এবার ফারহানা মিলির নায়ক রাশেদ সীমান্ত
jugantor
এবার ফারহানা মিলির নায়ক রাশেদ সীমান্ত

  বিনোদন প্রতিবেদন  

৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০১:২৫:৫৭  |  অনলাইন সংস্করণ

মনপুরা চলচ্চিত্রের আলোড়ন তোলা নায়িকা ফারহানা মিলির সঙ্গে প্রথমবার জুটি বাঁধলেন রাশেদ সীমান্ত। নাটকের নাম ‘বিয়েবাণিজ্য’। টিপু আলম মিলনের গল্পে সুবাতা রাহিক জারিফার চিত্রনাট্যে নাটকটি পরিচালনা করেছেন এবি রোকন।

এতে আরও অভিনয় করেছেন অলিউল হক রুমি, শফিক খান দিলুসহ অনেকে। রাশেদ সীমান্ত হাতেগোনা যে কয়েকটি নাটকে অভিনয় করেছেন তার প্রায় প্রতিটি নাটকই কোটি ভিউ ছাড়িয়ে গেছে। নাটকপাগল দর্শকদের কাছে তিনি তুমুল জনপ্রিয়। বর্তমানে টিভি মিডিয়ায় প্রথম সারির যে কজন অভিনেতা আছেন, রাশেদ সীমান্ত তাদের মাঝে একজন।

সম্প্রতি ঢাকার উত্তরায় শুটিং হলো নাটকটির। নাটকটি নিয়ে দারুণ আশাবাদী রাশেদ সীমান্ত। গল্পকার টিপু আলম মিলন বলেন, নাটকের নায়ক জগলুল হায়দার তথ্য গোপন করে একের পর এক বিয়ে করেন এবং কিছু দিন পর পর তার অবস্থান পরিবর্তন করেন। জগলুল হায়দার কোনো সাধারণ মানুষকে বিয়ে করেন না। তিনি দুরারোগ্য রোগে আক্রান্ত অসহায় গরিব মেয়েদের বিয়ে করেন এবং তাদের ভালোমন্দ খাওয়া-দাওয়া দেখাশোনা- সর্বোপরি সব দায়িত্ব নিজ কাঁধে তুলে নেন।

এভাবে একের পর এক বাড়তে থাকে জগলুল হায়দারের বিয়ের সংখ্যা। এতে তাকে সাহায্য করেন তার সহকারী সিদ্দিক। যে জগলুল হায়দারকে নতুন নতুন বিয়ের জন্য পাত্রীর খোঁজ এনে দেন, তাকে সম্মানী দেন জগলুল হায়দার। ১৬তম বিয়েতে জগলুল হায়দারের ঘরে স্ত্রী হয়ে আসে লাবণী। লাবণীও দুরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্ত; কিন্তু অন্য দশটা সাধারণ মেয়ের মতো লাবণী চান তার স্বামীর সেবা করতে, যা জগলুলের অতীতের কোনো স্ত্রী করেননি। অবাক হয় জগলুল। ধীরে ধীরে লাবণীর প্রতি এক ধরনের ভালো লাগা কাজ করতে থাকে জগলুলের। কিন্তু জগলুল তো আরও অনেক বিয়ে করেছেন।

তা হলে তাদের কি তার ভালো লাগেনি? সে উত্তর খুঁজতে অপেক্ষা করতে হবে নাটকটি দেখার জন্য। প্রচার হবে বৈশাখী টেলিভিশনে।

এবার ফারহানা মিলির নায়ক রাশেদ সীমান্ত

 বিনোদন প্রতিবেদন 
৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০১:২৫ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

মনপুরা চলচ্চিত্রের আলোড়ন তোলা নায়িকা ফারহানা মিলির সঙ্গে প্রথমবার জুটি বাঁধলেন রাশেদ সীমান্ত। নাটকের নাম ‘বিয়েবাণিজ্য’। টিপু আলম মিলনের গল্পে সুবাতা রাহিক জারিফার চিত্রনাট্যে নাটকটি পরিচালনা করেছেন এবি রোকন।

এতে আরও অভিনয় করেছেন অলিউল হক রুমি, শফিক খান দিলুসহ অনেকে। রাশেদ সীমান্ত হাতেগোনা যে কয়েকটি নাটকে অভিনয় করেছেন তার প্রায় প্রতিটি নাটকই কোটি ভিউ ছাড়িয়ে গেছে। নাটকপাগল দর্শকদের কাছে তিনি তুমুল জনপ্রিয়। বর্তমানে টিভি মিডিয়ায় প্রথম সারির যে কজন অভিনেতা আছেন, রাশেদ সীমান্ত তাদের মাঝে একজন।

সম্প্রতি ঢাকার উত্তরায় শুটিং হলো নাটকটির। নাটকটি নিয়ে দারুণ আশাবাদী রাশেদ সীমান্ত। গল্পকার টিপু আলম মিলন বলেন, নাটকের নায়ক জগলুল হায়দার তথ্য গোপন করে একের পর এক বিয়ে করেন এবং কিছু দিন পর পর তার অবস্থান পরিবর্তন করেন। জগলুল হায়দার কোনো সাধারণ মানুষকে বিয়ে করেন না। তিনি দুরারোগ্য রোগে আক্রান্ত অসহায় গরিব মেয়েদের বিয়ে করেন এবং তাদের ভালোমন্দ খাওয়া-দাওয়া দেখাশোনা- সর্বোপরি সব দায়িত্ব নিজ কাঁধে তুলে নেন।

এভাবে একের পর এক বাড়তে থাকে জগলুল হায়দারের বিয়ের সংখ্যা। এতে তাকে সাহায্য করেন তার সহকারী সিদ্দিক। যে জগলুল হায়দারকে নতুন নতুন বিয়ের জন্য পাত্রীর খোঁজ এনে দেন, তাকে সম্মানী দেন জগলুল হায়দার। ১৬তম বিয়েতে জগলুল হায়দারের ঘরে স্ত্রী হয়ে আসে লাবণী। লাবণীও দুরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্ত; কিন্তু অন্য দশটা সাধারণ মেয়ের মতো লাবণী চান তার স্বামীর সেবা করতে, যা জগলুলের অতীতের কোনো স্ত্রী করেননি। অবাক হয় জগলুল। ধীরে ধীরে লাবণীর প্রতি এক ধরনের ভালো লাগা কাজ করতে থাকে জগলুলের। কিন্তু জগলুল তো আরও অনেক বিয়ে করেছেন।

তা হলে তাদের কি তার ভালো লাগেনি? সে উত্তর খুঁজতে অপেক্ষা করতে হবে নাটকটি দেখার জন্য। প্রচার হবে বৈশাখী টেলিভিশনে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন