‘খবরটি জেনে যদি আমার মা হার্ট অ্যাটাকে মারা যায়’

  বিনোদন ডেস্ক ২৫ মে ২০১৮, ১৯:৪২ | অনলাইন সংস্করণ

বাপ্পা ও চাঁদনী
বাপ্পা ও চাঁদনী। ফাইল ছবি

সংগীতশিল্পী, সুরকার ও সংগীত পরিচালক বাপ্পা মজুমদারকে এক দশকের দাম্পত্য জীবনে প্রেমিক হিসেবে পাননি বলে দাবি করেছেন তার সাবেক স্ত্রী মেহবুবা মাহনুর চাঁদনী।

তানিয়া হোসাইনের সঙ্গে বাপ্পার বাগদানের পর নৃত্যশিল্পী-অভিনেত্রী চাঁদনী বললেন তাদের দাম্পত্য জীবন নিয়ে অসুখীর কথা।

তিনি বলেন, বাপ্পার সঙ্গে আমার কখনও প্রেম ছিল না, সেটেলড বিয়ে ছিল ওটা। আমি বাপ্পাকে ভালোবাসি, কিন্তু স্বামী হিসেবে প্রেমিক ছিল না সে আমার।

তানিয়া-বাপ্পার নতুন জীবনের শুভকামনাও জানিয়েছেন চাঁদনী।

তিনি বলেন, কোথাও না কোথাও মানুষ সুখ পেতেই চায়। আর সুখ যদি না পায় তাহলে মানুষের জীবন মানুষ বরবাদ করে দেয়। যেমন করছে অন্যরা।

গত কয়েক মাস ধরে বাপ্পা-চাঁদনীর মনোমালিন্য চলছিল বলে জানা গেছে তাদের ঘনিষ্ঠজনদের কাছে।

বাপ্পার বাসা থেকে কয়েকবার বাবার বাড়িতে গিয়ে উঠেছিলেন চাঁদনী। ক্রমেই দু’জনের মধ্যে বাড়তে থাকা দূরত্বে দেয়াল তুলে দিল বাগদানের খবরটি।

প্রায় এক মাস আগে বাবাকে হারিয়েছেন চাঁদনী। মেয়ের স্বামীর নতুন করে বিয়ের প্রস্তুতির খবর জানেন না চাঁদনীর মা।

চাঁদনী বলেন, খবরটি জেনে আমার মা যদি এখন হার্ট অ্যাটাক করে মারা যায়, তার কী হবে? আমি টুঁ শব্দ করিনি। সত্য একদিন খোলাসা হবেই। আমি অনেক সহ্য করে এসেছি।

চাঁদনীর সঙ্গে বাপ্পার আনুষ্ঠানিকভাবে বিয়েবিচ্ছেদ ঘটেছে কি না, তা এখনও জানা যায়নি। বিষয়টি নিয়ে কেউই কোনো তথ্য দেননি।

বাপ্পা মজুমদার এবং অভিনয়শিল্পী ও উপস্থাপিকা তানিয়া হোসাইনের আংটিবদলের খবর এরই মধ্যে সবাই জানেন। গত ১৬ মে রাতে ঘরোয়াভাবে তাদের আংটিবদল অনুষ্ঠান হয়। আংটিবদলের একটি ছবি ২০ মে রাতে তানিয়া হোসাইন তার ফেসবুক পেজে পোস্ট করেন। রাজধানীর পশ্চিম পান্থপথে তানিয়ার মায়ের বাসায় আংটিবদলের অনুষ্ঠান হয়।

এর আগে আংটিবদলের অনুষ্ঠানের পর বাপ্পা তার সাবেক স্ত্রী চাঁদনী ও বাগদত্তা তানিয়াকে নিয়ে মুখ খুলেছিলেন। ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাসে তিনি বলেছিলেন, চাঁদনীর প্রতি তার কোনো অভিযোগ নেই।

উল্লেখ্য, ২০১০ সালের ৩০ মার্চ চিত্র পরিচালক ও উপস্থাপক দেবাশীষ বিশ্বাস আর তানিয়া হোসাইন ভালোবেসে বিয়ে করেন। বিয়ের এক বছরের মাথায় তাদের বিবাহবিচ্ছেদ হয়।

অপরদিকে, বাপ্পা মজুমদার এবং অভিনয়শিল্পী ও নৃত্যশিল্পী চাঁদনী ভালোবেসে বিয়ে করেন ২০০৮ সালের ২১ মার্চ। দীর্ঘ নয় বছর সংসারজীবনের পর ছাড়াছাড়ি হয় তাদের।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter