এফডিসিতে এসে কড়া হুঁশিয়ারি দিলেন হারুন
jugantor
এফডিসিতে এসে কড়া হুঁশিয়ারি দিলেন হারুন

  অনলাইন ডেস্ক  

১৮ জানুয়ারি ২০২২, ২১:৪৬:৫৭  |  অনলাইন সংস্করণ

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির আসন্ন নির্বাচনকে সামনে রেখে তারকা ও চলচ্চিত্র শিল্পীদের বিচরণ, আড্ডা-আলাপে মুখর হয়ে উঠেছে এফডিসি প্রাঙ্গণ। এ সুযোগে বহিরাগত বহু মানুষ এফডিসিতে প্রবেশ করে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির চেষ্টা করছে।

এরই পরিপ্রেক্ষিতে কড়া হুঁশিয়ারি দিয়েছেন ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (উত্তর) বিভাগের যুগ্ম-কমিশনার, অতিরিক্ত উপ-পুলিশ মহাপরিদর্শক হারুন-অর-রশীদ।

মঙ্গলবার (১৮ জানুয়ারি) এফডিসিতে এসে সার্বিক দিক পর্যবেক্ষণ করেন তিনি। এরপর সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে বলেন, নির্বাচনে দুইপক্ষের অভিযোগ ছিল এখানে এসে বহিরাগতরা মহড়া দিচ্ছে, মস্তানি করছে। নির্বাচনী পরিবেশ বানচালের চেষ্টা করছে। আমি নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে আলাপ করেছি। বহিরাগত অস্ত্রধারীদের ঠেকাতে প্রশাসন সহায়তা করবে বলে তাদের আশ্বস্ত করেছি।

শিল্পী সমিতির নির্বাচন ঘিরে যে ধরনের সহযোগিতা প্রয়োজন, সবই প্রশাসন থেকে করা হবে বলে জানিয়েছেন হারুন-অর-রশীদ। বুধবার থেকে কোনো বহিরাগত এফডিসিতে প্রবেশ করতে পারবে না। প্রবেশ করতে হলে বৈধ প্রবেশপত্র লাগবে। এমনকি নির্বাচনে গণমাধ্যম কর্মীদের প্রবেশের জন্যও কমিশন থেকে আলাদা পরিচয়পত্র প্রদান করা হবে বলে জানান তিনি।

উল্লেখ্য, আগামী ২৮ জানুয়ারি শিল্পী সমিতির দ্বিবার্ষিক নির্বাচন। এতে দুটি প্যানেল প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে। একটি প্যানেল গঠন করেছেন ইলিয়াস কাঞ্চন ও নিপুণ। অন্যটিতে রয়েছেন মিশা সওদাগর ও জায়েদ খান।

এবারের নির্বাচনে প্রধান নির্বাচন কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন পীরজাদা শহিদুল হারুন। তার সঙ্গে সদস্য হিসেবে থাকছেন বিএইচ নিশান ও বজলুর রশীদ চৌধুরী।

এফডিসিতে এসে কড়া হুঁশিয়ারি দিলেন হারুন

 অনলাইন ডেস্ক 
১৮ জানুয়ারি ২০২২, ০৯:৪৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির আসন্ন নির্বাচনকে সামনে রেখে তারকা ও চলচ্চিত্র শিল্পীদের বিচরণ, আড্ডা-আলাপে মুখর হয়ে উঠেছে এফডিসি প্রাঙ্গণ। এ সুযোগে বহিরাগত বহু মানুষ এফডিসিতে প্রবেশ করে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির চেষ্টা করছে।

এরই পরিপ্রেক্ষিতে কড়া হুঁশিয়ারি দিয়েছেন ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (উত্তর) বিভাগের যুগ্ম-কমিশনার, অতিরিক্ত উপ-পুলিশ মহাপরিদর্শক হারুন-অর-রশীদ।

মঙ্গলবার (১৮ জানুয়ারি) এফডিসিতে এসে সার্বিক দিক পর্যবেক্ষণ করেন তিনি। এরপর সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে বলেন, নির্বাচনে দুইপক্ষের অভিযোগ ছিল এখানে এসে বহিরাগতরা মহড়া দিচ্ছে, মস্তানি করছে। নির্বাচনী পরিবেশ বানচালের চেষ্টা করছে। আমি নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে আলাপ করেছি। বহিরাগত অস্ত্রধারীদের ঠেকাতে প্রশাসন সহায়তা করবে বলে তাদের আশ্বস্ত করেছি।

শিল্পী সমিতির নির্বাচন ঘিরে যে ধরনের সহযোগিতা প্রয়োজন, সবই প্রশাসন থেকে করা হবে বলে জানিয়েছেন হারুন-অর-রশীদ। বুধবার থেকে কোনো বহিরাগত এফডিসিতে প্রবেশ করতে পারবে না। প্রবেশ করতে হলে বৈধ প্রবেশপত্র লাগবে। এমনকি নির্বাচনে গণমাধ্যম কর্মীদের প্রবেশের জন্যও কমিশন থেকে আলাদা পরিচয়পত্র প্রদান করা হবে বলে জানান তিনি।

উল্লেখ্য, আগামী ২৮ জানুয়ারি শিল্পী সমিতির দ্বিবার্ষিক নির্বাচন। এতে দুটি প্যানেল প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে। একটি প্যানেল গঠন করেছেন ইলিয়াস কাঞ্চন ও নিপুণ। অন্যটিতে রয়েছেন মিশা সওদাগর ও জায়েদ খান।

এবারের নির্বাচনে প্রধান নির্বাচন কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন পীরজাদা শহিদুল হারুন। তার সঙ্গে সদস্য হিসেবে থাকছেন বিএইচ নিশান ও বজলুর রশীদ চৌধুরী।

 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন