বাংলাদেশি সাংস্কৃতিক দলের প্রথম মেক্সিকো সফর
jugantor
বাংলাদেশি সাংস্কৃতিক দলের প্রথম মেক্সিকো সফর

  বিনোদন প্রতিবেদন  

০১ অক্টোবর ২০২১, ০৫:১২:০৩  |  অনলাইন সংস্করণ

প্রথমবার বাংলাদেশের একটি সাংস্কৃতিক দল গত ২৫ সেপ্টেম্বর মেক্সিকোতে গেছে।

মেক্সিকান সরকারের আমন্ত্রণে ১৪ সদস্যের এ দলে নৃত্যশিল্পী শিবলী মোহাম্মদ ও শামীম আরা নীপা এবং লোকসংগীতের দুই বিশিষ্ট শিল্পী ফকির শাহাবুদ্দিন ও অনিমা মুক্তি গমেজ রয়েছেন।

এই সাংস্কৃতিক দলের দলনেতা সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের উপসচিব ড. ললিতা রানী বর্মন এবং সমন্বয়ক বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির সচিব মো. আছাদুজ্জামান।

মেক্সিকোর ভেরাক্রুজের কর্ডোভা শহরে গত ২৮ সেপ্টেম্বর প্রথম শো এবং ২৯ সেপ্টেম্বরে দ্বিতীয় শো অনুষ্ঠিত হয়।

জানা যায়, বাংলাদেশের লোকসংগীত ও নৃত্যানুষ্ঠানে আমন্ত্রিত দর্শক শ্রোতা মুগ্ধতার সঙ্গে উপভোগ করেছে পরিবেশনা। কর্ডোভার সিটি মেয়র সাংস্কৃতিক দলকে প্রশংসাপত্র প্রদান করেন। অনুষ্ঠান শেষে সে দেশের কর্তৃপক্ষ সাংস্কৃতিক দলের সঙ্গে ফটোসেশন করে।

উল্লেখ্য, মেক্সিকো স্বাধীনতার ২০০ বছর পূর্তি উদযাপন, দখলদার সেনা কর্তৃক মেক্সিকো দখলের ৫০০ বছর এবং মেক্সিকো সিটির ৭০০ বছর উপলক্ষ্যে মেক্সিকান প্রেসিডেন্ট কর্তৃক বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আমন্ত্রণের পরিপ্রেক্ষিতে সরকার ওই সাংস্কৃতিক দলকে প্রেরণ করে। একই উদ্দেশে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর একটি দলও মেক্সিকো গিয়েছিল সেপ্টেম্বরের দ্বিতীয় সপ্তাহে।

বাংলাদেশি সাংস্কৃতিক দলের প্রথম মেক্সিকো সফর

 বিনোদন প্রতিবেদন 
০১ অক্টোবর ২০২১, ০৫:১২ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

প্রথমবার বাংলাদেশের একটি সাংস্কৃতিক দল গত ২৫ সেপ্টেম্বর মেক্সিকোতে গেছে।

মেক্সিকান সরকারের আমন্ত্রণে ১৪ সদস্যের এ দলে নৃত্যশিল্পী শিবলী মোহাম্মদ ও শামীম আরা নীপা এবং লোকসংগীতের দুই বিশিষ্ট শিল্পী ফকির শাহাবুদ্দিন ও অনিমা মুক্তি গমেজ রয়েছেন।

এই সাংস্কৃতিক দলের দলনেতা সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের উপসচিব ড. ললিতা রানী বর্মন এবং সমন্বয়ক বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির সচিব মো. আছাদুজ্জামান।

মেক্সিকোর ভেরাক্রুজের কর্ডোভা শহরে গত ২৮ সেপ্টেম্বর প্রথম শো এবং ২৯ সেপ্টেম্বরে দ্বিতীয় শো অনুষ্ঠিত হয়।

জানা যায়, বাংলাদেশের লোকসংগীত ও নৃত্যানুষ্ঠানে আমন্ত্রিত দর্শক শ্রোতা মুগ্ধতার সঙ্গে উপভোগ করেছে পরিবেশনা। কর্ডোভার সিটি মেয়র সাংস্কৃতিক দলকে প্রশংসাপত্র প্রদান করেন। অনুষ্ঠান শেষে সে দেশের কর্তৃপক্ষ সাংস্কৃতিক দলের সঙ্গে ফটোসেশন করে।

উল্লেখ্য, মেক্সিকো স্বাধীনতার ২০০ বছর পূর্তি উদযাপন, দখলদার সেনা কর্তৃক মেক্সিকো দখলের ৫০০ বছর এবং মেক্সিকো সিটির ৭০০ বছর উপলক্ষ্যে মেক্সিকান প্রেসিডেন্ট কর্তৃক বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আমন্ত্রণের পরিপ্রেক্ষিতে সরকার ওই সাংস্কৃতিক দলকে প্রেরণ করে। একই উদ্দেশে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর একটি দলও মেক্সিকো গিয়েছিল সেপ্টেম্বরের দ্বিতীয় সপ্তাহে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন