আদালতে এসে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন পরীমনি
jugantor
আদালতে এসে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন পরীমনি

  স্পোর্টস ডেস্ক  

১০ অক্টোবর ২০২১, ১৬:১৮:২৩  |  অনলাইন সংস্করণ

আদালতে হাজিরা দিতে এসে অসুস্থ হয়ে পড়লেন পরীমনি

বনানী থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের মামলায় জামিন নিতে আদালতে হাজির হয়েছিলেন ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় নায়িকা পরীমনি ও তার দুই সহযোগী। জামিনও পেয়েছেন তিনি। এর আগে আদালতে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন এই নায়িকা।

রোববার ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট সত্যব্রত শিকদারের আদালত তাদের জামিনের আদেশ দেন।

সূত্র জানায়, দুপুর ১টা ৪০ মিনিটে আদালতে আসেন পরীমনি। ছয়তলা সিঁড়ি বেয়ে উঠতে গিয়ে হাঁপিয়ে উঠেন। শুনানির শেষ পর্যায়ে ক্লান্তিতে আদালত কক্ষে এজলাসের ভেতরেই শুয়ে পড়েন তিনি। পরে কর্মরত আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা ভিড় সরিয়ে পরীমনিকে তার গাড়িতে তুলে দেন।

তবে হাজিরা দিতে এসে আদালত প্রাঙ্গণে অসুস্থ হয়ে পড়েন এ নায়িকা। শুনানি শেষে তাকে অসুস্থ অবস্থায় তার ব্যবহৃত গাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

গত ৩১ আগস্ট ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কে এম ইমরুল কায়েশ শুনানি শেষে পরীমনির জামিন মঞ্জুর করেন। পরদিন গাজীপুরের কাশিমপুর কেন্দ্রীয় মহিলা কারাগার থেকে মুক্ত হন এ তিনি।

গত ৪ অক্টোবর মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডির পরিদর্শক কাজী মোস্তফা কামাল আদালতে পরীমনিসহ তিনজনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। অভিযুক্ত অন্য দুজন হলেন আশরাফুল ইসলাম দিপু ও কবির হোসেন। প্রতিবেদন দাখিলের পর আজ তিনি আইনজীবীর মাধ্যমে স্থায়ী জামিনের আবেদন করেন।

প্রসঙ্গত, গত ৪ আগস্ট অভিযান চালিয়ে পরীমনিকে তার বনানীর বাসা থেকে আটক করে র্যা পিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র্যা ব)। সময় তার বাসা থেকে বিভিন্ন ধরনের মাদকদ্রব্য জব্দ করা হয় বলে জানানো হয়। পরদিন ৫ আগস্ট বিকেলে পরীমনি, চলচ্চিত্র প্রযোজক রাজ ও তাদের দুই সহযোগীকে কালো একটি মাইক্রোবাসে বনানী থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। এ

পরে র‌্যাব-১ বাদী হয়ে মাদক আইনে পরীমনির বিরুদ্ধে মামলা করে। ৩১ আগস্ট ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কেএম ইমরুল কায়েশের আদালত ৫০ হাজার টাকার মুচলেকায় পরীমনির জামিন মঞ্জুর করেন।

আদালতে এসে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন পরীমনি

 স্পোর্টস ডেস্ক 
১০ অক্টোবর ২০২১, ০৪:১৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
আদালতে হাজিরা দিতে এসে অসুস্থ হয়ে পড়লেন পরীমনি
ছবি: সংগৃহীত

বনানী থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের মামলায় জামিন নিতে আদালতে হাজির হয়েছিলেন ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় নায়িকা পরীমনি ও তার দুই সহযোগী। জামিনও পেয়েছেন তিনি। এর আগে আদালতে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন এই নায়িকা।

রোববার ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট সত্যব্রত শিকদারের আদালত তাদের জামিনের আদেশ দেন। 

সূত্র জানায়,  দুপুর ১টা ৪০ মিনিটে আদালতে আসেন পরীমনি।  ছয়তলা সিঁড়ি বেয়ে উঠতে গিয়ে হাঁপিয়ে উঠেন। শুনানির শেষ পর্যায়ে ক্লান্তিতে আদালত কক্ষে এজলাসের ভেতরেই শুয়ে পড়েন তিনি। পরে কর্মরত আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা ভিড় সরিয়ে পরীমনিকে তার গাড়িতে তুলে দেন।

তবে হাজিরা দিতে এসে আদালত প্রাঙ্গণে অসুস্থ হয়ে পড়েন এ নায়িকা। শুনানি শেষে তাকে অসুস্থ অবস্থায় তার ব্যবহৃত গাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

গত ৩১ আগস্ট ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কে এম ইমরুল কায়েশ শুনানি শেষে পরীমনির জামিন মঞ্জুর করেন। পরদিন গাজীপুরের কাশিমপুর কেন্দ্রীয় মহিলা কারাগার থেকে মুক্ত হন এ তিনি।

গত ৪ অক্টোবর মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডির পরিদর্শক কাজী মোস্তফা কামাল আদালতে পরীমনিসহ তিনজনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। অভিযুক্ত অন্য দুজন হলেন আশরাফুল ইসলাম দিপু ও কবির হোসেন। প্রতিবেদন দাখিলের পর আজ তিনি আইনজীবীর মাধ্যমে স্থায়ী জামিনের আবেদন করেন।

প্রসঙ্গত, গত ৪ আগস্ট অভিযান চালিয়ে পরীমনিকে তার বনানীর বাসা থেকে আটক করে র্যা পিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র্যা ব)। সময় তার বাসা থেকে বিভিন্ন ধরনের মাদকদ্রব্য জব্দ করা হয় বলে জানানো হয়। পরদিন ৫ আগস্ট বিকেলে পরীমনি, চলচ্চিত্র প্রযোজক রাজ ও তাদের দুই সহযোগীকে কালো একটি মাইক্রোবাসে বনানী থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। এ

পরে র‌্যাব-১ বাদী হয়ে মাদক আইনে পরীমনির বিরুদ্ধে মামলা করে।  ৩১ আগস্ট ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কেএম ইমরুল কায়েশের আদালত ৫০ হাজার টাকার মুচলেকায় পরীমনির জামিন মঞ্জুর করেন।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : পরীমনি কাণ্ড