সেই নিষিদ্ধ সিনেমা দেখতে হুমড়ি খেয়ে পড়ছে দর্শক
jugantor
সেই নিষিদ্ধ সিনেমা দেখতে হুমড়ি খেয়ে পড়ছে দর্শক

  বিনোদন ডেস্ক  

২৬ নভেম্বর ২০২১, ১৮:১৩:১৬  |  অনলাইন সংস্করণ

মামুন ও সিমলা

দুইবার সেন্সর বোর্ডে আবেদনে নিষিদ্ধ হয়েছে চিত্রনায়িকা সিমলা অভিনীত ‘নিষিদ্ধ প্রেমের গল্প’। এরপরই ছবিটির পরিচালক সিনেমাটি ইউটিউবে ছাড়ার ঘোষণা দেন। সে অনুযায়ী বৃহস্পতিবার লাইভ রেডিও নামক ইউটিউব চ্যানেলে মুক্তি পার ছবিটি।

অসম প্রেমের এই ছবিটি মুক্তি পাওয়ার পর দর্শক হুমড়ি খেয়ে পড়েছে। এরই মধ্যে ইউটিউবে রেকর্ড করতে যাচ্ছে ছবিটি। এরই মধ্যে সিনেমাটি ৭৫ হাজার মানুষ দেখেছে। ধারণা করা হচ্ছে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে লাখ ছাড়িয়ে যাবে ভিউ।

জানা গেছে, সিনেমাটির নাম পরিবর্তন করে সর্বশেষ ‘প্রেমকাহন’ নামে সেন্সর বোর্ডে জমা পড়েছিল। সেখানে বোর্ড সদস্যরা সর্বসাধারণের জন্য সিনেমা হলে প্রদর্শনের অনুপযুক্ত ঘোষণা করে। তবে পরিচালক রুবেল আনুশ সে আদেশের বিরুদ্ধে আপিল না করে ইউটিউবে মুক্তি দেন।

পরিচালক আনুশ বলেন, আশা তো ছিল সিনেমাটি মানুষদের সিনেমা হলে দেখাবো। এখন যেহেতু সেন্সর বোর্ডের বিজ্ঞ সদস্যরা ছাড়পত্র দিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে, তাই ইউটিউবে মুক্তি দিলাম। সেখানে যেভাবে দর্শকদের সাড়া পাচ্ছি, তা আমরা কেউই আশা করি নাই। আমরা তাদের কাছে কৃতজ্ঞ।

তিনি আরও বলেন, আমার কাছে মনে হয়েছে সেন্সর বোর্ডের আদেশের বিরুদ্ধে আপিল করে কোনো লাভ হবে না। আর আমরা ওটিটি প্ল্যাটফর্মে মুক্তি দিতে চেয়েছিলাম। কিন্তু কেউই সেন্সর ছাড়পত্র ছাড়া চালাতে রাজি নন। তাই এই পন্থায় মুক্তি দিলাম।

সিনেমায় নায়িকা সিমলার বিপরীতে ছিলেন ঘেটুপুত্র কমলা খ্যাত মামুন। ছবিটিতে অসম প্রেমের গল্প দেখানো হয়। অন্যদের মধ্যে অভিনয় করেছেন মনিরা মিঠু, সোহেল খান, মোহাম্মদ সালমান, নোভাই নোভিয়া, মুনমুন আহমেদ মুন, আকাশ মেহেদি, একে আজাদ সেতু, শিমুল খান প্রমুখ।

সেই নিষিদ্ধ সিনেমা দেখতে হুমড়ি খেয়ে পড়ছে দর্শক

 বিনোদন ডেস্ক 
২৬ নভেম্বর ২০২১, ০৬:১৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
মামুন ও সিমলা
ফাইল ছবি

দুইবার সেন্সর বোর্ডে আবেদনে নিষিদ্ধ হয়েছে চিত্রনায়িকা সিমলা অভিনীত ‘নিষিদ্ধ প্রেমের গল্প’। এরপরই ছবিটির পরিচালক সিনেমাটি ইউটিউবে ছাড়ার ঘোষণা দেন। সে অনুযায়ী বৃহস্পতিবার লাইভ রেডিও নামক ইউটিউব চ্যানেলে মুক্তি পার ছবিটি। 

অসম প্রেমের এই ছবিটি মুক্তি পাওয়ার পর দর্শক হুমড়ি খেয়ে পড়েছে। এরই মধ্যে ইউটিউবে রেকর্ড করতে যাচ্ছে ছবিটি। এরই মধ্যে সিনেমাটি ৭৫ হাজার মানুষ দেখেছে। ধারণা করা হচ্ছে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে লাখ ছাড়িয়ে যাবে ভিউ।

জানা গেছে, সিনেমাটির নাম পরিবর্তন করে সর্বশেষ ‘প্রেমকাহন’ নামে সেন্সর বোর্ডে জমা পড়েছিল। সেখানে বোর্ড সদস্যরা সর্বসাধারণের জন্য সিনেমা হলে প্রদর্শনের অনুপযুক্ত ঘোষণা করে। তবে পরিচালক রুবেল আনুশ সে আদেশের বিরুদ্ধে আপিল না করে ইউটিউবে মুক্তি দেন।

পরিচালক আনুশ বলেন, আশা তো ছিল সিনেমাটি মানুষদের সিনেমা হলে দেখাবো। এখন যেহেতু সেন্সর বোর্ডের বিজ্ঞ সদস্যরা ছাড়পত্র দিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে, তাই ইউটিউবে মুক্তি দিলাম। সেখানে যেভাবে দর্শকদের সাড়া পাচ্ছি, তা আমরা কেউই আশা করি নাই। আমরা তাদের কাছে কৃতজ্ঞ।

তিনি আরও বলেন, আমার কাছে মনে হয়েছে সেন্সর বোর্ডের আদেশের বিরুদ্ধে আপিল করে কোনো লাভ হবে না। আর আমরা ওটিটি প্ল্যাটফর্মে মুক্তি দিতে চেয়েছিলাম। কিন্তু কেউই সেন্সর ছাড়পত্র ছাড়া চালাতে রাজি নন। তাই এই পন্থায় মুক্তি দিলাম।

সিনেমায় নায়িকা সিমলার বিপরীতে ছিলেন ঘেটুপুত্র কমলা খ্যাত মামুন। ছবিটিতে অসম প্রেমের গল্প দেখানো হয়। অন্যদের মধ্যে অভিনয় করেছেন মনিরা মিঠু, সোহেল খান, মোহাম্মদ সালমান, নোভাই নোভিয়া, মুনমুন আহমেদ মুন, আকাশ মেহেদি, একে আজাদ সেতু, শিমুল খান প্রমুখ।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন