জমে উঠেছে চঞ্চল-মৌসুমী হামিদের ‘মুঘল ফ্যামিলি’
jugantor
জমে উঠেছে চঞ্চল-মৌসুমী হামিদের ‘মুঘল ফ্যামিলি’

  বিনোদন প্রতিবেদন  

২৬ জুলাই ২০২১, ০৪:২৪:৩৫  |  অনলাইন সংস্করণ

চঞ্চল চৌধুরী ও মৌসুমী হামিদ।

অন্যান্য ঈদের মতো এই ঈদেও প্রায় প্রতিটি টিভি চ্যানেলেই একক নাটকের পাশাপাশি ঈদ ধারাবাহিক নাটকও প্রচার হচ্ছে। এখন পর্যন্ত এর মধ্যে বেশ কিছু নাটক দর্শকপ্রিয়ও হচ্ছে। তেমনই একটি নাটক ‘মুঘল ফ্যামিলি’।

বৃন্দাবন দাসের রচনায় এটি পরিচালনা করেছেন দীপু হাজরা। নাটকটি ঈদের দিন থেকে বিকাল ৪টা ৩০ মিনিটে প্রচার হচ্ছে বাংলাভিশনে। নাটকটির কেন্দ্রীয় দুটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন চঞ্চল চৌধুরী ও মৌসুমী হামিদ।

গল্পে দেখা যায়- উত্তরবঙ্গের গ্রামের মোটামুটি সচ্ছল একটি পরিবারকে ঘিরে ধারাবাহিকের গল্প এগিয়ে যাবে। পরিবারটির সদস্যরা নিজেদের গ্রামের আর সব মানুষের চাইতে আলাদা শ্রেণির মনে করে। আধুনিক শহুরে জীবনযাপনের আপ্রাণ চেষ্টা তাদের। এমনকি গ্রামের আঞ্চলিক ভাষায় কথাও বলতে চায় না তারা। শুদ্ধভাষায় কথা বলার চেষ্টা করে; তবে তা প্রায়ই অপভ্রংশ হয়। তাদের এসব কর্মকাণ্ড গ্রামের মানুষের কাছে পছন্দ হয় না। তাই বিদ্রূপ করে এই পরিবারের নাম দিয়েছে ‘মুঘল ফ্যামিলি’। আড়ালে এ পরিবারের লোকজনকে নিয়ে মানুষ হাসাহাসিও করে।

এতে অভিনয় প্রসঙ্গে মৌসুমী হামিদ বলেন, ঈদের নাটকে অভিনয় করতে সব সময়ই ভালো লাগে। এ নাটকটির গল্প বেশ ভালো ছিল। তাছাড়া সহশিল্পীরাও অভিজ্ঞ ও জনপ্রিয়। এদিকে দর্শকও নাটকটি আগ্রহ নিয়েই দেখছেন। সব মিলিয়ে নাটকটি আমার ভালো লেগেছে।

চঞ্চল চৌধুরী বলেন, বৃন্দাবন দাস রচিত নাটকে আগেও অসংখ্যবার অভিনয় করেছি। সেগুলোও দর্শকের কাছে প্রশংসিত ছিল। এই নাটকটিও দর্শকের কাছে সাড়া জাগিয়েছে।

জমে উঠেছে চঞ্চল-মৌসুমী হামিদের ‘মুঘল ফ্যামিলি’

 বিনোদন প্রতিবেদন 
২৬ জুলাই ২০২১, ০৪:২৪ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
চঞ্চল চৌধুরী ও মৌসুমী হামিদ।
চঞ্চল চৌধুরী ও মৌসুমী হামিদ

অন্যান্য ঈদের মতো এই ঈদেও প্রায় প্রতিটি টিভি চ্যানেলেই একক নাটকের পাশাপাশি ঈদ ধারাবাহিক নাটকও প্রচার হচ্ছে। এখন পর্যন্ত এর মধ্যে বেশ কিছু নাটক দর্শকপ্রিয়ও হচ্ছে। তেমনই একটি নাটক ‘মুঘল ফ্যামিলি’।

বৃন্দাবন দাসের রচনায় এটি পরিচালনা করেছেন দীপু হাজরা। নাটকটি ঈদের দিন থেকে বিকাল ৪টা ৩০ মিনিটে প্রচার হচ্ছে বাংলাভিশনে। নাটকটির কেন্দ্রীয় দুটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন চঞ্চল চৌধুরী ও মৌসুমী হামিদ।

গল্পে দেখা যায়- উত্তরবঙ্গের গ্রামের মোটামুটি সচ্ছল একটি পরিবারকে ঘিরে ধারাবাহিকের গল্প এগিয়ে যাবে। পরিবারটির সদস্যরা নিজেদের গ্রামের আর সব মানুষের চাইতে আলাদা শ্রেণির মনে করে। আধুনিক শহুরে জীবনযাপনের আপ্রাণ চেষ্টা তাদের। এমনকি গ্রামের আঞ্চলিক ভাষায় কথাও বলতে চায় না তারা। শুদ্ধভাষায় কথা বলার চেষ্টা করে; তবে তা প্রায়ই অপভ্রংশ হয়। তাদের এসব কর্মকাণ্ড গ্রামের মানুষের কাছে পছন্দ হয় না। তাই বিদ্রূপ করে এই পরিবারের নাম দিয়েছে ‘মুঘল ফ্যামিলি’। আড়ালে এ পরিবারের লোকজনকে নিয়ে মানুষ হাসাহাসিও করে।

এতে অভিনয় প্রসঙ্গে মৌসুমী হামিদ বলেন, ঈদের নাটকে অভিনয় করতে সব সময়ই ভালো লাগে। এ নাটকটির গল্প বেশ ভালো ছিল। তাছাড়া সহশিল্পীরাও অভিজ্ঞ ও জনপ্রিয়। এদিকে দর্শকও নাটকটি আগ্রহ নিয়েই দেখছেন। সব মিলিয়ে নাটকটি আমার ভালো লেগেছে।

চঞ্চল চৌধুরী বলেন, বৃন্দাবন দাস রচিত নাটকে আগেও অসংখ্যবার অভিনয় করেছি। সেগুলোও দর্শকের কাছে প্রশংসিত ছিল। এই নাটকটিও দর্শকের কাছে সাড়া জাগিয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন