বাগদানের আড়াই বছর পর বিয়ে না করার কারণ জানালেন নুসরাত
jugantor
বাগদানের আড়াই বছর পর বিয়ে না করার কারণ জানালেন নুসরাত

  অনলাইন ডেস্ক  

০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ২১:১৮:৪২  |  অনলাইন সংস্করণ

অভিনেত্রী নুসরাত ফারিয়া ও রনি রিয়াদ রশিদের বাগদান হয়েছে আড়াই বছরেরও বেশি। দীর্ঘ সময় পার হলেও বিয়ের পিঁড়িতে বসেননি নায়িকা। ফলে বিয়ের দিনক্ষণ ঠিক করেও কেন তিনি বিয়ে করছেন না তা নিয়ে ভক্তদের মাঝে কৌতূহলের শেষ ছিল না। অবশেষে সেই কৌতূহলের অবসান হলো।

নুসরাত জানিয়েছেন, রনিকে তিনি আর বিয়ে করছেন না। আপাতত তিনি সিঙ্গেল থাকতে চান।

গতকাল বুধবার একটি গণমাধ্যমকে এসব তথ্য জানিয়েছেন নুসরাত ফারিয়া।

কেন বিয়ে করছেন না- এ বিষয়ে নায়িকা বলেন, জীবনে ওঠা-নামা তো থাকবেই। আমাদের নিজেদের ভেতরে কোনো সমস্যা নাই, কোনো দ্বিধাদ্বন্দ্ব নাই, কখনো হয়নি। কিন্তু বিয়েটা আর হচ্ছে না।

‘তবে রনির সঙ্গে আমার সব সময়ই যোগাযোগ আছে। সারা জীবনই বন্ধুর মতো সম্পর্ক থাকবে তার সঙ্গে। এখন যে সিদ্ধান্ত নিয়েছি, এটি দুজনের বোঝাপড়ার সিদ্ধান্ত।’

নুসরাত আরও বলেন, হুজুগের বশে কোনো কিছু করা ঠিক না। এতে দীর্ঘ সময়ের ভোগান্তিটা আমারই হবে। এ কারণে ঠাণ্ডা মাথায় যা করার, সেটাই করছি আমি। সেভাবেই চলার চেষ্টা করি, করছি। আমার কাছে মনে হয়েছে আমাদের মধ্যে বন্ধুত্বের সম্পর্ক থাকলে সম্পর্কটি দীর্ঘস্থায়ী হবে।

এছাড়া বিয়ের পর বিচ্ছেদ নিয়ে ভয়ের শঙ্কাও প্রকাশ করেছেন নায়িকা। তিনি বলেন, আশপাশে অনেক বিচ্ছেদের খবরে আমার ভয় লাগে। কারণ আমাদের পরিবার, আত্মীয়স্বজনের মধ্যে এই বিবাহবিচ্ছেদের বিষয়টি নাই। এটি আমার জন্য একটা মানসিক ট্রমা।

রনি ছাড়া অন্য কোথায় বিয়ের ব্যাপারে পরিবার থেকে কোনো চাপ আছে কিনা- এ বিষয়ে এই অভিনেত্রী বলেন, হুম, পরিবার থেকে বিয়ের বিষয়ে চাপ আছে। কিন্তু আমি এখন যেভাবে, যে পরিমাণ কাজ নিয়ে ব্যস্ত আছি, বিয়ের বিষয়টি আসলে আমি কাজে সময় দিতে পারব না। সুতরাং কাজ ফেলে এখনই বিয়ে করব না।

মজার ছলে নায়িকা এও বলেন, ইন্ডাস্ট্রিতে অন্তত একজন নায়িকা সিঙ্গেল থাক না। জোর করে বিয়ে, বাচ্চা- এসব দরকার নাই তো। একটু রিলাক্সে, একটু শান্তিতে থাকতে চাই।

উল্লেখ্য, দীর্ঘ সাত বছর গোপনে প্রেম করেন রনি-নুসরাত। ২০২০ সালের মার্চে বাগদানও সারেন। ওই বছরের ১২ জুন আংটি বদলের একটি ছবি ফেসবুকে পোস্ট করেন ফারিয়া।

তবে ওই সময় হবু বর সম্পর্কে বিস্তারিত জানাননি নুসরাত। তবে নুসরাত ফারিয়ার ঘনিষ্ঠ একটি সূত্র জানিয়েছিল, নুসরাতের হবু স্বামী রনি রিয়াদ রশিদ একটি টেলিকমিউনিকেশন প্রতিষ্ঠানের শীর্ষ কর্মকর্তা। তিনি সাবেক সেনাপ্রধান লে. জে. হারুন-অর-রশীদের ছেলে।

২০১৫ সালে বাংলাদেশ-ভারত যৌথ প্রযোজনার ছবি ‘আশিকি’র মাধ্যমে চলচ্চিত্রে অভিনয় শুরু করেন নুসরাত ফারিয়া। এরপর ‘হিরো ৪২০’, ‘বাদশা দ্য ডন’, ‘বস-টু’, ‘প্রেমী ও প্রেমী’, ‘ধ্যাততেরিকি’-সহ বেশ কয়েকটি ছবিতে অভিনয় করেন তিনি। এর সবই যৌথ প্রযোজনার ছবি। একক বাংলাদেশি প্রযোজনায় তার অভিনীত ছবি ‘শাহেনশাহ’। এ ছবিতে তিনি শাকিব খানের বিপরীতে অভিনয় করেন।

বাগদানের আড়াই বছর পর বিয়ে না করার কারণ জানালেন নুসরাত

 অনলাইন ডেস্ক 
০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ০৯:১৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

অভিনেত্রী নুসরাত ফারিয়া ও রনি রিয়াদ রশিদের বাগদান হয়েছে আড়াই বছরেরও বেশি। দীর্ঘ সময় পার হলেও বিয়ের পিঁড়িতে বসেননি নায়িকা। ফলে বিয়ের দিনক্ষণ ঠিক করেও কেন তিনি বিয়ে করছেন না তা নিয়ে ভক্তদের মাঝে কৌতূহলের শেষ ছিল না। অবশেষে সেই কৌতূহলের অবসান হলো। 

নুসরাত জানিয়েছেন, রনিকে তিনি আর বিয়ে করছেন না। আপাতত তিনি সিঙ্গেল থাকতে চান। 

গতকাল বুধবার একটি গণমাধ্যমকে এসব তথ্য জানিয়েছেন নুসরাত ফারিয়া।

কেন বিয়ে করছেন না- এ বিষয়ে নায়িকা বলেন, জীবনে ওঠা-নামা তো থাকবেই। আমাদের নিজেদের ভেতরে কোনো সমস্যা নাই, কোনো দ্বিধাদ্বন্দ্ব নাই, কখনো হয়নি। কিন্তু বিয়েটা আর হচ্ছে না।

‘তবে রনির সঙ্গে আমার সব সময়ই যোগাযোগ আছে। সারা জীবনই বন্ধুর মতো সম্পর্ক থাকবে তার সঙ্গে। এখন যে সিদ্ধান্ত নিয়েছি, এটি দুজনের বোঝাপড়ার সিদ্ধান্ত।’

নুসরাত আরও বলেন, হুজুগের বশে কোনো কিছু করা ঠিক না। এতে দীর্ঘ সময়ের ভোগান্তিটা আমারই হবে। এ কারণে ঠাণ্ডা মাথায় যা করার, সেটাই করছি আমি। সেভাবেই চলার চেষ্টা করি, করছি। আমার কাছে মনে হয়েছে আমাদের মধ্যে বন্ধুত্বের সম্পর্ক থাকলে সম্পর্কটি দীর্ঘস্থায়ী হবে।

এছাড়া বিয়ের পর বিচ্ছেদ নিয়ে ভয়ের শঙ্কাও প্রকাশ করেছেন নায়িকা। তিনি বলেন, আশপাশে অনেক বিচ্ছেদের খবরে আমার ভয় লাগে। কারণ আমাদের পরিবার, আত্মীয়স্বজনের মধ্যে এই বিবাহবিচ্ছেদের বিষয়টি নাই। এটি আমার জন্য একটা মানসিক ট্রমা।

রনি ছাড়া অন্য কোথায় বিয়ের ব্যাপারে পরিবার থেকে কোনো চাপ আছে কিনা- এ বিষয়ে এই অভিনেত্রী বলেন, হুম, পরিবার থেকে বিয়ের বিষয়ে চাপ আছে। কিন্তু আমি এখন যেভাবে, যে পরিমাণ কাজ নিয়ে ব্যস্ত আছি, বিয়ের বিষয়টি আসলে আমি কাজে সময় দিতে পারব না। সুতরাং কাজ ফেলে এখনই বিয়ে করব না।

মজার ছলে নায়িকা এও বলেন, ইন্ডাস্ট্রিতে অন্তত একজন নায়িকা সিঙ্গেল থাক না। জোর করে বিয়ে, বাচ্চা- এসব দরকার নাই তো। একটু রিলাক্সে, একটু শান্তিতে থাকতে চাই।

উল্লেখ্য, দীর্ঘ সাত বছর গোপনে প্রেম করেন রনি-নুসরাত। ২০২০ সালের মার্চে বাগদানও সারেন। ওই বছরের ১২ জুন আংটি বদলের একটি ছবি ফেসবুকে পোস্ট করেন ফারিয়া। 

তবে ওই সময় হবু বর সম্পর্কে বিস্তারিত জানাননি নুসরাত। তবে নুসরাত ফারিয়ার ঘনিষ্ঠ একটি সূত্র জানিয়েছিল, নুসরাতের হবু স্বামী রনি রিয়াদ রশিদ একটি টেলিকমিউনিকেশন প্রতিষ্ঠানের শীর্ষ কর্মকর্তা। তিনি সাবেক সেনাপ্রধান লে. জে. হারুন-অর-রশীদের ছেলে।

২০১৫ সালে বাংলাদেশ-ভারত যৌথ প্রযোজনার ছবি ‘আশিকি’র মাধ্যমে চলচ্চিত্রে অভিনয় শুরু করেন নুসরাত ফারিয়া। এরপর ‘হিরো ৪২০’, ‘বাদশা দ্য ডন’, ‘বস-টু’, ‘প্রেমী ও প্রেমী’, ‘ধ্যাততেরিকি’-সহ বেশ কয়েকটি ছবিতে অভিনয় করেন তিনি। এর সবই যৌথ প্রযোজনার ছবি। একক বাংলাদেশি প্রযোজনায় তার অভিনীত ছবি ‘শাহেনশাহ’। এ ছবিতে তিনি শাকিব খানের বিপরীতে অভিনয় করেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন