্রতি শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা জানাব।

মিমের এই ইফতারে অংশগ্রহণের দৃশ্যকে দারুণ ও পবিত্র বলে মন্তব্য করছেন অনেকেই।

ইফতারে সামিল হলেন বিদ্যা সিনহা মিম, ফেসবুকে প্রশংসিত

 বিনোদন ডেস্ক 
১৪ এপ্রিল ২০২১, ১১:৪১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ইফতারে সামিল হলেন বিদ্যা সিনহা মিম, ফেসবুকে প্রশংসিত
ছবি: ফেসবুক

রহমত, মাগফিরাত ও নাজাতের সওগাত নিয়ে বছর ঘুরে আবার এলো মাহে রমজান। 

শুরু হয়েছে মাসব্যাপী সিয়াম সাধনা। সাহরির পর সারাদিন না খেয়ে থেকে মাগরিবের আযানের প্রথম ধ্বনিতে মুখে ইফতার তুলেন ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা।

ইফতারের পবিত্রতায় সামিল হতে চান না এমন একজন মানুষ খুঁজে পাওয়া যাবে না। তেমনি প্রথম রোজার প্রথম ইফতারে সামিল হলেন মডেল ও অভিনেত্রী হিসাবে প্রশংসিত বিদ্যা সিনহা মিম। মিমের জনপ্রিয়তা এখন দেশের গণ্ডি পেরিয়ে কলকাতাতেও পৌঁছেছে।

জনপ্রিয় এই অভিনেত্রী ইফতারের আয়োজনে সামিল হওয়া একটি ছবি নিজের ফেসবুক পেজে আপলোড করেছেন। যেখানে দেখা গেছে, ঘরোয়া পরিবেশে খাবারের টেবিলে ইফতার নিয়ে বসেছেন মিম। আযানের জন্য অপেক্ষা করছেন। চারিদিকে পবিত্রতার আবেশ।

ক্যাপশনে মিম লিখেছেন, প্রথম রমাদান ইফতার, ভালোবাসার চিহ্ন।

ছবিটি ইফতারের পর পর প্রকাশ করেন মিম।

এটি অবশ্য মিমের ভেরিফায়েড পেজ নয়। তবে পেজটি থেকে  পোস্ট করার ৪ ঘণ্টার মধ্যে ছবিটি ভাইরাল হয়ে পড়ে। অই পেজে গত কয়েকদিনে আপলোড করা পোস্টগুলোর চেয়ে চার-পাঁচ গুণ লাইক জমা পড়েছে ইফতারের ছবিতে।  ইতোমধ্যে লাইক জমা পড়েছে ২২ হাজারের বেশি। কমেন্ট জমা পড়েছে ৩২২ টি। 

মন্তব্যের ঘরে মিমকে প্রশংসা ভাসাচ্ছেন নেটিজেনরা। সৌরদ্বীপ দে নামের এক নেটিজেন লিখেছেন, সত্যিই সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির প্রতীক তুমি মিম।

কামাল আহমেদ লিখেছেন, ভালোবাস ও সম্মান মিমের জন্য। কিভাবে অন্য ধর্মের প্রতি সম্মান দেখাতে হয়, কেউ কেউ শিখে নিতে পারেন। ভাল থাকো মিম, ভাল থাকুক তোমার পরিবার।

ফুয়াদ আল মুক্তাদি লিখেছেন, ধর্মীয় সম্প্রীতি বজায় থাকুক সবার মনে। দেখে ভালো লাগছে। 

গাজি মোহাম্মদউল্লাহ ফরহাদ লিখেছেন, সর্বপ্রথম আমাদের মানুষ হতে হবে। একজন প্রকৃত মানুষের কাছে ধর্মবর্ণের ভেদাভেদ নেই । সত্যি মিম আপুর কাজটা প্রশংসানীয়। আশা করছি আমারও অন্য ধর্মের প্রতি এবং বিশেষ করে মিম আপুর প্রতি শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা জানাব।  

মিমের এই ইফতারে অংশগ্রহণের দৃশ্যকে দারুণ ও পবিত্র বলে মন্তব্য করছেন অনেকেই। 

 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন