জ্যাকুলিনের সঙ্গে সুকেশকে দেখা করানো সেই পিঙ্কি ইরানি গ্রেফতার
jugantor
জ্যাকুলিনের সঙ্গে সুকেশকে দেখা করানো সেই পিঙ্কি ইরানি গ্রেফতার

  বিনোদন ডেস্ক  

০১ ডিসেম্বর ২০২২, ১৪:১২:০৪  |  অনলাইন সংস্করণ

বলিউড সেনসেশন জ্যাকুলিন ফার্নান্দেজ ও ধনকুবের সুকেশ চন্দ্রশেখরের মধ্যে ঘনিষ্ঠতা নিয়ে কম জলঘোলা হয়নি। জ্যাকুলিনকে পুলিশ ও তদন্ত সংস্থার কাছে যেতে হয়েছে বারবার।

জ্যাকুলিন ও সুকেশের মধ্যে সম্পর্ক তৈরি করার ক্ষেত্রে সেতু হিসেবে ভূমিকা রেখেছেন এক নারী। আলোচিত সেই পিঙ্কি ইরানিকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

বুধবার তাকে গ্রেফতার করে দিল্লি পুলিশ। আদালত তাকে তিন দিন পুলিশ হেফাজতে রেখে জিজ্ঞাসাবাদের নির্দেশ দিয়েছেন।

এই পিঙ্কিই জ্যাকুলিন ফার্নান্দেজকে দেখা করিয়েছিলেন সুকেশ চন্দ্রশেখরের সঙ্গে। ২০০ কোটি রুপির আর্থিক প্রতারণার মামলায় নাম জড়িয়েছে তারও।

দিল্লি পুলিশের মুখপাত্র সুমন নালওয়া এ বিষয়ে জানান, পিঙ্কির বিরুদ্ধে একাধিক প্রমাণ পাওয়ার পর গ্রেফতার করা হয় এবং আদালতে পেশ করা হয়। আদালতের তরফে তিন দিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আরও তদন্ত বাকি আছে এই নিয়ে।

দিল্লি আদালতের পক্ষ থেকে জামিন মঞ্জুর করা হয়েছে জ্যাকুলিনের। বলা হয়েছে, যেহেতু তদন্তের সময় ইডি তাকে গ্রেফতার করেনি, তাই তিনি জামিন পাওয়ার যোগ্য। আদালতের পক্ষ থেকে এ নিয়ে ইডিকে ভর্ৎসনাও করা হয়।

পাচার মামলায় সুকেশ এখন তিহার জেলে। জ্যাকুলিন জামিনে রয়েছেন। গত ১৭ আগস্ট ইডির পক্ষ থেকে জ্যাকুলিনের নামে চার্জশিট পেশ করা হয়। জ্যাকুলিনের বিরুদ্ধে অভিযোগ তিনি জেনেবুঝেই সুকেশের সঙ্গে সম্পর্ক করেছেন। দামি উপহার নিয়েছেন। বিনিময়ে দিয়েছেন সঙ্গ। তবে জ্যাকুলিন এই অভিযোগ মানতে নারাজ।

জ্যাকুলিনের সঙ্গে সুকেশকে দেখা করানো সেই পিঙ্কি ইরানি গ্রেফতার

 বিনোদন ডেস্ক 
০১ ডিসেম্বর ২০২২, ০২:১২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বলিউড সেনসেশন জ্যাকুলিন ফার্নান্দেজ ও ধনকুবের সুকেশ চন্দ্রশেখরের মধ্যে ঘনিষ্ঠতা নিয়ে কম জলঘোলা হয়নি। জ্যাকুলিনকে পুলিশ ও তদন্ত সংস্থার কাছে যেতে হয়েছে বারবার।

জ্যাকুলিন ও সুকেশের মধ্যে সম্পর্ক তৈরি করার ক্ষেত্রে সেতু হিসেবে ভূমিকা রেখেছেন এক নারী। আলোচিত সেই পিঙ্কি ইরানিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। 

বুধবার তাকে গ্রেফতার করে দিল্লি পুলিশ। আদালত তাকে তিন দিন পুলিশ হেফাজতে রেখে জিজ্ঞাসাবাদের নির্দেশ দিয়েছেন। 

এই পিঙ্কিই জ্যাকুলিন ফার্নান্দেজকে দেখা করিয়েছিলেন সুকেশ চন্দ্রশেখরের সঙ্গে। ২০০ কোটি রুপির আর্থিক প্রতারণার মামলায় নাম জড়িয়েছে তারও। 

দিল্লি পুলিশের মুখপাত্র সুমন নালওয়া এ বিষয়ে জানান, পিঙ্কির বিরুদ্ধে একাধিক প্রমাণ পাওয়ার পর গ্রেফতার করা হয় এবং আদালতে পেশ করা হয়। আদালতের তরফে তিন দিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আরও তদন্ত বাকি আছে এই নিয়ে।

দিল্লি আদালতের পক্ষ থেকে জামিন মঞ্জুর করা হয়েছে জ্যাকুলিনের। বলা হয়েছে, যেহেতু তদন্তের সময় ইডি তাকে গ্রেফতার করেনি, তাই তিনি জামিন পাওয়ার যোগ্য। আদালতের পক্ষ থেকে এ নিয়ে ইডিকে ভর্ৎসনাও করা হয়। 

পাচার মামলায় সুকেশ এখন তিহার জেলে। জ্যাকুলিন জামিনে রয়েছেন। গত ১৭ আগস্ট ইডির পক্ষ থেকে জ্যাকুলিনের নামে চার্জশিট পেশ করা হয়। জ্যাকুলিনের বিরুদ্ধে অভিযোগ তিনি জেনেবুঝেই সুকেশের সঙ্গে সম্পর্ক করেছেন। দামি উপহার নিয়েছেন। বিনিময়ে দিয়েছেন সঙ্গ। তবে জ্যাকুলিন এই অভিযোগ মানতে নারাজ। 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন