চঞ্চল চৌধুরীর ‘পিতা বনাম পুত্র’
jugantor
চঞ্চল চৌধুরীর ‘পিতা বনাম পুত্র’

  বিনোদন প্রতিবেদন  

০৩ আগস্ট ২০২২, ০২:৩৯:১৯  |  অনলাইন সংস্করণ

১ আগস্ট থেকে মাছরাঙা টেলিভিশনে শুরু হচ্ছে নতুন ধারাবাহিক নাটক ‘পিতা বনাম পুত্র গং’। বৃন্দাবন দাশের রচনা ও সকাল আহমেদের পরিচালনায় এতে অন্যতম প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন জনপ্রিয় অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী।

অন্যান্য চরিত্রে রয়েছেন নাদিয়া আহমেদ, প্রাণ রায়, মৌসুমী হামিদ, আজিজুল হাকিম, শাহনাজ খুশী, আরফান, শিরিন আলম, আশরাফুল আশীষ, মাসুম বাশার, শেলী আহসান প্রমুখ।

প্রতি রবি, সোম, মঙ্গল, বুধ ও বৃহস্পতিবার রাত ৮টা ৪০ মিনিটে প্রচার হচ্ছে নাটকটি।

গ্রামের বিত্তবান বড় বাড়ি সবার কাছে পরিচিত সরকার বাড়ি হিসেবে। সরকার বাড়ির শাসনকর্তা বজলুর রহমান ওরফে বোঁচা সরকার। স্ত্রী বিয়োগ হয়েছে বেশ কয়েক বছর আগে।

বর্তমানে বাড়িতে পাঁচটি পুত্র সন্তান এবং এক বিধবা বোন নিয়ে বোঁচা সরকারের পরিবার। তিন কন্যার যথাসময়ে বিয়ে দিয়েছেন, কিন্তু পুত্রদের বিয়ের বয়স পার হয়ে যাওয়ার পরও কাউকে বিয়ে দেননি।

এ নিয়ে পুত্রদের হতাশা, ক্ষোভ থাকলেও বাবার কথার বাইরে কিছু করার সাহস নেই কারও। কারণ সব ছেলেই অকর্মা। বোঁচা সরকার তাদের পড়াশোনা করাননি। জমিজমা, সম্পত্তি যা আছে তা দিয়েই সবার জীবন চলে যাবে, তাই কষ্ট করে পুত্রদের পড়াশোনা করতে দেননি।

বাবার এমন স্বেচ্ছাচারিতায় অতীষ্ঠ হয়ে ওঠে পুত্ররা। একসময় তারা জোট বেঁধে সিদ্ধান্ত নেয়, বিয়ে না দেওয়া পর্যন্ত তারা অনশন করবে। শুরু হয় নানারকম কাণ্ড। এভাবেই এগিয়ে যাবে নাটকটির কাহিনি।

চঞ্চল চৌধুরীর ‘পিতা বনাম পুত্র’

 বিনোদন প্রতিবেদন 
০৩ আগস্ট ২০২২, ০২:৩৯ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

১ আগস্ট থেকে মাছরাঙা টেলিভিশনে শুরু হচ্ছে নতুন ধারাবাহিক নাটক ‘পিতা বনাম পুত্র গং’। বৃন্দাবন দাশের রচনা ও সকাল আহমেদের পরিচালনায় এতে অন্যতম প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন জনপ্রিয় অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী।

অন্যান্য চরিত্রে রয়েছেন নাদিয়া আহমেদ, প্রাণ রায়, মৌসুমী হামিদ, আজিজুল হাকিম, শাহনাজ খুশী, আরফান, শিরিন আলম, আশরাফুল আশীষ, মাসুম বাশার, শেলী আহসান প্রমুখ। 

প্রতি রবি, সোম, মঙ্গল, বুধ ও বৃহস্পতিবার রাত ৮টা ৪০ মিনিটে প্রচার হচ্ছে নাটকটি।

গ্রামের বিত্তবান বড় বাড়ি সবার কাছে পরিচিত সরকার বাড়ি হিসেবে। সরকার বাড়ির শাসনকর্তা বজলুর রহমান ওরফে বোঁচা সরকার। স্ত্রী বিয়োগ হয়েছে বেশ কয়েক বছর আগে।

বর্তমানে বাড়িতে পাঁচটি পুত্র সন্তান এবং এক বিধবা বোন নিয়ে বোঁচা সরকারের পরিবার। তিন কন্যার যথাসময়ে বিয়ে দিয়েছেন, কিন্তু পুত্রদের বিয়ের বয়স পার হয়ে যাওয়ার পরও কাউকে বিয়ে দেননি।

এ নিয়ে পুত্রদের হতাশা, ক্ষোভ থাকলেও বাবার কথার বাইরে কিছু করার সাহস নেই কারও। কারণ সব ছেলেই অকর্মা। বোঁচা সরকার তাদের পড়াশোনা করাননি। জমিজমা, সম্পত্তি যা আছে তা দিয়েই সবার জীবন চলে যাবে, তাই কষ্ট করে পুত্রদের পড়াশোনা করতে দেননি।

বাবার এমন স্বেচ্ছাচারিতায় অতীষ্ঠ হয়ে ওঠে পুত্ররা। একসময় তারা জোট বেঁধে সিদ্ধান্ত নেয়, বিয়ে না দেওয়া পর্যন্ত তারা অনশন করবে। শুরু হয় নানারকম কাণ্ড। এভাবেই এগিয়ে যাবে নাটকটির কাহিনি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন