‘ব্যাচেলর পয়েন্ট’ বয়কটের ডাক: স্ট্যাটাসে যা লিখল ধ্রুব টিভি
jugantor
‘ব্যাচেলর পয়েন্ট’ বয়কটের ডাক: স্ট্যাটাসে যা লিখল ধ্রুব টিভি

  বিনোদন ডেস্ক  

২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১১:২৯:৩৮  |  অনলাইন সংস্করণ

তরুণ প্রজন্মের কাছে জনপ্রিয় ‘ব্যাচেলর পয়েন্ট’ ধারাবাহিকের চতুর্থ সিজন ধ্রুব টিভির ইউটিউব চ্যানেলে মুক্তির পর তুমুল সমালোচনার মুখে পড়ে।

এ নাটকের কয়েকটি পর্বের সংলাপকে ‘নোংরা’ বলে মন্তব্য নাট্যপ্রেমীদের। এ নিয়ে তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েন ধারাবাহিকের নির্মাতা কাজল আরেফিন অমি। ঘোর আপত্তি উঠে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। একসময় নাটকটি বয়কটের ডাকও দেওয়া হয়।

নাটকটির অন্যতম প্রধান চরিত্র পাশাকে একটি সংলাপে বলতে শোনা যায়— ‘এই যৌনকর্মীর ছেলে’। এ সংলাপ নিয়েই প্রথমে আপত্তি শুরু হয়। তার পর পুরো নাটকে বিভিন্ন সংলাপে ব্যবহৃত অশ্লীল গালাগালের প্রসঙ্গ টেনে আনেন নেটিজেনরা।

এসব অশ্লীল সংলাপ সমাজে বিরূপ প্রভাব ফেলছে— এ অভিযোগ করে নাটকটি বয়কটের ডাক দেন তারা।

অবশেষে দর্শকদের সমালোচনা ও আপত্তির মুখে সেসব পর্ব ইউটিউব থেকে সরিয়ে ফেলেছে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটি।

ধ্রুব টিভির ইউটিউব চ্যানেল ঘুরে দেখা যায়, চতুর্থ সিজনের ৭৪, ৭৫ ও ৭৬তম পর্ব মুছে ফেলা হয়েছে। পাশাপাশি ধ্রুব টিভির ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে এ নিয়ে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।

তাদের সেই স্ট্যাটাস পাঠকের উদ্দেশ্যে হুবহু প্রকাশ করা হলো—

‘ব্যাচেলর পয়েন্ট সিজন ফোরের সম্প্রতি প্রচারিত পর্বের কিছু সংলাপ নিয়ে সম্মানিত দর্শকবৃন্দ আপত্তি জানিয়েছেন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা করছেন। বিষয়টি আমাদের নজরে এসেছে। সম্মানিত দর্শকদের প্রতি সম্মান রেখে আমরা ব্যাচেলর পয়েন্ট সিজন ফোরের প্রচারিত আপত্তিকর পর্বগুলো আমাদের প্ল্যাটফর্ম থেকে ডিলিট করে দিয়েছি। ভবিষ্যতে আমরা নাটক প্রচারের ক্ষেত্রে আরও সতর্ক হব; যেন আমাদের সমাজ এবং সংস্কৃতির ওপর কোনো বিরূপ প্রভাব না পড়ে। দর্শকদের ভালোবাসাই আমাদের একান্ত চাওয়া। এ ভালোবাসা নিয়েই আমরা এগিয়ে যেতে চাই।’

‘ব্যাচেলর পয়েন্ট’ বয়কটের ডাক: স্ট্যাটাসে যা লিখল ধ্রুব টিভি

 বিনোদন ডেস্ক 
২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১১:২৯ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

তরুণ প্রজন্মের কাছে জনপ্রিয় ‘ব্যাচেলর পয়েন্ট’ ধারাবাহিকের চতুর্থ সিজন ধ্রুব টিভির ইউটিউব চ্যানেলে মুক্তির পর তুমুল সমালোচনার মুখে পড়ে।

এ নাটকের কয়েকটি পর্বের সংলাপকে ‘নোংরা’ বলে মন্তব্য নাট্যপ্রেমীদের।  এ নিয়ে তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েন ধারাবাহিকের নির্মাতা কাজল আরেফিন অমি। ঘোর আপত্তি উঠে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। একসময় নাটকটি বয়কটের ডাকও দেওয়া হয়।

নাটকটির অন্যতম প্রধান চরিত্র পাশাকে একটি সংলাপে বলতে শোনা যায়— ‘এই যৌনকর্মীর ছেলে’।  এ সংলাপ নিয়েই প্রথমে আপত্তি শুরু হয়। তার পর পুরো নাটকে বিভিন্ন সংলাপে ব্যবহৃত অশ্লীল গালাগালের প্রসঙ্গ টেনে আনেন নেটিজেনরা। 

এসব অশ্লীল সংলাপ সমাজে বিরূপ প্রভাব ফেলছে— এ অভিযোগ করে নাটকটি বয়কটের ডাক দেন তারা। 

অবশেষে দর্শকদের সমালোচনা ও আপত্তির মুখে সেসব পর্ব ইউটিউব থেকে সরিয়ে ফেলেছে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটি। 

ধ্রুব টিভির ইউটিউব চ্যানেল ঘুরে দেখা যায়, চতুর্থ সিজনের ৭৪, ৭৫ ও ৭৬তম পর্ব মুছে ফেলা হয়েছে। পাশাপাশি ধ্রুব টিভির ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে এ নিয়ে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। 

তাদের সেই স্ট্যাটাস পাঠকের উদ্দেশ্যে হুবহু প্রকাশ করা হলো—

‘ব্যাচেলর পয়েন্ট সিজন ফোরের সম্প্রতি প্রচারিত পর্বের কিছু সংলাপ নিয়ে সম্মানিত দর্শকবৃন্দ আপত্তি জানিয়েছেন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা করছেন। বিষয়টি আমাদের নজরে এসেছে। সম্মানিত দর্শকদের প্রতি সম্মান রেখে আমরা ব্যাচেলর পয়েন্ট সিজন ফোরের প্রচারিত আপত্তিকর পর্বগুলো আমাদের প্ল্যাটফর্ম থেকে ডিলিট করে দিয়েছি। ভবিষ্যতে আমরা নাটক প্রচারের ক্ষেত্রে আরও সতর্ক হব; যেন আমাদের সমাজ এবং সংস্কৃতির ওপর কোনো বিরূপ প্রভাব না পড়ে। দর্শকদের ভালোবাসাই আমাদের একান্ত চাওয়া। এ ভালোবাসা নিয়েই আমরা এগিয়ে যেতে চাই।’
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন