তারকাদের ডিভোর্স নিয়ে কাদা ছোড়াছুড়ি কেন?
jugantor
তারকাদের ডিভোর্স নিয়ে কাদা ছোড়াছুড়ি কেন?

  বিনোদন ডেস্ক  

১৯ জানুয়ারি ২০২২, ১০:০৩:০৩  |  অনলাইন সংস্করণ

তারকাদের ডিভোর্স নিয়ে কাদা ছোড়াছুড়ি কেন?

গত বছর বলিউড ও টালিউডে বিচ্ছেদ হয়েছে বহু তারকার। এ তালিকায় আছেন আমির-কিরণ সামান্থা-নাগা, নুসরাত-নিখিল, শ্রাবন্তী-রোশনের মতো অনেক তারকার। এ বছরের শুরুতে ধানুশ ও ঐশ্বর্যের বিবাহবিচ্ছেদের খবর সামনে এসেছে। আর এ জুটিরা যখন একে অপরের থেকে আলাদা হওয়ার সিদ্ধান্ত নেন, তখন মন ভাঙে হাজার হাজার অনুরাগীর। এ বিষয় এবার মুখ খুললেন শ্রীলেখা মিত্র।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম দ্য হিন্দুস্তান টাইমসের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে— সবাই যখন তারকাদের এভাবে ঘর ভাঙায় মনে কষ্ট পাচ্ছেন, তখন পরামর্শ এলো বাঙালি অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্রের কাছ থেকে।

তারকাদের উদ্দেশে এ অভিনেত্রী সোশ্যাল মিডিয়ায় লিখেছেন— তারা যেন তাদের ব্যক্তিগত জীবন সবার সামনে আনা থেকে বিরত থাকেন। সঙ্গে বিচ্ছেদের পর একে অপরকে দোষ দেওয়া, একে অপরকে নিন্দেও যেন না করেন সবার সামনে।

তিনি আরও লিখেছেন— আমার একটা প্রশ্ন করার আছে তাদের কাছে, যারা তারকাদের নিয়ে গল্প করতে ভালোবাসেন, আমাদের কি সত্যি জীবন এত রঙিন যে, আপনারা চর্চা করেন? মানুষ তারকাদের ব্যাপারে তখন বেশি কথা বলেন, যখন তাদের ব্রেকআপ বা ডিভোর্স হয়। আর সেটি বেশি হয় যখন, তারা একে অপরের সমালোচনা শুরু করেন। ফলে লোক চর্চা করার বেশি উৎসাহ ও বিষয়বস্তু পেয়ে যান। মানুষ যা ইচ্ছে বলতে শুরু করেন, আর তার ফলে সস্তা রাজনীতি শুরু হয়ে যায়।

শ্রীলেখা তার পোস্টে আরও লিখেছেন— তিনি মনে করেন তারকারা নিজেরা চাইলে এগুলো বন্ধ করতে পারেন। তিনি তার সহকর্মী, তারকা বন্ধুদের অনুরোধ জানান, তারা যেন নিজেদের বিচ্ছেদের খবর এভাবে সবার সামনে ঘোষণা না করেন। এ ধরনের খবরকে যেন পাবলিক প্রপারটি না বানান।

প্রশ্ন তোলেন— কেন বিচ্ছেদের কথা সবাইকে জানাতে হবে? কেন সবাইকে জানাতে হবে বিচ্ছেদের কারণ?

অভিনেত্রীর মতে, ডিভোর্স হয়ে গেলেও বা ছাড়াছাড়ি হয়ে গেলেও উচিত ভালো ব্যাপারগুলো নিয়ে চর্চা করা। শ্রীলেখা আরও জানান, যেমনটি করে থাকেন তিনি ও তার সাবেক স্বামী। তাদের সেপারেশন হয়ে গেলেও কোনো দিন একে অপরের নামে খারাপ কথা বলেননি। এ কারণে তার মেয়ে একটি সুস্থ পরিবেশে বড় হয়ে উঠতে পারছে।

তারকাদের ডিভোর্স নিয়ে কাদা ছোড়াছুড়ি কেন?

 বিনোদন ডেস্ক 
১৯ জানুয়ারি ২০২২, ১০:০৩ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
তারকাদের ডিভোর্স নিয়ে কাদা ছোড়াছুড়ি কেন?
ছবি: সংগৃহীত

গত বছর বলিউড ও টালিউডে বিচ্ছেদ হয়েছে বহু তারকার। এ তালিকায় আছেন আমির-কিরণ সামান্থা-নাগা, নুসরাত-নিখিল, শ্রাবন্তী-রোশনের মতো অনেক তারকার। এ বছরের শুরুতে ধানুশ ও ঐশ্বর্যের বিবাহবিচ্ছেদের খবর সামনে এসেছে। আর এ জুটিরা যখন একে অপরের থেকে আলাদা হওয়ার সিদ্ধান্ত নেন, তখন মন ভাঙে হাজার হাজার অনুরাগীর। এ বিষয় এবার মুখ খুললেন শ্রীলেখা মিত্র।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম দ্য হিন্দুস্তান টাইমসের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে— সবাই যখন তারকাদের এভাবে ঘর ভাঙায় মনে কষ্ট পাচ্ছেন, তখন পরামর্শ এলো বাঙালি অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্রের কাছ থেকে।

তারকাদের উদ্দেশে এ অভিনেত্রী সোশ্যাল মিডিয়ায় লিখেছেন— তারা যেন তাদের ব্যক্তিগত জীবন সবার সামনে আনা থেকে বিরত থাকেন। সঙ্গে বিচ্ছেদের পর একে অপরকে দোষ দেওয়া, একে অপরকে নিন্দেও যেন না করেন সবার সামনে। 

তিনি আরও লিখেছেন— আমার একটা প্রশ্ন করার আছে তাদের কাছে, যারা তারকাদের নিয়ে গল্প করতে ভালোবাসেন, আমাদের কি সত্যি জীবন এত রঙিন যে, আপনারা চর্চা করেন? মানুষ তারকাদের ব্যাপারে তখন বেশি কথা বলেন, যখন তাদের ব্রেকআপ বা ডিভোর্স হয়। আর সেটি বেশি হয় যখন, তারা একে অপরের সমালোচনা শুরু করেন। ফলে লোক চর্চা করার বেশি উৎসাহ ও বিষয়বস্তু পেয়ে যান। মানুষ যা ইচ্ছে বলতে শুরু করেন, আর তার ফলে সস্তা রাজনীতি শুরু হয়ে যায়।

শ্রীলেখা তার পোস্টে আরও লিখেছেন— তিনি মনে করেন তারকারা নিজেরা চাইলে এগুলো বন্ধ করতে পারেন। তিনি তার সহকর্মী, তারকা বন্ধুদের অনুরোধ জানান, তারা যেন নিজেদের বিচ্ছেদের খবর এভাবে সবার সামনে ঘোষণা না করেন। এ ধরনের খবরকে যেন পাবলিক প্রপারটি না বানান।

প্রশ্ন তোলেন— কেন বিচ্ছেদের কথা সবাইকে জানাতে হবে? কেন সবাইকে জানাতে হবে বিচ্ছেদের কারণ?

অভিনেত্রীর মতে, ডিভোর্স হয়ে গেলেও বা ছাড়াছাড়ি হয়ে গেলেও উচিত ভালো ব্যাপারগুলো নিয়ে চর্চা করা। শ্রীলেখা আরও জানান, যেমনটি করে থাকেন তিনি ও তার সাবেক স্বামী। তাদের সেপারেশন হয়ে গেলেও কোনো দিন একে অপরের নামে খারাপ কথা বলেননি। এ কারণে তার মেয়ে একটি সুস্থ পরিবেশে বড় হয়ে উঠতে পারছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন