জনি ডেপকে দেওয়ার মতো টাকা নেই অ্যাম্বারের কাছে
jugantor
জনি ডেপকে দেওয়ার মতো টাকা নেই অ্যাম্বারের কাছে

  বিনোদন ডেস্ক  

০৪ জুন ২০২২, ০৮:১৭:৪৮  |  অনলাইন সংস্করণ

‘পাইরেটস অব দ্য ক্যারিবিয়ান’খ্যাত অভিনেতা জনি ডেপের করা মানহানির মামলায় হেরে গেছেন অ্যাম্বার হার্ড। এ মামলায় অ্যাম্বারকে ১৫ মিলিয়ন ডলার জরিমানা করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের ভার্জিনিয়ার একটি আদালত।

কিন্তু অ্যাম্বারের এখন সেই টাকা দেয়ার ক্ষমতা নেই। অ্যাম্বারের আইনজীবী জানিয়েছেন, আর্থিক অবস্থা ভালো নয় অ্যাম্বারের।খবর লস অ্যাঞ্জেলস টাইমসের।

মাত্র ১৫ মাস সংসার করে ২০১৬ সালের মে মাসে বিচ্ছেদের আবেদন করেন হলিউড তরকা দম্পতি জনি ডেপ ও অ্যাম্বার হার্ড।

স্ত্রী আম্বারের অভিযোগ ছিল, জনি তাকে শারীরিক, মানসিক ও মৌখিকভাবে নির্যাতন করেছেন। ২০১৮ সালে সেই নির্যাতনের ঘটনা নিয়ে ওয়াশিংটন পোস্ট–এ একটি উপসম্পাদকীয় লেখেন অ্যাম্বার হার্ড।

স্বামীর হাতে নির্যাতনের শিকার হয়েছেন, পত্রিকায় এ নিয়ে নিবন্ধ লেখায় সাবেক স্ত্রীর নামে ৫০ মিলিয়ন ডলারের মানহানির মামলা করেন পাইরেটস অব দ্য ক্যারিবিয়ান তারকা জনি ডেপ।পরে হার্ড উল্টো ১০০ মিলিয়ন ডলার মানহানির মামলা করেন জনির বিরুদ্ধে।

ছয় সপ্তাহব্যাপী এই হাই-প্রোফাইল শুনানি শেষ হয় গত বুধবার। এরপর ভার্জিনিয়ার ফেয়ারফ্যাক্স কাউন্টি সার্কিট কোর্টে সাত-সদস্যের বিচারক প্যানেলের ঘোষিত রায়ে জয় হয় জনি ডেপের।

শুনানি চলার সময়ই জানা যায় অ্যাম্বার হার্ডের আর্থিক সমস্যার কথা। রায়ের পর অভিনেত্রীর আইনজীবী বলেন, হার্ড কোনোভাবেই ক্ষতিপূরণের অর্থ প্রদানে সক্ষম নন।

জনি ডেপকে দেওয়ার মতো টাকা নেই অ্যাম্বারের কাছে

 বিনোদন ডেস্ক 
০৪ জুন ২০২২, ০৮:১৭ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

‘পাইরেটস অব দ্য ক্যারিবিয়ান’খ্যাত অভিনেতা জনি ডেপের করা মানহানির মামলায় হেরে গেছেন অ্যাম্বার হার্ড। এ মামলায় অ্যাম্বারকে ১৫ মিলিয়ন ডলার জরিমানা করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের ভার্জিনিয়ার একটি আদালত। 

কিন্তু অ্যাম্বারের এখন সেই টাকা দেয়ার ক্ষমতা নেই। অ্যাম্বারের আইনজীবী জানিয়েছেন, আর্থিক অবস্থা ভালো নয় অ্যাম্বারের।খবর লস অ্যাঞ্জেলস টাইমসের। 

মাত্র ১৫ মাস সংসার করে ২০১৬ সালের মে মাসে বিচ্ছেদের আবেদন করেন হলিউড তরকা দম্পতি জনি ডেপ ও অ্যাম্বার হার্ড।

স্ত্রী আম্বারের অভিযোগ ছিল, জনি তাকে শারীরিক, মানসিক ও মৌখিকভাবে নির্যাতন করেছেন। ২০১৮ সালে সেই নির্যাতনের ঘটনা নিয়ে ওয়াশিংটন পোস্ট–এ একটি উপসম্পাদকীয় লেখেন অ্যাম্বার হার্ড।

স্বামীর হাতে নির্যাতনের শিকার হয়েছেন, পত্রিকায় এ নিয়ে নিবন্ধ লেখায় সাবেক স্ত্রীর নামে ৫০ মিলিয়ন ডলারের মানহানির মামলা করেন পাইরেটস অব দ্য ক্যারিবিয়ান তারকা জনি ডেপ।পরে হার্ড উল্টো ১০০ মিলিয়ন ডলার মানহানির মামলা করেন জনির বিরুদ্ধে। 

ছয় সপ্তাহব্যাপী এই হাই-প্রোফাইল শুনানি শেষ হয় গত বুধবার। এরপর ভার্জিনিয়ার ফেয়ারফ্যাক্স কাউন্টি সার্কিট কোর্টে সাত-সদস্যের বিচারক প্যানেলের ঘোষিত রায়ে জয় হয় জনি ডেপের।

শুনানি চলার সময়ই জানা যায় অ্যাম্বার হার্ডের আর্থিক সমস্যার কথা। রায়ের পর অভিনেত্রীর আইনজীবী বলেন, হার্ড কোনোভাবেই ক্ষতিপূরণের অর্থ প্রদানে সক্ষম নন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন