এবার ‘অভিনয়’ গানের পরিচালককে নিয়ে নোবেলের পেজে ‘কুরুচিপূর্ণ’ স্ট্যাটাস
jugantor
এবার ‘অভিনয়’ গানের পরিচালককে নিয়ে নোবেলের পেজে ‘কুরুচিপূর্ণ’ স্ট্যাটাস

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

১৫ মে ২০২১, ২১:১৮:০৪  |  অনলাইন সংস্করণ

‘হ্যাকড’ হওয়ার দুদিনের মধ্যেই ‘উদ্ধার’ হয়েছে তরুণ উঠতি গায়ক মাঈনুল ইসলাম নোবেলের ফেসবুক পেজ ‘নোবেল ম্যান’। এমনটাই দাবি এই কণ্ঠশিল্পীর।

বেহাত পেজ নিজের নিয়ন্ত্রণে নেওয়ার পর পরই জেমস, ইথুন বাবু, তাপসকে নিয়ে লেখা কুরুচিপূর্ণ পোস্টগুলো মুছে ফেলেছেন নোবেল। বৃহস্পতিবার চাঁদ রাত থেকে এসব বির্তকিত স্ট্যাটাস নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় তোলপাড় চলছিল।

যদিও পেজ আদৌ হ্যাকারের কবলে পড়েছিল কি না- তা নিয়ে সন্দেহ রয়েছে অনেকের।

কারণ পেজটি কীভাবে উদ্ধারে সক্ষম হলেন তিনি সে বিষয়ে বিস্তারিত জানাতে রাজি হননি নোবেল। যে কারণে সংগীতপ্রেমীদের মাঝে দানা বাঁধা সন্দেহ আরো জমাট হয়েছে।

কিন্তু পোস্টগুলো ‘নোবেল ম্যান’ পেজে আর না দেখে নেটিজেনরা যখন স্বস্তিতে তখনই ফের কুরুচিপূর্ণ নতুন একটি পোস্ট ভেসে এলো সেখানে।

এবারের পোস্টটি তার গান ‘অভিনয়’ও ‘মেহেরবান’ -এর সংগীত পরিচালক আহমেদ হুমায়ূনকে নিয়ে করেছেন নোবেল।

সেই পোস্টে এই সংগীত পরিচালককে ইচ্ছেমতো ধুয়ে দিয়ে তার ব্যক্তিগত বিষয়ও টানেহিঁচড়ে এনেছেন। নানাভাবে কটাক্ষ করে সংগীত পরিচালককে অপমানের চেষ্টা করেছেন নোবেল।

পোস্টের সঙ্গে দুটো মেসেজের স্ক্রিনশটও জুড়ে দিয়েছেন নোবেল। দাবি করেছেন, এ দুটো মেসেজ সংগীত পরিচালক আহমেদ হুমায়ূন তাকে লিখেছে। এছাড়াও আহমেদ হুমায়ূনকে মামলার হুমকি দিয়েছেন নোবেল।

পাঠকের উদ্দেশে আহমেদ হুমায়ূনকে নিয়ে লেখা নোবেলের স্ট্যাটাসটি দেওয়া গেল -

‘হায়রে হুমায়ূন! তুমি জানি কে? কোনো দিন তো তোমার নামও শুনি নাই আগে! তিনবার রিজেক্ট করার পর হাতে পায়ে ধরে ‘অভিনয়’ গাওয়াইছো! তাও আবার ৯ লাখ টাকা খরচ করে। জীবনে ৬০০ গান করছো! পরে শুনে দেখলাম, অর্ধেকের বেশী গানের সুর নকল! হাহাহা!!’

নোবেল লিখেছেন, ‘কিং খান’ থেকে শুরু করে ডিরেক্টর ‘ইফতেখার চৌধুরী’ সবার সাথেই কাজ করছো। ভালো কথা। তবুও একটা হিট গানের নাম জিজ্ঞাস করলে এক বাক্যে বলতে বাধ্য তুমি! বলো তো কি গান? অভিনয়! তাইনা ছোটো ভাই? ১৮ বছরের ক্যারিয়ারে করছোটা কি তুমি?! সেই নোবেলকে তুমি বাপ তুলে গালি দাও?!

এরপর নোবেল ব্যক্তিগত বিষয় টেনে এনে আপত্তিকর কথা লিখেছেন, ‘কত বড় অকৃতজ্ঞ মানুষ তুমি! তোমার কত মাসের বাড়িভাড়া দিছি আমি, ভুলে গেছো? ব্যাপার না। গরীবদের দান করতে আমি ভালোবাসি। নিজে তো অভাবে পড়ে রাজশাহী ভাগছো ঘটিবাটি নিয়ে। বউও ভাগছে অন্য পোলার সাথে। গাড়িটাও নিয়ে গেছে। তোমার পুরুষত্ব নিয়ে প্রশ্ন আছে আমার! ‘মেহেরবান’ গানের ৫০% সুর-সঙ্গীত আমার করা লাগছে। তুমি নিজে স্বীকার করেছো হুমায়ূন! মামলা খাওয়ার জন্য রেডি থাকো! Screenshot দিয়ে দিলাম! সবাই দেখো, কি নোংরা কথা বলছে আমাকে!’

এদিকে ‘অভিনয়’ও ‘মেহেরবান’গানে সংগীত পরিচালক আহমেদ হুমায়ূনের ওপর কেন এতো ক্ষেপলেন নোবেল সে বিষয়ে কিছুই জানা যায়নি।

এবার ‘অভিনয়’ গানের পরিচালককে নিয়ে নোবেলের পেজে ‘কুরুচিপূর্ণ’ স্ট্যাটাস

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
১৫ মে ২০২১, ০৯:১৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

‘হ্যাকড’ হওয়ার দুদিনের মধ্যেই ‘উদ্ধার’ হয়েছে তরুণ উঠতি গায়ক মাঈনুল ইসলাম নোবেলের ফেসবুক পেজ ‘নোবেল ম্যান’। এমনটাই দাবি এই কণ্ঠশিল্পীর। 

বেহাত পেজ নিজের নিয়ন্ত্রণে নেওয়ার পর পরই জেমস, ইথুন বাবু, তাপসকে নিয়ে লেখা কুরুচিপূর্ণ পোস্টগুলো মুছে ফেলেছেন নোবেল। বৃহস্পতিবার চাঁদ রাত থেকে এসব বির্তকিত স্ট্যাটাস নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় তোলপাড় চলছিল।

যদিও পেজ আদৌ হ্যাকারের কবলে পড়েছিল কি না- তা নিয়ে সন্দেহ রয়েছে অনেকের। 

কারণ পেজটি কীভাবে উদ্ধারে সক্ষম হলেন তিনি সে বিষয়ে বিস্তারিত জানাতে রাজি হননি নোবেল। যে কারণে সংগীতপ্রেমীদের মাঝে দানা বাঁধা সন্দেহ আরো জমাট হয়েছে।

কিন্তু পোস্টগুলো ‘নোবেল ম্যান’ পেজে আর না দেখে নেটিজেনরা যখন স্বস্তিতে তখনই ফের কুরুচিপূর্ণ নতুন একটি পোস্ট ভেসে এলো সেখানে।

এবারের পোস্টটি তার গান ‘অভিনয়’ও ‘মেহেরবান’ -এর সংগীত পরিচালক আহমেদ হুমায়ূনকে নিয়ে করেছেন নোবেল।

সেই পোস্টে এই সংগীত পরিচালককে ইচ্ছেমতো ধুয়ে দিয়ে তার ব্যক্তিগত বিষয়ও টানেহিঁচড়ে এনেছেন। নানাভাবে কটাক্ষ করে সংগীত পরিচালককে অপমানের চেষ্টা করেছেন নোবেল।

পোস্টের সঙ্গে দুটো মেসেজের স্ক্রিনশটও জুড়ে দিয়েছেন নোবেল। দাবি করেছেন, এ দুটো মেসেজ সংগীত পরিচালক আহমেদ হুমায়ূন তাকে লিখেছে। এছাড়াও আহমেদ হুমায়ূনকে মামলার হুমকি দিয়েছেন নোবেল।

পাঠকের উদ্দেশে আহমেদ হুমায়ূনকে নিয়ে লেখা নোবেলের স্ট্যাটাসটি দেওয়া গেল -

‘হায়রে হুমায়ূন! তুমি জানি কে? কোনো দিন তো তোমার নামও শুনি নাই আগে! তিনবার রিজেক্ট করার পর হাতে পায়ে ধরে ‘অভিনয়’ গাওয়াইছো! তাও আবার ৯ লাখ টাকা খরচ করে। জীবনে ৬০০ গান করছো! পরে শুনে দেখলাম, অর্ধেকের বেশী গানের সুর নকল! হাহাহা!!’

নোবেল লিখেছেন, ‘কিং খান’ থেকে শুরু করে ডিরেক্টর ‘ইফতেখার চৌধুরী’ সবার সাথেই কাজ করছো। ভালো কথা। তবুও একটা হিট গানের নাম জিজ্ঞাস করলে এক বাক্যে বলতে বাধ্য তুমি! বলো তো কি গান? অভিনয়! তাইনা ছোটো ভাই? ১৮ বছরের ক্যারিয়ারে করছোটা কি তুমি?! সেই নোবেলকে তুমি বাপ তুলে গালি দাও?! 

এরপর নোবেল ব্যক্তিগত বিষয় টেনে এনে আপত্তিকর কথা লিখেছেন, ‘কত বড় অকৃতজ্ঞ মানুষ তুমি! তোমার কত মাসের বাড়িভাড়া দিছি আমি, ভুলে গেছো? ব্যাপার না। গরীবদের দান করতে আমি ভালোবাসি। নিজে তো অভাবে পড়ে রাজশাহী ভাগছো ঘটিবাটি নিয়ে। বউও ভাগছে অন্য পোলার সাথে। গাড়িটাও নিয়ে গেছে। তোমার পুরুষত্ব নিয়ে প্রশ্ন আছে আমার! ‘মেহেরবান’ গানের ৫০% সুর-সঙ্গীত আমার করা লাগছে। তুমি নিজে স্বীকার করেছো হুমায়ূন! মামলা খাওয়ার জন্য রেডি থাকো! Screenshot দিয়ে দিলাম! সবাই দেখো, কি নোংরা কথা বলছে আমাকে!’ 

এদিকে ‘অভিনয়’ও ‘মেহেরবান’গানে সংগীত পরিচালক আহমেদ হুমায়ূনের ওপর কেন এতো ক্ষেপলেন নোবেল সে বিষয়ে কিছুই জানা যায়নি। 

 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন