লুঙ্গি পরেই মিমের সঙ্গে ‘পরাণ’ দেখলেন সেই সামান আলী
jugantor
লুঙ্গি পরেই মিমের সঙ্গে ‘পরাণ’ দেখলেন সেই সামান আলী

  বিনোদন ডেস্ক  

০৫ আগস্ট ২০২২, ০৯:২৮:২৭  |  অনলাইন সংস্করণ

লুঙ্গি পরেই মিমের সঙ্গে ‘পরাণ’ সিনেমা দেখেছেন সেই সামান আলী সরকার। বৃহস্পতিবার রাতের শেষ শো'তে সনি স্কয়ারের স্টার সিনেপ্লেক্সে সামান আলী সরকারের সঙ্গে 'পরাণ' দেখেন মিম ও শরিফুল রাজ।

এর আগে লুঙ্গি পরে আসায় সামান আলী সরকারকে রায়হান রাফি পরিচালিত ‘ ‘পরাণ’ দেখতে অনুমতি দেয়নি হল কর্তৃপক্ষ। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে ওই ঘটনার ভিডিও ছড়িয়ে পড়লে সমালোচনার ঝড় ওঠে। এমনকি ‘পরাণ’ অভিনেত্রী বিদ্যা সিনহা মিমও ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে ওই ব্যক্তির খোঁজ করেন। ওই ঘটনায় দুঃখপ্রকাশ করে জানান পুরো টিমই তাকে সঙ্গে নিয়ে ‘পরাণ’ সিনেমা দেখতে ইচ্ছুক। তিনি লুঙ্গি পড়েই সিনেমা দেখতে আসুন।

সেই সামান আলী সরকারের সঙ্গে 'পরাণ' সিনেমা দেখলেন বিদ্যা সিনহা মিম। এ সময় সঙ্গে ছিল তার পরিবারও।

সিনেমা দেখার পর মিম বলেন, সামান আলী সরকারের সঙ্গে 'পরাণ' সিনেমা দেখে ভীষণ ভালো লেগেছে। আমার জীবনে এমন অভিজ্ঞতা কমই হয়েছে।

মিম আরও বলেন, পরাণ সিনেমা দেখে ভীষণ খুশি হয়েছেন সামান আলী সরকার। তিনি আমাকে বলেছেন, তার একটি মেয়ে, এখন থেকে আমিও তার মেয়ে। দুই মেয়ে হলো তার। এখন থেকে মেয়ের সব সিনেমা হলে গিয়ে দেখবেন।

এ ব্যাপারে স্টার সিনেপ্লেক্সের জ্যেষ্ঠ বিপণন কর্মকর্তা মেজবাহ উদ্দিন আহমেদ বলেন, সন্ধ্যার শোতে পরাণ সিনেমাটি দেখেছেন সামান আলী সরকার ও তার পরিবারের সদস্যরা। সিনেমা দেখার সময় তিনি ও তার পরিবারের সদস্যদের কয়েকজন এসেছিলেন লুঙ্গি পরেই।

গত বুধবার রাতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওতে দেখা গেছে, সাদা দাড়ির ষাটোর্ধ্ব সেই ব্যক্তি ৩৫০ টাকা নিয়ে হতাশ হয়ে দাঁড়িয়ে। লুঙ্গি পরে আসায় তাকে টিকিটি দিচ্ছে না হলের টিকিট সেলার। ‘পরাণ’ দেখে পরাণজুড়াতে না পারার আক্ষেপ ফুটে উঠেছে সেই বৃদ্ধের মুখে।

বুধবার রাজধানীর মিরপুরে অবস্থিত স্টার সিনেপ্লেক্সের সনি স্কয়ার শাখায় ঘটেছে এ ঘটনা।

বাংলা চলচ্চিত্র নামে চলচ্চিত্রবিষয়ক একটি গ্রুপে সেই বৃদ্ধের ছবি ও ভিডিও পোস্ট করে ঘটনা তুলে আনেন কাওসার আহমেদ নামের এক প্রত্যক্ষদর্শী। তার পোস্টটি ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে সমালোচনার ঝড় ওঠে। কেউ কেউ এটিকে বৈষম্য হিসেবে আখ্যায়িত করেন।

লুঙ্গি পরেই মিমের সঙ্গে ‘পরাণ’ দেখলেন সেই সামান আলী

 বিনোদন ডেস্ক 
০৫ আগস্ট ২০২২, ০৯:২৮ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

লুঙ্গি পরেই মিমের সঙ্গে ‘পরাণ’ সিনেমা দেখেছেন সেই সামান আলী সরকার। বৃহস্পতিবার রাতের শেষ শো'তে সনি স্কয়ারের স্টার সিনেপ্লেক্সে সামান আলী সরকারের সঙ্গে 'পরাণ' দেখেন মিম ও শরিফুল রাজ।

এর আগে লুঙ্গি পরে আসায় সামান আলী সরকারকে রায়হান রাফি পরিচালিত ‘ ‘পরাণ’ দেখতে অনুমতি দেয়নি হল কর্তৃপক্ষ। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে ওই ঘটনার ভিডিও ছড়িয়ে পড়লে সমালোচনার ঝড় ওঠে। এমনকি ‘পরাণ’ অভিনেত্রী বিদ্যা সিনহা মিমও ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে ওই ব্যক্তির খোঁজ করেন। ওই ঘটনায় দুঃখপ্রকাশ করে জানান পুরো টিমই তাকে সঙ্গে নিয়ে ‘পরাণ’ সিনেমা দেখতে ইচ্ছুক। তিনি লুঙ্গি পড়েই সিনেমা দেখতে আসুন।

সেই সামান আলী সরকারের সঙ্গে 'পরাণ' সিনেমা দেখলেন বিদ্যা সিনহা মিম। এ সময় সঙ্গে ছিল তার পরিবারও। 
  
সিনেমা দেখার পর মিম বলেন, সামান আলী সরকারের সঙ্গে 'পরাণ' সিনেমা দেখে ভীষণ ভালো লেগেছে। আমার জীবনে এমন অভিজ্ঞতা কমই হয়েছে।

মিম আরও বলেন, পরাণ সিনেমা দেখে ভীষণ খুশি হয়েছেন সামান আলী সরকার। তিনি আমাকে বলেছেন, তার একটি মেয়ে, এখন থেকে আমিও তার মেয়ে। দুই মেয়ে হলো তার। এখন থেকে মেয়ের সব সিনেমা হলে গিয়ে দেখবেন।

এ ব্যাপারে স্টার সিনেপ্লেক্সের জ্যেষ্ঠ বিপণন কর্মকর্তা মেজবাহ উদ্দিন আহমেদ বলেন, সন্ধ্যার শোতে পরাণ সিনেমাটি দেখেছেন সামান আলী সরকার ও তার পরিবারের সদস্যরা। সিনেমা দেখার সময় তিনি ও তার পরিবারের সদস্যদের কয়েকজন এসেছিলেন লুঙ্গি পরেই।

গত বুধবার রাতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওতে দেখা গেছে, সাদা দাড়ির ষাটোর্ধ্ব সেই ব্যক্তি ৩৫০ টাকা নিয়ে হতাশ হয়ে দাঁড়িয়ে। লুঙ্গি পরে আসায় তাকে টিকিটি দিচ্ছে না হলের টিকিট সেলার। ‘পরাণ’ দেখে পরাণজুড়াতে না পারার আক্ষেপ ফুটে উঠেছে সেই বৃদ্ধের মুখে।

বুধবার রাজধানীর মিরপুরে অবস্থিত স্টার সিনেপ্লেক্সের সনি স্কয়ার শাখায় ঘটেছে এ ঘটনা। 

বাংলা চলচ্চিত্র নামে চলচ্চিত্রবিষয়ক একটি গ্রুপে সেই বৃদ্ধের ছবি ও ভিডিও পোস্ট করে ঘটনা তুলে আনেন কাওসার আহমেদ নামের এক প্রত্যক্ষদর্শী। তার পোস্টটি ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে সমালোচনার ঝড় ওঠে। কেউ কেউ এটিকে বৈষম্য হিসেবে আখ্যায়িত করেন।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন