মডেল ‘মৌ’ আটকের সংবাদ দেখে ঘাবড়ে গিয়েছিলেন অভিনেত্রী শাহনাজ খুশি
jugantor
মডেল ‘মৌ’ আটকের সংবাদ দেখে ঘাবড়ে গিয়েছিলেন অভিনেত্রী শাহনাজ খুশি

  স্পোর্টস ডেস্ক  

০৩ আগস্ট ২০২১, ০০:৪৮:৪৮  |  অনলাইন সংস্করণ

বহুল আলোচিত দুই মডেল ফারিয়া মাহাবুব পিয়াসা এবং মরিয়ম আক্তার মৌকে আটক করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

উচ্চবিত্ত পরিবারের সন্তানদের পার্টির নামে বাসায় ডেকে আপত্তিকর ভিডিও ধারণ করে ব্ল্যাকমেইল করতেন বলে এ দুই মডেলের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে। তাদের বাসা থেকে বিদেশি মদ, ইয়াবা ও সিসা জব্দ করেছেন ডিবির কর্মকর্তা।

আলোচিত দুই মডেলের কর্মকাণ্ড নিয়ে রোববার রাত থেকেই গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ হচ্ছে।

সেসব সংবাদ দেখে প্রথমে ঘাবড়ে গিয়েছিলেন ছোটপর্দার সুপরিচিত অভিনেত্রী শাহনাজ খুশি।

এ নিয়ে নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে দীর্ঘ স্ট্যাটাস দিয়েছেন খুশি।

তার বক্তব্য, কোনো বিজ্ঞাপনচিত্রে নিজেকে দেখাতে পারলেই সে মডেল বা অভিনেত্রী হয়ে যায় না। ইদানীং অনেক সুদর্শিনীকে দেখা মেলে যারা প্রকৃতপক্ষে অভিনয়শিল্পীর কাতারে পড়েন না। তারা তাদের সোশ্যাল মিডিয়া প্রোফাইলে মডেল-অভিনেত্রী লিখে দেয়।

এই ধরনের তথাকথিত মডেল-অভিনেত্রীর ব্যক্তিগত উশৃঙ্খলাতাকে প্রচার করার পক্ষে নন এই জনপ্রিয় অভিনেত্রী।

সোমবার অভিনেত্রী শাহনাজ খুশি ফেসবুকে লেখেন, ‘আজ সকালে মডেল ‘মৌ’ দেখে রীতিমতো ঘাবড়ে গেলাম! কারণ মডেল মৌ বলতে সারা দেশের মানুষ সাদিয়া ইসলাম মৌকেই জানে। অভিনেত্রী থানায়, দেখে কুণ্ঠিত হয়ে যায়! বার বার একই হেডিংয়ে বিব্রত হতে হয়, অভিনয় এবং মডেলিং পেশায় থাকা মানুষের পরিবারগুলোকে! কারো ব্যক্তিগত উশৃঙ্খলাতাকে এত প্রচার করারই বা কি আছে? তাও কিনা যখন দেশে প্রতিদিন গড়ে ২৩০ থেকে ২৪০ জন মানুষ মারা যাচ্ছে! অ্যাম্বুলেন্সগুলোর বিরামহীন লাশ এবং রোগী টানার সাইরেনে কাতর হচ্ছে সমগ্র সারা শহর, গ্রাম!’

খুশির মতে, ‘ডেংগুসহ চিকিৎসা ব্যবস্থার নানা সীমাবদ্ধতা নিয়ে দিশেহারা সারাদেশের মানুষ! প্রিয়জন হারিয়ে শান্ত্বনার জায়গা নাই কারো! মৃত্যু এখন সংখ্যা শুধু! সেখানে প্রহসনের এই নিউজগুলো ফলাও করবার কি এত প্রয়োজন আছে? ব্যক্তিগতভাবে আমার বেশি খারাপ লাগে এটা ভেবে যে, ইন্টানেটের কারণে সারা দুনিয়া জানছে এ কথা। সে হোক কোন ক্রিকেটার, মডেল, অভিনেত্রী, ব্যাংকার অথবা গৃহবধূ‼ সব তো এই ছোট, অসুস্থ দেশটার ক্ষুদ্রাতিক্ষুদ্র অংশ।’

মডেল ‘মৌ’ আটকের সংবাদ দেখে ঘাবড়ে গিয়েছিলেন অভিনেত্রী শাহনাজ খুশি

 স্পোর্টস ডেস্ক 
০৩ আগস্ট ২০২১, ১২:৪৮ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বহুল আলোচিত দুই মডেল ফারিয়া মাহাবুব পিয়াসা এবং মরিয়ম আক্তার মৌকে আটক করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

উচ্চবিত্ত পরিবারের সন্তানদের পার্টির নামে বাসায় ডেকে আপত্তিকর ভিডিও ধারণ করে ব্ল্যাকমেইল করতেন বলে এ দুই মডেলের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে। তাদের বাসা থেকে বিদেশি মদ, ইয়াবা ও সিসা জব্দ করেছেন ডিবির কর্মকর্তা।

আলোচিত দুই মডেলের কর্মকাণ্ড নিয়ে রোববার রাত থেকেই গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ হচ্ছে।

সেসব সংবাদ দেখে প্রথমে ঘাবড়ে গিয়েছিলেন ছোটপর্দার সুপরিচিত অভিনেত্রী শাহনাজ খুশি।

এ  নিয়ে নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে দীর্ঘ স্ট্যাটাস দিয়েছেন খুশি।

তার বক্তব্য, কোনো বিজ্ঞাপনচিত্রে নিজেকে দেখাতে পারলেই সে মডেল বা অভিনেত্রী হয়ে যায় না। ইদানীং অনেক সুদর্শিনীকে দেখা মেলে যারা প্রকৃতপক্ষে অভিনয়শিল্পীর কাতারে পড়েন না। তারা তাদের সোশ্যাল মিডিয়া প্রোফাইলে মডেল-অভিনেত্রী লিখে দেয়।

এই ধরনের তথাকথিত মডেল-অভিনেত্রীর ব্যক্তিগত উশৃঙ্খলাতাকে প্রচার করার পক্ষে নন এই জনপ্রিয় অভিনেত্রী।

সোমবার অভিনেত্রী শাহনাজ খুশি ফেসবুকে লেখেন, ‘আজ সকালে মডেল ‘মৌ’ দেখে রীতিমতো ঘাবড়ে গেলাম! কারণ মডেল মৌ বলতে সারা দেশের মানুষ সাদিয়া ইসলাম মৌকেই জানে। অভিনেত্রী থানায়, দেখে কুণ্ঠিত হয়ে যায়! বার বার একই হেডিংয়ে বিব্রত হতে হয়, অভিনয় এবং মডেলিং পেশায় থাকা মানুষের পরিবারগুলোকে! কারো ব্যক্তিগত উশৃঙ্খলাতাকে এত প্রচার করারই বা কি আছে? তাও কিনা যখন দেশে প্রতিদিন গড়ে ২৩০ থেকে ২৪০ জন মানুষ মারা যাচ্ছে! অ্যাম্বুলেন্সগুলোর বিরামহীন লাশ এবং রোগী টানার সাইরেনে কাতর হচ্ছে সমগ্র সারা শহর, গ্রাম!’

খুশির মতে, ‘ডেংগুসহ চিকিৎসা ব্যবস্থার নানা সীমাবদ্ধতা নিয়ে দিশেহারা সারাদেশের মানুষ! প্রিয়জন হারিয়ে শান্ত্বনার জায়গা নাই কারো! মৃত্যু এখন সংখ্যা শুধু! সেখানে প্রহসনের এই নিউজগুলো ফলাও করবার কি এত প্রয়োজন আছে? ব্যক্তিগতভাবে আমার বেশি খারাপ লাগে এটা ভেবে যে, ইন্টানেটের কারণে সারা দুনিয়া জানছে এ কথা। সে হোক কোন ক্রিকেটার, মডেল, অভিনেত্রী, ব্যাংকার অথবা গৃহবধূ‼ সব তো এই ছোট, অসুস্থ দেশটার ক্ষুদ্রাতিক্ষুদ্র অংশ।’

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন